কলারোয়ায় প্রেমিকা নিয়ে পালিয়েছে ছেলে, ভয়ে পালিয়েছেন বাবা-মা

কলারোয়া ফিচার সাতক্ষীরা

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় প্রেমের টানে বাড়ি ছেড়ে পালিয়েছে প্রেমিক-প্রেমিকা। আর মেয়েকে না পেয়ে ছেলের পরিবারের ঘরবাড়ি ভাঙচুর করছে মেয়ের পরিবার। অসহায় ছেলের বাবা-মা এখন ঘরবাড়ি ছেড়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন।

প্রেমিক তরিকুল গাজী কলারোয়া উপজেলার জয়নগর ইউপির খোর্দবাটরা গ্রামের বাবুর আলীর ছেলে। আর প্রেমিকা রিমা খাতুন প্রতিবেশী খলিল শেখের মেয়ে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, তরিকুল গাজী ও রিমা খাতুনের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক ছিলো। একমাস আগে তারা বাড়ি থেকে পালিয়ে যায়। ঘটনার তিনদিন পর ইউপি চেয়ারম্যান ও স্থানীয় ইউপি সদস্য ওই তরুণ-তরুণীকে বাড়িতে এনে পরিবারের হাতে তুলে দেন। কিন্তু একদিন পরই ওই তরুণ-তরুণী আবারো বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে যান। এরপর থেকে নিখোঁজ রয়েছে তারা।

প্রেমিক তরিকুল গাজীর চাচি মোমেনা বেগম জানান, গত এক মাস ধরে বিভিন্ন সময় বাড়িতে হামলা চালাচ্ছে রিমার পরিবার। বাড়ি ভাঙচুর ও ঢিল ছুঁড়ে মারছে। এছাড়া বিভিন্ন ভয়ভীতি দেখাচ্ছে তারা। ভয়ে তরিকুলের বাবা ও মা বাড়ি ছেড়ে অন্যত্র চলে গেছেন।

তবে এমন অভিযোগ অস্বীকার করে রিমার বাবা খলিল শেখ বলেন, আমি কারো বাড়ি ভাঙচুর করিনি। আমার মেয়েকে পেলেই হলো।

ঘটনার বিষয়ে স্থানীয় ইউপি সদস্য বজলুর রহমান বলেন, আমি ও চেয়ারম্যান ঘটনার শুরু থেকে জানি। বাড়িতে হামলার বিষয়টি আমি শুনেছি। খলিল শেখের পরিবারের সদস্যদের অত্যাচারে বাড়ি ছেড়েছে তরিকুল গাজীর মা-বাবা। বাড়িটি এখন ফাঁকা। তারপরও অত্যাচার থেমে নেই। বিষয়টি খুবই দুঃখজনক।

জয়নগর ইউপির চেয়ারম্যান শামছুদ্দিন আল মাছুদ বাবু বলেন, বাবুর আলী সরসকাটি বাজারের নৈশ প্রহরী। খলিল শেখের পরিবারের অত্যাচারে তিনি গত ২০ দিন আগে পালিয়েছেন।

ঘটনার বিষয়ে কলারোয়া থানার ওসি শেখ মুনীর উল গিয়াসের সঙ্গে মোবাইলে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও তিনি কোনো সাড়া দেননি।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *