শীতে স্কিনকেয়ার চার্ট মেনে ত্বক রাখুন টানটান

বয়সের সঙ্গে সঙ্গে ত্বকের সৌন্দর্য রক্ষার উপায়ও বদলায়। কারণ বয়স বাড়লে ত্বকের বলিরেখাও বাড়ে। কিন্তু সময়ের আগেই যদি তা হতে শুরু করে, তবে চিন্তা হওয়াই স্বাভাবিক। তবে প্রতিদিন কয়েকটা নিয়ম মেনে চললেই কিন্তু আর এই সমস্যায় পড়তে হয় না। তাড়াতাড়ি ত্বক বুড়িয়ে যায় না। মুখও থাকে টানটান।

প্রতিদিন এই স্কিনকেয়ার রুটিন ফলো করুন।

>> দিনে দুইবার মুখ ক্লিনজিং করুন। তারপর টোনার ও ময়শ্চারাইজার লাগিয়ে নিন। অন্তত দুইবার এই নিয়ম মেনে চলতেই হবে আপনাকে। এই সামান্য যত্নেই ত্বক ভালো থাকতে পারে।

>> ত্বকের ক্ষতি হওয়ার অন্যতম কারণ হলো, সূর্যের ক্ষতিকারক রশ্মি। দিনের পর দিন ত্বকে সূর্যের ক্ষতিকারক রশ্মির প্রভাবে সময়ের আগেই বয়সের ছাপ পড়তে পারে। ত্বকের টানটানভাব চলে যেতে পারে। ত্বক শিথিল হতে পারে। এছাড়া আরও অনেক ক্ষতি হতে পারে।

>> প্রতিদিন সকালে বেরনোর সময় অবশ্য়ই সানস্ক্রিন লাগাবেন। মুখে, হাতে, পায়ে সানস্ক্রিন না মেখে বাইরে বেরবেন না। মেঘলা থাকলেও সানস্ক্রিন মাখার কথা ভুলবেন না।

>> রেটিনয়েডস এবং কোলাজেন বেসড স্কিনকেয়ার প্রোডাক্ট ব্যবহার করতে পারেন। এটি আপনার ত্বকের যৌবনের গোপন অস্ত্র। রেটিনয়েড বা রেটিনলে আছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এবং অ্যান্টি এজিং উপাদান। যা আপনার মুখের বলিরেখা কমাতে সাহায্য করে এবং কোলাজেন উৎপাদন বাড়ায়।

>>ন্যাশনাল লাইব্রেরি অফ মেডিসিনে প্রকাশিত ‘Improvement of naturally aged skin with vitamin A (retinol)’-এ এই উল্লেখ করা হয়েছে। রেটিনল ক্রিম আপনি চাইলেই বাজারে পেয়ে যাবেন। আর নাহলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে রেটিনল বেসড প্রোডাক্ট ব্যবহার করতেই পারেন। এছাড়াও আপনি কোলাজেন বুস্টিং ক্রিম ব্যবহার করতে পারেন। তবে কোনো রকম সাপ্লিমেন্ট নেয়ার আগে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে ভুলবেন না।

>>শুধুই মুখের যত্ন নিলে হবে না। মুখের ত্বক যেমন কুঁচকে যেতে থাকে, হাত পায়ের চামড়াও কিন্তু কুঁচকাতে শুরু করে। তাই হাতের ও পায়েরও নিয়মিত যত্ন করতে হবে। হাতে ও পা পরিষ্কার রাখবেন ও ক্রিম লাগাবেন। ময়শ্চারাইজ করতে ভুলবেন না। একইভাবে ঠোঁটের যত্নও নিতে হবে আপনাকে।

>> ত্বকের টানটানভাব ধরে রাখে। কোলাজের উৎপাদন বাড়ায়। ত্বকে সহজেই বলিরেখা আসে না। গবেষণাতেও সেই উল্লেখ করা হয়েছে। ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড – এর মধ্য়ে আছে অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি উপাদান। যেসব খাবারে ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড থাকে। তা গ্রহণ করলে ত্বকের জন্য ভালো।

>> আপনি যদি পলি ফেনলস গ্রহণ করতে পারেন, তাহলে তা আপনার ত্বককে অতিবেগুনি রশ্মি থেকে বাঁচাবে। এর মধ্য়ে আছে অ্যান্টি অক্সিড্যান্টস এবং অ্যান্টি ইনফ্ল্যামেটরি উপাদান। যা আপনার ত্বককে ভালো রাখে।

>>ভিটামিন ডি, ভিটটামিন ই ও ভিটামিন সি- এই দুই ভিটামিন আপনার ত্বককে ভালো রাখে। আপনি এই ধরনের ভিটামিন সমৃদ্ধ খাবার খেতে পারেন। তা আপনার ত্বককে ভালো রাখবে।

সূত্র: এই সময়

Please follow and like us:
Tweet 20

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial
error

Enjoy this blog? Please spread the word :)