বিশ্বের জনসংখ্যা এখন ৮০০ কোটি

ফিচার ডেস্ক:

বেশ কয়েকদিন ধরেই আভাস পাওয়া যাচ্ছিল, সমগ্র বিশ্বের জনসংখ্যা পৌঁছাবে প্রায় ৮০০ কোটিতে। সেই ঐতিহাসিক সংখ্যা ছুঁয়ে ফেলল বিশ্ব।

জাতিসংঘের প্রতিবেদন অনুযায়ী, ২০২২ এর ১৫ নভেম্বর বিশ্বের জনসংখ্যা ৮০০ কোটিতে পৌঁছেছে। ২০৩০ সালের মধ্যে এই জনসংখ্যা পৌঁছাবে প্রায় সাড়ে ৮০০ কোটিতে। ২০৫০ সালে তা বৃদ্ধি পেয়ে হবে ৯৭০ কোটি। ২১০০ সালে মোট জনসংখ্যা পৌঁছাবে প্রায় ১০০৪ কোটিতে।

২০২৩ সালে জনসংখ্যার দিক থেকে চীনকে ছাপিয়ে যাবে ভারত। বিশ্বের জনসংখ্যা ৭০০ থেকে ৮০০ কোটিতে পৌঁছেতে সময় লেগেছে প্রায় ১২ বছর। কিন্তু ৮০০ থেকে ৯০০ কোটিতে পৌঁছাতে সময় লাগতে পারে প্রায় ১৫ বছর।

বিশ্বের যে দেশগুলোতে মাথাপিছু আয় কম, সেগুলোতেই জনসংখ্যা সবথেকে বৃদ্ধি পাবে। অপরদিকে বিশ্বের প্রায় ৬১ দেশের জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার ২০৫০ সালের মধ্যে এক শতাংশের নিচে নামবে। ২০৫০ সালের মধ্যে সবথেকে বেশি জনসংখ্যা বৃদ্ধি পাবে ভারত, নাইজেরিয়া, পাকিস্তান,কঙ্গো, মিশর, ফিলিপিন্স, তানজানিয়া এবং ইথিওপিয়াতে।

জাতিসংঘের তথ্য অনুযায়ী, উর্বরতার হার ক্রমাগত হ্রাসের কারণে এই সংখ্যা ২০৫০ সালের মধ্যে প্রায় ০.৫ শতাংশে নেমে আসতে পারে। মানুষের আয়ুর বৃদ্ধির পাশাপাশি সন্তান জন্মদানে সক্ষম মানুষের সংখ্যার পরিপ্রেক্ষিতে করা রিপোর্ট অনুযায়ী, ২০৩০ সাল নাগাদ বৈশ্বিক জনসংখ্যা পৌঁছাবে ৮.৫ বিলিয়নে। বিশ্বব্যাপী এই জনসংখ্যা বৃদ্ধির মূল কারণ হল, গড় আয়ু বৃদ্ধি। ২০১৯ সালে ছিল ৭২.৮ বছর, যা ১৯৯০ সালের তুলনায় প্রায় ৯ বছর বেশি। জাতিসংঘের পূর্বাভাস অনুযায়ী, ২০৫০ সালের মধ্যে গড় আয়ু বৃদ্ধি পেয়ে দাঁড়াবে ৭৭.২ বছরে।

Please follow and like us:
Tweet 20

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial
error

Enjoy this blog? Please spread the word :)