কদম রানীর ভণ্ডামিতে এলাকাবাসী সর্বশান্ত

আশাশুনি

আশাশুনি সদর উপজেলার সদর ইউনিয়নের সবদালপুর গ্রামের মৃতঃ নারদ সরকারের বিধবা স্ত্রী কদম রানীর (৪৫)ভণ্ডামিতে এলাকাবাসী ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছে।সরজমিনে গিয়ে দেখা গেছে এই কদম রানীর স্বামী মারা যাওয়ার পর থেকে এলাকাবাসীর কাছে নিজেকে ভোলে বাবার চ্যালা বলে দাবী করে।

স্বামীর কোন বিষয় সম্পত্তি না থাকায় এই ব্যবসাকে পুঁজি করে সহজ সরল এলাকাবাসীর কাছ থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে।সহজ সরল এলাকাবাসী তার কাছে গেলে বিভিন্ন রকম ভয়ভীতি দেখিয়ে যেমন কোন মহিলা যদি তার কাছে যায় প্রথমে তাকে ৫০টাকা দিয়ে ভণ্ড কদমের পাশে বসতে হবে।

পরে ঘটি চালক দেওয়ার নাম করে ভয় দেখিয়ে বলবে তোর স্বামীর বিপদ বা তোর সন্তানের ক্ষতি হবে যদি আমার কাছ থেকে এই বিপদ কেটে না নিস তাহলে তোর ভয়ানক ক্ষতি হবে।গ্রামের সহজ সরল লোক ক্ষতি এড়াতে বলে বাবা যে ভাবে হোক আমার এ বিপদ থেকে রক্ষা কর।

ঠিক তখনই এই বন্ড কদম প্যাকে ফেলে কিছু ফুল পাতা হাতে ধরিয়ে দিয়ে টাকা আদায় করে।যদি একটু ধনি ঘরের বউ হয় তাহলে তো আরা কথাই নেই।মোটা অংকের টাকা দাবী করে বসবে। প্রতি সপ্তাহের সোমবার সকাল থেকে শুরু করে কয়েকশত লোকের কাছ থেকে হাজার হাজার টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কদম রানীর পার্শ্ববর্তী লোকের কাছে জানতে চাইলে তারা বলেন ঐ ভণ্ড কদম রানীর কাছে গ্রামের কোন লোক যায়না।

এমনকি গ্রামবাসী তার এই ব্যবহারের জন্য তার উপর ক্ষিপ্ত হয়ে আছে। উক্ত বিষয়টি প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি এবং এলাকাবাসী যাহাতে এই ভণ্ডর হাত থেকে রক্ষা পায় সেদিকে সদয় দৃষ্টি রাখার জন্য আহবান জানাচ্ছি।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *