প্রথম আলো বন্ধু-সভার কম্বল পেল সাতক্ষীরার সুন্দরবন ঘেঁষা গ্রামের শীতার্ত মানুষ

নিজস্ব প্রতিনিধি :
কনকনে ঠেন্ডার সাতে বাতাশে কষ্ট পাতিলাম। শীতির প্রথমে একখানা কম্বল নয়েছে তা ফুটো হয়ে গে। মাটির ঘরের বেড়ার ফাঁক দে সন্ধ্যার পর থেকে যেন বরফ পড়ে। নাত যেন শেষ হয় না। বাঁচি আছি যে কেমন করে তা বলতি পাত্তিনে। প্রথম আলো ট্রাস্টের কম্বল হাতে পেয়ে ফুলমতি মুন্ডা আনন্দে এমনই কথা বলেন।

ফুলমতি মুন্ডার বাড়ি সাতক্ষীরা জেলার শ্যামনগর উপজেলার সুন্দরবন ঘেঁষা দাঁতিনাখালি গ্রামে। বয়স আশি ছুঁইছুই। দুই ছেলে এক মেয়ে কাজের সন্ধানে গেছে অন্যত্র। ভারতে। একটি কাঁচা ঘরে একাই থাকেন।

সাতক্ষীরা প্রথম আলো বন্ধুসভার বন্ধুরা সাতক্ষীরা শহর থেকে ৮৫ কিলোমিটার দুরে যেয়ে বুধ ও বৃহস্পতিবার সিংহড়তলী,চুনকুড়ি,হরিনগর, জেলেপাড়া, মথুরাপুর, ঋষিপাড়া, দাঁতিনাখালি, বুড়িগোয়ালিনী বিভিন্ন গ্রাম ঘুরে ঘুরে বাঘ বিধবা, মুন্ডা, হরিজনসহ বিভিন্ন স¤প্রদায়ের ২০০জন গরীব অসহায় শীতার্থ মানুষের তালিকা তৈরি করে। তালিকা অনুযায়ী সিংহড়তলী গ্রামের প্রথম আলোর তৈরি ‘প্রথম আলো দুর্যোগ আশ্রয় কেন্দ্রের চত্বরে ১৪০জনের হাতে কম্বল তুলে দেয়।

পরে মুন্সিগঞ্জের টাইগার পয়েন্টে দাঁতিনাখালি, বুড়িগোয়ালিনী, নীলডুমুর, দুর্গাবাটি, পুুড়াকাটলা ও মাদিয়া গ্রাম ঘুরে আরও ৬০জন শীতার্ত মানুষকে কম্বল দেওয়া হয়।

মুন্সিগঞ্জ জেলেপাড়ার সুন্দরী বালার চোখমুখ পেটে চৌচির হয়ে গেছে। পানির অভাবে বিলর মাটি ফেটে যেমন চৌচির হয় অনেকটা তেমনই। দেখে মনে হয় বয়স হয়েছে আশির উপর। প্রায় ত্রিশ বছর আগে স্বামী সুন্দরবনে মধু সংগ্রহ করতে যেয়ে বাঘের আক্রমণে প্রাণ হারিয়েছেন। স্বামীর মৃত্যুর পর নদীতে মাছ ধরে তিন মেয়ে নিয়ে সংসার চালিয়েছেন। এখন নানা রোগে অসুস্থ হয়ে আর কাজ করতে পারে ন। সুন্দরী বালার কাছে জিজ্ঞাসা করলে তিনি জানান, বয়স আর কত হবে ‘তিন কুড়ি।

’ কম্বল হাতে পেয়ে যেন তার আনন্দ ধরে না। কয়েকবার ছালাম দিলেন প্রথম আলো বন্ধুসভার সদস্যদের। ধন্যবাদ জানাতে ভুললেন প্রথম আলোকে। আরও বললেন, কম্বল পেয়ে শীত থেকে বাঁচতে পারবেন। আশি বছরের বৃদ্ধা প্রভাষ মুন্ডা কম্বল পেয়ে বলেন, ‘কম্পল পেয়ে খুব উপকার হয়েছে। সারা রাত শীতে কষ্টে থাকতে হয়। একখানা ছিঁড়া কাঁথায় শীত নিবারণ হয় না। কম্বল পেয়ে ভালো হয়েছে।

১৮৩ নম্বর সিংহতলী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি গাজী জিয়াউর রহমান, প্রধান শিক্ষক আব্দুল রব, সহকারী শিক্ষক কল্পনা রানী মন্ডল, প্রথম আলো বন্ধুসভার সাতক্ষীরার সভাপতি কর্ণ বিশ্বাস কেডি সাধারণ সম্পাদক ইমরুল হাসান, সাংগঠনিক সম্পাদক সোহানুর রহমান, পাঠচক্র বিষয়ক সম্পাদক মৌটুসী চ্যাটার্জী, ম্যাগাজিন বিষয়ক সম্পাদক মাসকুরা আক্তার, বইমেলা সম্পাদক সাগরিকা আক্তার, প্রথম আলো বন্ধুসভার জাহিদা জাহান ছাড়াও ব্যবসায়ী আনারুল ইসলাম, হাসেম আলী ও প্রথম আলোর নিজস্ব প্রতিবেদক কল্যাণ ব্যানার্জি।

Please follow and like us:
Tweet 20

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial
error

Enjoy this blog? Please spread the word :)