আফগানিস্তানে বিধ্বংসী ভূমিকম্প, আন্তর্জাতিক সাহায্য চায় তালেবান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

আফগানিস্তানে ভয়াবহ ভূমিকম্পে এখন পর্যন্ত ১ হাজারেরও বেশি মানুষ নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন প্রায় দেড় হাজার মানুষ। আর ধ্বংসস্তূপে চাপা পড়ে আছে আরো অসংখ্য মানুষ। এ উদ্ভুত পরিস্থিতি মোকাবিলায় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছে সাহায্য চেয়েছে তালেবান সরকার।- খবর বিবিসির

আফগানিস্তান একটি মানবিক ও অর্থনৈতিক সংকটের মধ্যে রয়েছে জানিয়ে তালেবানের সিনিয়র কর্মকর্তা আব্দুল কাহার বলখি বলেছেন, সরকার আর্থিকভাবে জনগণকে প্রয়োজনীয় পরিমাণে সহায়তা করতে অক্ষম।

তিনি আরো বলেন, এইড এজেন্সি, প্রতিবেশী দেশ ও বিশ্ব শক্তিগুলো সাহায্য করছে। কিন্তু সহায়তার পরিমাণ আরো বাড়ানো দরকার। কারণ এমন বিধ্বংসী ভূমিকম্প কয়েক দশক ধরে দেখা যায়নি।

ভূমিকম্পে দেশটির দক্ষিণ-পূর্বের পাকতিকা প্রদেশ সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। জাতিসংঘ জরুরি আশ্রয় ও খাদ্য সহায়তা প্রদানের উদ্যোগ নিয়েছে।

জাতিসংঘের প্রধান আন্তোনিও গুতেরেস বলেছেন, সংস্থাটি দুর্যোগ মোকাবেলায় পুরোপুরি সক্রিয় রয়েছে।

জাতিসংঘের কর্মকর্তারা বলেছেন, স্বাস্থ্য সহায়তা দল, চিকিৎসা সরঞ্জাম, খাদ্য ও জরুরি আশ্রয়কেন্দ্র সুবিধা নিয়ে ভূমিকম্প অঞ্চলের পথে প্রতিনিধিরা রওনা হয়েছে।

ভারী বর্ষণ ও প্রয়োজনীয় সরঞ্জামের অভাবে উদ্ধার তৎপরতা ব্যহত হচ্ছে।

জীবিত ও উদ্ধারকারীরা বিবিসিকে ভূমিকম্পের কেন্দ্রস্থলের কাছে সম্পূর্ণ ধ্বংসপ্রাপ্ত গ্রাম, বিধ্বস্ত রাস্তা এবং মোবাইল ফোন টাওয়ারের কথা জানিয়েছেন মৃতের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে তাদের আশঙ্কা।

বিবিসি’র প্রতিবেদনে বলা হয়, দুই দশকের মধ্যে দেশটিতে আঘাত হানা সবচেয়ে মারাত্মক ভূমিকম্প মোকাবিলা তালেবানদের জন্যবড় চ্যালেঞ্জ। আফগানিস্তানে পশ্চিমা-সমর্থিত সরকারের পতনের পর গতবছর ক্ষমতা গ্রহণ করে তালেবান।

ভূমিকম্পটি খোস্ত শহর থেকে প্রায় ৪৪ কিলোমিটার দূরে আঘাত হানে। শক্তিশালী এ কম্পনটি পাকিস্তান ও ভারত পর্যন্ত অনুভূত হয়েছিল।

Please follow and like us:
Tweet 20

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial
error

Enjoy this blog? Please spread the word :)