হত্যা চেষ্টা মামলার আসামীরা জামিন নিয়ে খুন জখমসহ বিভিন্ন ক্ষতির ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

নিজস্ব প্রতিনিধি :

সাতক্ষীরা সদরের ধুলিহরের যুগিপোতায় পূর্ব শত্রæতার জেরে কুপিয়ে ও পিটিয়ে হত্যা চেষ্টা মামলার আসামীরা জামিন নিয়ে প্রকাশ্যে অস্ত্র নিয়ে মহড়া, খুন জখমসহ মৎস্যঘেরে বিষ প্রয়োগ করে ক্ষতির ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের আব্দুল মোতালেব মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন, যুগিপোতা গ্রামের তফেল উদ্দীন সরদারের পুত্র নুর ইসলাম সরদার।

লিখিত অভিযোগে তিনি বলেন, আমরা অত্র এলাকায় শান্তিপূর্ণভাবে বসবাস করে আসছি। জমি জমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে মৃত আলাউদ্দীনের পুত্র হাফিজুল সরদার, ইব্রাহিম সরদার, আক্কেল আলীর পুত্র শওকত সরদার, সামাদ সরদারেরপুত্র সাদেক আলী সরদার,গফফারের পুত্র জসিম,শওকত সরদারের পুত্র আরিফুল ইসলাম বাবু, গোবিন্দপুর গ্রামের মৃত রুস্তম আলীর পুত্র রবিউল ইসলাম, মতি গাইনের পুত্র জাকির গাইন, মকবুল গাইন, বিল্লাল গাইন, আলী হোসেন গাইন, আ: খালেকের পুত্র নাইম, মৃত. হারান সরদারের পুত্র সাইদুল ইসলামসহ কতিপয় সন্ত্রাসীরা ধারালো অস্ত্রে সস্ত্রে সজ্জিত হয়ে গত ৯/০৫/২২ তারিখে আমার বাড়িতে প্রবেশ করে আমার স্ত্রী ছামেদা খাতুন, আমার পুত্র ইউনুচ, ইমরান, আমার চাচাতো ভাই ইবাদুল সরদার,ইউসুফ সরদার, ভাইবৌ সুলতকানা বেগম, রাফিজা বেগম, ছকিনা খাতুন,

পুত্রবধু ফরিদা খাতুনকে কুপিয়ে মারাত্মক জখম করে। তাদের হামলায় আমার পরিবারের সদস্যরা এত গুরুতর আহত হয় যে, সাতক্ষীরা সদর হাসপাতাল কর্তৃক পক্ষ আমার স্ত্রী ছামেদা খাতুন, পুত্র ইউনুচ ও ইবাদুল কে খুলনা ২৫০ শয্যা হাসপাতালে প্রেরণ করেন। তারা এখনো সুস্থ হতে পারেনি। এঘটনায় আমি বাদী হয়ে সাতক্ষীরা সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করি। মামলায় ৪ জন আসামী আটক হয়।

পরে আদালত থেকে জামিন নিয়ে এলাকায় ফিরে আবারে ত্রাসের রাজত্ব সৃষ্টি করে যাচ্ছে। প্রকাশ্যে অস্ত্রে নিয়ে মহড়া দিচ্ছে। আমার ও আমার পরিবারের সদস্যদের খুন জখম করবে, আমাদের মৎস্যঘের বিষ প্রয়োগ করে ক্ষতিসাধন করার ষড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছে। আমাদের পরিবারের সদস্যরা জীবনের চরম নিরাপত্তাহীতনায় ভুগছে। মামলা তুলে না নিলে পুরো পরিবারসহ কুপিয়ে হত্যাসহ মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে হয়রানির হুমকি প্রদর্শন করে যাচ্ছে।

এমনকি অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ করাসহ নানা চক্রান্ত চালিয়ে যাচ্ছে। তিনি জীবনের নিরাপত্তা পেতে এবং আমাদের কুপিয়ে জখমের মামলার আসামীদের গ্রেফতার পূর্বক যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের দাবিতে সাতক্ষীরা পুলিশ সুপারের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

Please follow and like us:
Tweet 20

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial
error

Enjoy this blog? Please spread the word :)