বিশ্বের ইতিহাসে যত আলোচিত বিয়ে

সাতরঙ ডেস্ক:

বিয়ে মানেই নারী পুরুষের চারহাত এক হওয়ার আনুষ্ঠানিকতা। বিয়ে মানুষের জীবনে শুধু একটি ঘটনাই নয়, এর সঙ্গে মিশে আছে স্বপ্ন, আস্থা, নতুন জীবনে সুখের আকাঙ্ক্ষা। তবে বিয়ে করে অনেকেই হয়েছেন আলোচিত সমালোচিত। বিভিন্ন কারণে এসব ব্যক্তিদের বিয়ে বিশ্বের ইতিহাসে জায়গা করে নিয়েছে। এর মধ্যে আছে ব্রিটিশ রাজপুত্র থেকে অভিনয় জগতের মানুষ জন।

চলুন তেমনই কিছু আলোচিত বিয়ের কথা জেনে নেই-

জ্যাকলিন বুভুয়ে আর জন এফ কেনেডি

১৯৫৩ সালের জ্যাকলিন বুভুয়ে আর জন এফ কেনেডি বিয়ে হয়

১৯৫৩ সালের জ্যাকলিন বুভুয়ে আর জন এফ কেনেডি বিয়ে হয়

সময়টা ১৯৫৩ সাল। জ্যাকি এবং জেএফকে নিজের মধ্যে মালা বদলের কাজ সেরেছেন যুক্তরাষ্ট্রের রোড আইল্যান্ডের নিউপোর্টে। তাতে হাজির ছিলেন ৮০০ অতিথি। আর বিবাহোত্তর অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন এই দম্পতির পারিবারিক সদস্য এবং ঘনিষ্ঠ বন্ধুবান্ধবরা। সেই অনুষ্ঠানে ডিজাইনার আন লোয়ের ডিজাইন করা গাউন পরে স্বামী সঙ্গে নেচেছিলেন মিসেস কেনেডি। বিখ্যাতদের বিয়ের কথা বললে প্রথম দিকেই থাকবে জ্যাকলিন বুভুয়ে আর জন এফ কেনেডির এই বিয়েটা। প্রথমবারের মতো বিশ্বের সবার আলোচনায় আসে কারোর বিয়ের অনুষ্ঠান। জাঁকজমক এই বিয়ে এখনো মনে রেখেছে সবাই।

এলিজাবেথ টেলর এবং রিচার্ড বার্টন 

এলিজাবেথ টেলর এবং রিচার্ড বার্টন

এলিজাবেথ টেলর এবং রিচার্ড বার্টন

এলিজাবেথ টেলর জীবনে বিয়ে করেছিলেন আটটি। তার মধ্যে দুইবার আবার রিচার্ড বার্টনকেই। এই দম্পতি ১৯৬১ সালে ‘ক্লিওপেট্রা’ ছবির শুটিংয়ের সময় প্রেমে পড়েন। তবে বিয়েটা সারেন ১৯৬৪ সালে। পঞ্চম স্বামী রিচার্ডের সঙ্গে এলিজাবেথের প্রথম দাম্পত্য জীবনের দৈর্ঘ্য ছিল ১১ বছরের। আর দ্বিতীয় দাম্পত্য জীবন ছিল এক বছরের মতো। ১৯৭৫ সালে বিয়ে করে ১৯৭৬ সালেই বিয়েবিচ্ছেদ।

অড্রে হেপবার্ন এবং মেল ফেরার

অড্রে হেপবার্ন এবং মেল ফেরার

অড্রে হেপবার্ন এবং মেল ফেরার

ব্রিটিশ অভিনেত্রী হেপবার্ন এক সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন, বিয়ে করলে ‘সত্যিকারের বিবাহিত’ই হতে চান। তার প্রথম স্বামী আমেরিকান অভিনেতা মেল ফেরারের সঙ্গে দেখা হয় আরেক বিখ্যাত অভিনেতা গ্রেগরি পেকের দেয়া এক পার্টিতে। আট মাসের সম্পর্কের পর ১৯৫৪ সালের ২৫ সেপ্টেম্বর তারা গাঁট ছড়া বাঁধেন। আর বিয়ের অনুষ্ঠান হয় সুইজারল্যান্ডে। এই দম্পতির বিয়েটা টিকেছিল মাত্র ১৪ বছর।

লেডি ডায়ানা স্পেন্সার এবং প্রিন্স চার্লস

লেডি ডায়ানা স্পেন্সার এবং প্রিন্স চার্লস

লেডি ডায়ানা স্পেন্সার এবং প্রিন্স চার্লস

এই দুজনকে গাঁটছড়া বাঁধতে দেখতে দর্শক বনে গিয়েছিলেন ৭৫ কোটি মানুষ। শতাব্দীর বিখ্যাত বিয়ের অনুষ্ঠান কে বা মিস করতে চায় বলুন। পুরো অনুষ্ঠান থেকে একটি বিখ্যাত মুহূর্ত বেছে নেয়া ছিল সত্যিই কঠিন এক ব্যাপার। যেমন ছিল পোশাক, টায়রা, ‘পরস্পরের প্রতি বাধ্য থাকার প্রতিশ্রুতি দেয়ার’ মুহূর্তটুকু, তবে সেই আংটিটির কথা কখনো ভোলা যাবে না। এটি ছিল ১৮ ক্যারেট নীলা। যা কি না ৩০ বছর পর আবার স্থান করে নিয়েছে ডায়ানার বড় পুত্রবধূ কেট মিডলটনের আঙুলে।

ভিক্টোরিয়া অ্যাডামস ও ডেভিড বেকহাম

ভিক্টোরিয়া অ্যাডামস ও ডেভিড বেকহাম 

ভিক্টোরিয়া অ্যাডামস ও ডেভিড বেকহাম

বিয়েতে ১৭ হাজার ডলারের টায়রা, এক লাখ ডলারের ভেরা ওয়াং গাউন, দুজনের মিল করে পরা বেগুনি পোশাকগুলোর কথা না বললেই নয়। এসব নিয়ে সে সময় কম কথা হয়নি। তার পরও দেখুন না, নিন্দুকের মুখে ছাই দিয়ে দিব্যি ঘর করে চলেছেন এই দম্পতি।

কেটি হোমস ও টম ক্রুজ

কেটি হোমস ও টম ক্রুজ 

কেটি হোমস ও টম ক্রুজ

তারা ডেটিং শুরু করেন ২০০৫ সালের এপ্রিলে। ২০০৬ সালের এপ্রিলে কন্যাসন্তানের মা-বাবা হয়ে যান ‘টমকেট’। এর আট মাস পর বিয়ের শুভ কাজটাও সেরে ফেলেন এই তারকা জুটি। ইতালির পঞ্চদশ শতাব্দীর এক প্রাসাদদুর্গে অনুষ্ঠিত হয় বিয়ের অনুষ্ঠান। সেই অনুষ্ঠান শেষ করে মধুচন্দ্রিমা করতে সোজা চলে যান মালদ্বীপে।

কেট মিডলটন ও প্রিন্স উইলিয়াম 

কেট মিডলটন ও প্রিন্স উইলিয়াম 

কেট মিডলটন ও প্রিন্স উইলিয়াম

কেট মিডলটন ও প্রিন্স উইলিয়াম এর সম্পর্কের শুরু ২০০৩ সালে। তবে তাদের সাক্ষাৎ হয়েছিল এর দুই বছর আগে। তাদের বাগদান ২০১০ সালের ২০ অক্টোবর হলেও প্রকাশ করা হয় ১৬ নভেম্বর। রাজপুত্র উইলিয়ামের ম-বাবার সেই বিখ্যাত বিয়ের মতোই কেট মিডলটন ও প্রিন্স উইলিয়ামের বিয়েটাও গণমাধ্যমের ব্যাপক আগ্রহের বিষয় হয়ে দাঁড়ায়। ২০১১ সালের ২৯ এপ্রিল সারা বিশ্ব থেকে কোটি কোটি দর্শক টিভি, ইউটিউবের মাধ্যমে এই বিয়ে দেখে।

কিম কার্দাশিয়ান ও কেনি ওয়েস্ট 

কিম কার্দাশিয়ান ও কেনি ওয়েস্ট 

কিম কার্দাশিয়ান ও কেনি ওয়েস্ট

এ দুই তারকা ডেটিং শুরু করেন ২০০২ সালে; যদিও সে সময় কার্দাশিয়ান বিবাহিতই ছিলেন। ২০১৩ সালের ৩ জুন বিবাহবিচ্ছেদ সম্পন্ন হয় কার্দাশিয়ানের। ওই বছরের ২১ অক্টোবর বাগদান হয়ে যায় কিম আর কেনির। দিনটা ছিল কেনির ৩৩তম জন্মদিন। আর ইতালির ফেরেন্স শহরে তাদের বিয়ে হয় ২০১৪ সালের ২৪ মে। এই দম্পতির বিয়ের ছবিটি হচ্ছে ইনস্টাগ্রামে এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি (২৪ লাখ) পছন্দ করা ছবি।

আমাল আলামুদ্দিন ও জর্জ ক্লুনি 

আমাল আলামুদ্দিন ও জর্জ ক্লুনি 

আমাল আলামুদ্দিন ও জর্জ ক্লুনি

হলিউড তারকা ক্লুনি তার স্বপ্নের পাত্রীকে বিয়ে করেন ২০১৪ সালে। সেই বিশেষ দিনটিতে (২৭ সেপ্টেম্বর) মানবাধিকার আইনজীবী আমাল পরেছিলেন বিশেষভাবে তৈরি করা অস্কার দে লা রেন্টা গাউন। তাদের বিয়েটা পড়িয়েছিলেন ক্লুনির বন্ধু রোমের মেয়র ওয়াল্টার ভেলতোরনি। আর বিয়েটা হয়েছিল ইতালির বিখ্যাত ভেনিস শহরের এক প্রাসাদে।

প্রিন্স হ্যারি ও মেগান মার্কেল 

প্রিন্স হ্যারি ও মেগান মার্কেল

মা-বাবা কিংবা বড় ভাইয়ের বিয়ের কাছে হয়তো তার বিয়েটা সেভাবে কল্কে পাবে না। তাই বলে ব্রিটিশ রাজপুত্র বলে কথা, গণমাধ্যম আর মানুষজনের আগ্রহের কোনো কমতি ছিল না প্রিন্স হ্যারি আর মেগান মার্কেলের বিয়েতে। বাবা প্রিন্স চার্লসকে অনুসরণ করে বিবাহবিচ্ছেদ হওয়া এক নারীকে বিয়ে করেন হ্যারি। ইংরেজ রাজপরিবারে এমন একজনকে মেনে নেয়া ছিল অকল্পনীয় বিষয়। সেটাকে তুড়ি মেরে আমেরিকান অভিনেত্রী মেগানকে বিয়ে করেন ২০১৮ সালের ১৯ মে। আর বিয়েটা হয় যুক্তরাজ্যের বছরখানেক পুরনো প্রাসাদদুর্গ উইন্ডসরের সেন্ট জর্জেস চ্যাপেলে।

Please follow and like us:
Tweet 20

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial
error

Enjoy this blog? Please spread the word :)