কলারোয়ার ভাদিয়ালি সীমান্তে ৫ লাখ টাকার রূপাসহ চোরাকারবারি আটক

কলারোয়া

কলারোয়ার ভাদিয়ালি সীমান্তে চোরাচালান বিরোধী অভিযান চালিয়ে ভারতীয় রূপাসহ ইমরান হোসেন (৩৪) নামের এক পাচারকারীকে আটক করেছে সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিজিবি’র সদস্যরা।

বৃহস্পতিবার (১৩ই আগস্ট) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার সীমান্তবর্তী সোনাবাড়িয়া বাজার থেকে তাকে ভারতীয় রূপাসহ আটক করা হয়।

এ সময় রূপা পাচার কাজে ব্যবহ্নত একটি ১০০ সিসি প্লাটিনা মোটরসাইকেল জব্দ করে বিজিবি।রূপাসহ আটক পাচারকারী ইমরান হোসেন দক্ষিণ ভাদিয়ালি গ্রামের মৃত বারেস আলীর ছেলে।ভারত থেকে চোরাই পথে আসা রূপা পাচারকারী হিসেবে দীর্ঘদিন ধরে কাজ করতো বলে বিজিবি’র কাছে তথ্য ছিলো।ঝাউডাঙ্গা বিজিবি ক্যাম্পের হাবিলদার শরীফ মাহবুব জানান, ভারত থেকে চোরাই পথে রূপার একটি বড় চালান পাচার করে কলারোয়ার দিকে আসছিল এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সীমান্তবর্তী সোনাবাড়িয়া বাজারে অভিযান চালানো হয়।

অভিযানে ইমরান হোসেন নামের এক রূপা পাচারকারীকে ৮কেজি ২০০ গ্রাম রূপা ও ব্যবহ্নত একটি ১০০ সিসি প্লাটিনা মোটর সাইকেলসহ আটক করা হয়েছে।

উদ্ধার হওয়া রূপার আনুমানিক বাজার মূল্য ৫ লক্ষ ২৪ হাজার ৮০০ টাকা আর জব্দকৃত মোটরসাইকেলের আনুমানিক মূল্য ১লাখ টাকা।

সর্বমোট ৬ লাখ ২৪ হাজার ৮০০ টাকার জব্দকৃত রূপা ও মোটর সাইকেলসহ পাচারকারী ইমরান হোসেনকে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার পর কলারোয়া থানায় সোপর্দ করে বিজিবি।

এ ঘটনায় ঝাউডাঙ্গা বিজিবি ক্যাম্পের হাবিলদার শরীফ মাহবুব বাদী হয়ে কলারোয়া থানায় চোরাচালান পণ্য পাচার আইনে একটি মামলা নং (৯) তারিখ ১৪/৮/২০ দায়ের করেন। কলারোয়া থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ মুনীর-উল-গীয়াস বিজিবি’র দায়েরকৃত মামলার বিষয়ে নিশ্চিত করেছেন।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *