৩৮ জেলায় প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগ স্থগিত (তালিকাসহ)

শিক্ষা

আগামী ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২০ইং তারিখে যোগদানের কথা থাকলেও সেটি অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে সদ্য নিয়োগপ্রাপ্ত সহকারী শিক্ষকদের। আদালতে মামলা জনিত জটিলতায় দেশের ৩৮টি জেলায় সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক হিসেবে যোগদান কার্যক্রম অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে।

বৃহস্পতিবার প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের পরিচালক (পলিসি ও অপারেশন) খান মো. নুরুল আমিন স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে নিয়োগ স্থগিতের নির্দেশনা জারি করা হয়।

নির্দেশনায় বলা হয়েছে, রাজস্বখাত ভুক্ত সহকারী শিক্ষক নিয়োগ-২০১৮ এর ফলাফলে ৬০ শতাংশ মহিলা কোট সংরক্ষণ করা হয়নি উল্লেখ করে হাইকোটেৃ ৩৮ জেলায় রিট পিটিশন করা হয়েছে। এ রিট পিটিশনের আদেশে আদালত আগামী ৬ মাসের জন্য নিয়োগ কার্যক্রমক স্থগিত করেছেন। ফলে আগের ঘোষণা মতে আগামী ১৬ ফেব্রুয়ারী এসব জেলায় যোগদানের বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে পড়েছে। বলা হয়েছে উল্লেখিত জেলায় নিয়োগ পরীক্ষায় চুড়ান্তভাবে নির্বাচিত প্রার্থীদের যোগদান, কর্মশালা ও পদায়ন মামলা জনিত কারণে অনিবার্য কারণ বশত স্থগিত করা হলো। বিষয়টি সুরাহা হলে পরবর্তীতে তাদের যোগদান ও পদায়নের বিষয়টি জানিয়ে দেয়া হবে। নির্দেশনাটি মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের বাস্তবায়ন করতে নির্দেশনাও দেয়া হয়েছে।

এরই মধ্যে চুড়ান্তভাবে নির্বাচিতদের ২০ থেকে ২৫ জানুয়ারীর মধ্যে ডাকযোগে নিয়োগপত্র পাঠানো হয়েছে। আগামী ১৬ ফেব্রæয়ারী যোগদান ও ১৭ থেকে ১৯ ফেব্রয়ারী তাদের কর্মশালামূলক প্রশিক্ষন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল।

মৌখিক পরীক্ষাও শেষ হলে চূড়ান্ত নিয়োগের জন্য ১৮ হাজার ১৪৭ জন শিক্ষক চূড়ান্ত করা হয়। কিন্তু নতুন শিক্ষক নিয়োগে নারী কোটার বাস্তবায়ন নিয়ে বিতর্ক তৈরি হওয়ায় ইতোমধ্যে ৩৮ জেলায় শিক্ষক নিয়োগ স্থগিত করেছেন আদালত।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *