সিরিয়ায় বিদ্রোহী অধ্যুষিত অঞ্চলে বিমান হামলার পর একটি পরিবারে ‘একমাত্র জীবিত’ শিশু

আন্তর্জাতিক

সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলের বিদ্রোহী অধ্যূষিত এলাকার একটি শহরে আসাদ সমর্থিত বাহিনীর বিমান হামলার পর একটি পরিবারের ‘একমাত্র’ জীবিত সদস্য ছিল দুই বছর বয়সী একটি শিশু।

শিশুটির পরিবারের বাকি সব সদস্য বিমান হামলায় নিহত হয়েছে।

আট বছরের সিরিয়া যুদ্ধের পর ইদলিব এবং হামা এলাকার কয়েকটি অঞ্চলই জিহাদি ও বিদ্রোহীদের শেষ ঘাঁটি হিসেবে রয়ে গেছে।

সেসব এলাকায় সিরিয় ও রুশ সেনাবাহিনী বিমান হামলা জোরদার করেছে।

ঐ এলাকার একটি গ্রামে চালানো সবশেষ বিমান হামলায় ৩০ জন বেসামরিক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন এবং আরো ৪০ জন আহত হয়েছেন বলে খবরে বলা হচ্ছে।

বেঁচে যাওয়াদের মধ্যে একজন দুই বছর বয়সী খাদিজা-আল-হামদান।

খাদিজার পরিবার তাদের গ্রাম থেকে পালিয়ে এসে ঐ এলাকায় বাস করছিল।

তারা একটি মুরগির খামারের দেখাশোনা করতো এবং ঐ খামারের ভেতরেই থাকতো।

খাদিজার দাদা নিশ্চিত করেন যে বিমান হামলায় খাদিজা বাদে তার ছেলের পরিবারের বাকি সবাই মারা গেছে।

“আমার ছেলে, তার স্ত্রী এবং আরো দুই সন্তানের সবাই মারা গেছে। তাদের দেহ আমরা হাসপাতাল থেকে নিয়ে এসেছি। খাদিজাই একমাত্র জীবিত সদস্য”, বলেন খাদিজার দাদা।

সিরিয়া ভিত্তিক জিহাদি গ্রুপ হায়াত তাহরির আল-শামস ‘লোহা এবং আগুন’এর মাধ্যমে এই বিমান হামলার জবাব দেবে বলে হুমকি দিয়েছে।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *