শনিবার, ২৬ মে ২০১৮, ০৯:৩৮ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
নাশকতা মামলার আসামীদের কমিটির সদস্য করতে মরিয়া অধ্যক্ষ বড়দল ব্রিজ উদ্বোধনের আগেই এ্যাপ্রোজ সড়ক বসে গেছে কাদাকাটি হলদেপোতা মোড়ে সরকারি জমিতে ঘর নির্মাণ চলছে চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন উপাধ্যক্ষ আব্দুল হামিদ সাতক্ষীরা জেলা রেজিস্টারের দুনীতি পর্ব -১ প্রাণ মিল্ক জাতীয় স্কুল ফুটবল চ্যাম্পিয়নশীপে অংশ নিতে ঢাকা যাচ্ছে সাতক্ষীরার ২০ সদস্যের দল কালিগঞ্জে এক মাদক সেবির ভ্রাম্যমাণ আদালতে কারাদন্ড রথযাত্রা উপলক্ষ্যে কলারোয়ায় প্রস্তুতি সভা কলারোয়ায় মাদকসহ ৩ যুবক আটক কলারোয়ার লাঙ্গলঝাড়ায় কোটি টাকার উন্মুক্ত বাজেট ঘোষণা কলারোয়ার কাজীরহাট কলেজের একাডেমিক ভবনের ভিত্তি প্রস্তর উদ্বোধন মধ্যপাড়া পাথর খনিতে ভালো কাজের স্বীকৃতি স্বরুপ অর্ধশত শ্রমিককে পুরুস্কৃত ইউএনওকে প্রত্যাহারের দাবিতে তালা উপজেলা পরিষদের সকল কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা সাতক্ষীরায় ৯ মাদক ব্যবসায়ীসহ আটক-৪৬ শামনগরে এক গৃহবধূকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে দূর্বৃত্তরা ছাত্রকে কাছে পেতে শিক্ষিকার তুলকালাম কাণ্ড বাসের অগ্রিম টিকিট ৩০ মে থেকে মাকে স্টেশনে ফেলে দিয়ে গেল ছেলে, কাঁদছেন বৃদ্ধা মা! ব্র্যাক এ নিয়োগ স্মরণশক্তি কমে যাওয়া একটি রোগ
বাঁশদহায় বিরল রোগে আক্রন্ত মোক্তামনির অবস্থা ভাল নেই

বাঁশদহায় বিরল রোগে আক্রন্ত মোক্তামনির অবস্থা ভাল নেই

বাঁশদহা প্রতিনিধি:
বিরল এক রোগে আকান্ত সাতক্ষীরা সদরের বাঁশদহার কামারবায়সা গ্রামের ইব্রাহিমের মেয়ে মোক্তামনি। তার বাবা-মা মেয়ের চিকিৎসার জন্য স্থানীয় এবং ঢাকার অনেক চিকিৎসকের কাছে গেছেন। কিন্তু কিছুতেই যেন কিছু হচ্ছে না। দিন-দিন খারাপের দিকে যাচ্ছে ১২ বছরের আলোচিত কিশোরী মুক্তামনির হাত। ব্যথার যন্ত্রণায় প্রতিনিয়ত কান্নায় ছটফট করছে সে। আগের চেয়ে এখন তার হাতটি আরোও ফুলে গেছে। প্রতিনিয়ত ড্রেসিং করতে হয় তার হাত। কয়েক দিন আগে ড্রেসিং এর সময় আঙ্গুল দিয়ে বেরিয়ে আসে৩৭/৩৮ টি বড় পোকা। এতে তার পরিবার আতঙ্কিত হয়ে পড়ে। অপারেশন করে হাত থেকে যা কিছু অপসারণ করা হয়েছিল তা পুরণ হয়ে গেছে। এখন আরও গন্ধ বেড়েছে, প্রতিনিয়ত রক্ত পড়ছে। পোকা বের হওয়ার পর হতে এলাকার লোকজন তার কাছে ভয়ে যেতে যাচ্ছেনা। মুক্তার পিতা ইব্রাহিম হোসেন বলেন মুক্তার হাত আর ভালো হবে না। সংবাদ মাধ্যম বিষয়টা প্রচার করার পরে ডাক্তাররা অনেক গুরুত্ব দিয়ে মুক্তাকে চিকিৎসা করেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মুক্তার ব্যাপারে খোঁজ নিয়েছে। আমার আশা ছিল মুক্তা ভাল হলে নিয়ে যেতাম প্রধানমন্ত্রীকে দেখাতে। কিস্তু সে তো আর ভাল হবে না,তার দেখেই বোঝা যাচ্ছে। মুক্তা মনির চিকিৎসার দায়িত্বে থাকা ডাক্তার জানান, মুক্তামনির হাতটি ভালভাবে ড্রেসিং করা হয়েছে এ সমস্যা দূর হতে অনেক সময় লাগবে। মুক্তা মনির পরিবারের ও পিতা-মাতা মুক্তা মনির জন্য সকলের কাছে দোয়া চেয়েছেন।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 Dainiksatkhira.Com
Developed BY Dainik Satkhira