৯ বছরের মানবেতর জীবনের অবসান হচ্ছে দেবশ্রীর

1
671

নিজস্ব প্রতিবেদক :
অনাদর, অবহেলা আর অর্থাভাবে যে দেবশ্রী দীর্ঘ ৯টি বছর মানবেতর জীবন কাঁটিয়েছে অবশেষে বুধবার সেই দেবশ্রীর সফল অস্ত্রপাচার হয়েছে। দেবশ্রীর মুখের ভিতর থেকে জিব্বা বের হয়ে ঝুলেছিলো। আর এভাবেই দেবশ্রী লেখাপড়া করতো সাতক্ষীরার তালা উপজেলার মাগুরা ইউনিয়নের পারমাদরা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় শ্রেণিতে। অস্বাভাবিক হয়েও খেলাধূলা চলাফেরা করতো স্বাভাবিক বাচ্ছাদের সাথে। দেবশ্রীর পরিবারেও ছিল হতাশা। হয়তো কখনো সুস্থ হবে না দেবশ্রী।
দেবশ্রীর মানবিক এ ঘটনাটি দৃষ্টিতে আসার পর ১৫ জানুয়ারি “টাকার অভাবে চিকিৎসা হচ্ছে না দেবশ্রীর” শিরোনামে সংবাদ প্রকাশিত হয়। স্ব-চিত্র সংবাদটি দেখে হৃদয়বান মানুষের মনকে নাড়া দেয়।
সংবাদটি দেখার পর র‌্যাব হেড কোয়ার্টারের সিনিয়র সহকারি সচিব (ম্যাজিষ্ট্রেট) আকবর হোসেন দেবশ্রীর চিকিৎসার জন্য সহায়তা করবেন বলে সাংবাদিক আকরামুল ইসলামকে জানান।
বিভিন্ন হৃদয়বান মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহব্বান জানিয়ে জাগো নিউজের সহকারি বার্তা সম্পাদক মাহবুর আলম সোহাগ ও সাতক্ষীরা প্রতিনিধি আকরামুল ইসলাম শুরু করেন ফেসবুক প্রচারণা।
১৬ জানুয়ারি দেবশ্রীকে নিয়ে সাতক্ষীরা জর্জ কোর্টের সামনে ফারজানা ক্লিনিকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সহকারি অধ্যাপক (সার্জিক্যাল অনকোলজি) ডাক্তার মনোয়ারা হোসেনকে দেখানো হয় দেবশ্রীকে। পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর ডা. মনোয়ারা হোসেন দেবশ্রীকে ঢাকায় নিয়ে চিকিৎসা করার পরামর্শ দেন।
এরই মধ্যে বিভিন্ন হৃদয়বান মানুষের কাছ থেকে পাওয়া সহায়তার অর্থে দেবশ্রীকে নিয়ে যাওয়া হয় ঢাকায়। ২৩ জানুয়ারি ভর্তি করা হয় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে।

debossari
সেদিন থেকেই সি ব্লকের ৬ নম্বার ওয়ার্ডে নাক, কান ও গলা বিভাগের অধ্যাপক ডা. কামরুল হাসন তরফদারের তত্বাবধায়নে শুরু হয় দেবশ্রীর চিকিৎসা সেবা। বুধবার সকাল সাড়ে ৮টা থেকে শুরু হওয়া অপারেশন চলে বেলা ১১.৪৫ মিনিট পর্যন্ত।
অপারেশনের পর ডাক্তার কামরুল হাসান তরফদার জানান, দেবশ্রীকে পুরোপুরি সুস্থ করতে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। দুইটি ধাপে আমরা তাকে পুরোপুরি সুস্থ করতে পারবো আশা করছি। প্রথম ধাপে জিব্বায় সফল অস্ত্রপাচার করা হয়েছে। মুখের ভিতর থেকে জিব্বার যে অংশটি বাইরের ঝুলানো ছিলো সেটি অপসারণ করা হয়েছে। তাছাড়া রক্তনালীর সমস্যাটি চিহ্নিত করে সেটিও ব্লক করা হয়েছে।

debossari
হাসপাতালে দেবশ্রীর সার্বিক তত্বাবধায়ন করেছেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের উপকমিশনার(অর্থ) শ্যামল মুখার্জি, র‌্যাব হেড কোয়ার্টারের সিনিয়র সহকারি সচিব (ম্যাজিষ্ট্রেট) আকবর হোসেন, জাগো নিউজের সহকারি বার্তা সম্পাদক মাহবুর আলম সোহাগ, সাতক্ষীরা প্রতিনিধি আকরামুল ইসলাম।
দেবশ্রীর বাবা সাতক্ষীরার তালা উপজেলার মাগুরা ইউনিয়নের পারমাদরা গ্রামের সমীরণ রায় বলেন, আমি হাল ছেড়ে দিয়েছিলাম। ভেবেছিলাম মেয়েটা আর হয়ত স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে পারবে না। তখনই যেন সবকিছু সহজে আমার হাতে ধরা দিলো। যাদের অক্লান্ত চেষ্টা আর সহযোগিতায় আমার মেয়ে সুস্থ হয়ে উঠছে তাদের প্রতি গভীর কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। আপনাদের কাছে দোয়া চাই দেবশ্রী যেন দ্রুত সুস্থ হয়ে যায়।

1 COMMENT