হুমায়ুন আজাদের অগ্রন্থিত কবিতা ও গদ্য

1294
8769

অনলাইন ডেস্কঃ

হুমায়ুন আজাদ (১৯৪৭-২০০৪) বাংলা ভাষার অন্যতম বহুমাত্রিক কবি-লেখক। তাঁর কবিতা- কথাসাহিত্য- প্রবন্ধ নিবন্ধ- শিশুসাহিত্য ও ভাষা গবেষণা বাংলা সাহিত্যের পরিসরে যোগ করেছে নতুনতর মাত্রা। তবে তাঁর অনেক লেখাই এখন পর্যন্ত অগ্রন্থিত। ১৯৮৮ সালে সামরিক স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনে প্রখ্যাত সাংবাদিক ও সাহিত্যিক প্রয়াত ফয়েজ আহমদ গ্রেফতার হলে তাঁর মুক্তির দাবিতে হুমায়ুন আজাদ রচিত কেন্দ্রীয় কারাগার শীর্ষক কবিতা এবং প্রয়াত সাহিত্যিক নাজমা জেসমিন চৌধুরী (১৯৪০-১৯৮৯) স্মারক প্রকাশনায় (সৈয়দ আবুল মকসুদ ও মুস্তাফা মজিদ সম্পাদিত, ১৯৯১) অন্তর্ভুক্ত নাজমা জেসমিন চৌধুরী শীর্ষক স্মৃতি ও বিশ্লেষণমূলক নিরূপম গদ্যটি এখন পর্যন্ত অগ্রন্থিত। তাঁর এই অগ্রন্থিত কবিতা ও গদ্যে স্বভাবসুলভ শিল্পিতার পাশাপাশি যোগ হয়েছে মানবিক অঙ্গীকার। বহুমাত্রিক হুমায়ুন আজাদের প্রতি আমাদের বিনীত শ্রদ্ধা।

কেন্দ্রীয় কারাগার
(ফয়েজ আহমদকে)
হুমায়ুন আজাদ

বাংলা, জানো কি তুমি—
তোমার সড়ক এখন বধ্যভূমি
তুমি পড়ে আছো দানবের পদতলে
যেদিকে তাকাই মনে হয় বারবার
সারাদেশ আজ কেন্দ্রীয় কারাগার
দিকে দিকে তাই ক্ষোভের আগুন জ্বলে
রক্তের শিখা আকাশ বাতাস চিরে
দানব দলকে ফেলবেই জানি ঘিরে
দশ দিগন্তে তারই প্রস্তুতি চলে।

নাজমা জেসমিন চৌধুরী
হুমায়ুন আজাদ

তাঁর সাথে দেখা হ’লে যে অনুভূতি হতো, তার নাম স্নিগ্ধতা। শহীদ মিনারের উত্তরে তাঁদের মনোরম দীর্ঘ ফ্ল্যাটটিতে যেতাম আমিও;- তিনি যখন এসে বসতেন ড্রয়িংরুমের সোফার কোণে, তখন চারপাশ স্নিগ্ধ হয়ে উঠত। তিনি ড্রয়িংরুমে সব সময় আসতেন না। আসতেন কখনো কখনো; কথা বলতেন খুবই কম, বলতেন নিম্নকণ্ঠে। ওই ড্রয়িংরুমটি হয়ে উঠতে পারত সাহিত্য-শিল্পকলার ড্রয়িংরুম, কারণ তাঁরা দু’জনেই ছিলেন সাহিত্যের, একজন ইংরেজির আরেকজন বাংলার; কিন্তু ওটি হয়ে উঠেছিল সমাজ-রাজনীতির আপন ড্রয়িংরুম। তবে ওই সমাজ-রাজনীতির অবকাঠামোতে ছিল সাহিত্য; ড. সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী সাহিত্য ছেড়ে যেতে যেতে জড়িয়ে থাকতেন সাহিত্যে; আর তিনি, ড. নাজমা জেসমিন চৌধুরী, সাহিত্যে থাকতে থাকতে চ’লে যেতেন সমাজ-রাজনীতিতে। ওই ফ্ল্যাটটিতে বাস করত বাংলাদেশের সবচেয়ে আকর্ষণীয় বুর্জোয়া পরিবারটি, বাংলাদেশে এমন চমৎকার বুর্জোয়া পরিবার আর মিলবে না। বুর্জোয়া পরিবার আকর্ষণীয় হয়ে ওঠে যদি সেটি চিন্তায় হয় মার্ক্সীয়। যে পরিবারের বাস্তব-অবাস্তব দু-ই বুর্জোয়া, সেটিকে মনে হয় ঘিনঘিনে, আর যে পরিবারের বাস্তব-অবাস্তব দু’ই মার্ক্সীয়, সেটিকে মনে হয় ভীতিকর। আকর্ষণীয় হচ্ছে সে- পরিবার, যার বাস্তবটি বুর্জোয়া আর অবাস্তবটি বা স্বপ্নটি মার্ক্সীয়। চৌধুরী পরিবারটি ছিল তাই; আর ওই পরিবারের স্নিগ্ধতা ছিলেন ড. নাজমা জেসমিন চৌধুরী, যিনি আজ নেই। কর্কশ পৃথিবী স্নিগ্ধতা বেশি দিন সহ্য করে না।

তবে তাঁর বাইরের স্নিগ্ধতার ভেতরে লুকিয়ে ছিল অগ্নি। তাঁর আচরণে আগুনের কোনো আভাস মিলত না, তাঁর লেখায়ও ছিল না লেলিহানতা; কিন্তু তাঁর লেখা ভেতর থেকে পোড়াত প্রথাকে, প্রথাগত সমাজকে। তিনি বহুমুখী ছিলেন : নাটক লিখেছেন, গল্প-উপন্যাস লিখেছেন, লিখেছেন প্রবন্ধ এবং গবেষণা করেছেন। তিনি নাটক লিখেছেন এবং কবিতা লেখেননি, এটা বেশ তাৎপর্যপূর্ণ। নাটক লেখা ও কবিতা না লেখা বোঝায় যে প্রথাগত নারী ছিলেন না তিনি বা তিনি নারীপুরুষের কৃত্রিম শ্রেণীকরণকেই অস্বীকার করেছিলেন। নাটকে নারী থাকে, তবে থাকে অভিনেত্রীরূপে- আকর্ষণীয় পুতুলরূপে, নারী সাধারণত নাট্যকার বা নিয়ন্ত্রক হয়ে ওঠে না; আর নারী, আমাদের সমাজে, কিছু লিখলে লেখে কবিতাই। এতেই প্রকাশ পায় ড. নাজমা জেসমিন চৌধুরীর চরিত্র, তিনি নারী ছিলেন কিন্তু প্রথাগত নারী ছিলেন না; আবার ছিলেন না তিনি সম্পূর্ণ প্রথাবিরোধী। প্রথা ও বিদ্রোহের মধ্যে স্নিগ্ধ আপস করলে যার বিকাশ ঘটে, তাই ছিলেন তিনি। তিনি কি নারীবাদী ছিলেন? তিনি নারীবাদী ছিলেন, তবে প্রকাশ্যে বিদ্রোহে লিপ্ত হননি; তিনি তাঁর নারী চরিত্রগুলোকে পুরুষ ক’রে তোলার জন্য ব্যগ্র ছিলেন না, কিন্তু অটল ছিলেন তাঁদের মানুষরূপে প্রতিষ্ঠিত করার জন্য।

তিনি ছিলেন সৃষ্টিশীল ও জ্ঞানমনষ্ক; তবে সৃষ্টিশীলতার এলাকাটি ছিল তাঁর গৌণ এলাকা, জ্ঞানই ছিল তাঁর মুখ্য এলাকা। তাঁর নাটক বা উপন্যাসের নাম ভুলে যাবে বাঙালি, কিন্তু একটি জ্ঞানমনষ্ক বই ড. নাজমা জেসমিন চৌধুরীকে অনেক দিন বাঁচিয়ে রাখবে : বইটি বাংলা উপন্যাস ও রাজনীতি। বাংলাদেশে সমালোচকের অভাব, নারীরা তো সমালোচনাকে ভয়ই পায়। আমাদের নারীরা যখন সমালোচনা জাতীয় কিছু লেখেন, তখন তাতে সমালোচককে ঢেকে ফেলে বড় হয়ে ওঠে নারীটি, কিন্তু ড. নাজমা জেসমিন চৌধুরী এ বইটি লিখেছেন গবেষক- সমালোচকরূপে, নারীরূপে নয়। তিনি এমন একটি বই লিখে গেছেন, যা তাঁকে জীবিতদের সঙ্গী ক’রে রাখবে অন্তত আরও পাঁচ দশক। এটি পিএইচডি অভিসন্দর্ভ ; কিন্তু এটি পেরিয়ে গেছে আমাদের অঞ্চলের সন্দর্ভের মলিন সীমাবদ্ধতা। বাংলাদেশে কয়েক দশক ধ’রে উৎপাদিত হচ্ছে মর্মস্পর্শী পিএইচডি সন্দর্ভমালা, যেগুলো লেখার জন্য মেধা তো লাগেই না, ভালোভাবে লেখাপড়া জানাও লাগে না। ওই গবেষণাপঙ্কস্তূপের মধ্যে ড. নাজমা জেসমিন চৌধুরীর বইটি পদ্মের মতো। বইটিতে প্রভাব পড়ছে ড. সিরাজুল ইসলাম চৌধুরীর : ড. চৌধুরী যে- ধরনের সমাজতাত্ত্বিক সাহিত্য সমালোচনা লিখে যাচ্ছেন কয়েক দশক ধ’রে, কিন্তু নিজে যা কোনো ব্যাপক সম্পূর্ণ গ্রন্থে এখন প্রয়োগ করতে উৎসাহ বোধ করেননি, তা করেছেন ড. নাজমা জেসমিন চৌধুরী। ড. চৌধুরী তত্ত্ব, আর ড. নাজমা জেসমিন চৌধুরী বাস্তবায়ন। ড. চৌধুরী হয়তো কখনো এমন একটি সম্পূর্ণ বই লিখে উঠতে পারবেন না, কিন্তু যিনি লিখতে পেরেছেন তিনি চ’লে গেছেন। দুঃখ তিনি এতো তাড়াতাড়ি চ’লে গেছেন।

মামুন হোসেন মিলন

1294 COMMENTS

  1. Hi there! I know this is kinda off topic but I’d figured I’d ask. Would you be interested in exchanging links or maybe guest writing a blog post or vice-versa? My site goes over a lot of the same topics as yours and I think we could greatly benefit from each other. If you might be interested feel free to shoot me an email. I look forward to hearing from you! Terrific blog by the way!|

  2. Wonderful goods from you, man. I’ve take into account your stuff previous to and you are just too excellent. I actually like what you’ve received here, certainly like what you are saying and the best way through which you say it. You are making it entertaining and you continue to take care of to keep it wise. I cant wait to learn much more from you. That is actually a tremendous web site.|

  3. May I just say what a comfort to uncover someone that really understands what they’re talking about on the internet. You certainly understand how to bring a problem to light and make it important. More and more people really need to look at this and understand this side of your story. It’s surprising you aren’t more popular because you surely possess the gift.|

  4. Hello would you mind stating which blog platform you’re working with? I’m planning to start my own blog in the near future but I’m having a hard time selecting between BlogEngine/Wordpress/B2evolution and Drupal. The reason I ask is because your design and style seems different then most blogs and I’m looking for something completely unique. P.S Sorry for getting off-topic but I had to ask!|

  5. Howdy would you mind stating which blog platform you’re using? I’m planning to start my own blog in the near future but I’m having a difficult time selecting between BlogEngine/Wordpress/B2evolution and Drupal. The reason I ask is because your layout seems different then most blogs and I’m looking for something unique. P.S Sorry for getting off-topic but I had to ask!|

  6. Have you ever thought about including a little bit more than just your articles? I mean, what you say is valuable and all. Nevertheless just imagine if you added some great images or video clips to give your posts more, “pop”! Your content is excellent but with images and videos, this blog could undeniably be one of the most beneficial in its field. Fantastic blog!|

  7. Definitely imagine that which you stated. Your favourite justification seemed to be at the internet the easiest factor to keep in mind of. I say to you, I definitely get annoyed whilst other folks think about issues that they plainly do not understand about. You controlled to hit the nail upon the highest and also defined out the entire thing with no need side effect , other folks can take a signal. Will probably be again to get more. Thanks|

  8. When dishing about superstar pearl jewellery, no article could be complete without mentioning style maven Coco Chanel, the scrappy French
    designer who made pearls her signature look within the Nineteen Twenties.

    Wearing pearl ropes as simply as different women put on jeans, Coco’s
    House of Chanel used pearls in many jewelry items, and put out
    such gorgeous jewelry as a bracelet manufactured from a hundred and five akoya pearls surrounded by diamonds and gold.

  9. I comment whenever I especially enjoy a article on a website or if I have
    somethying tto contribute to thhe conversation. It’s caused by thee fire communicated iin the articke I loked at.
    And onn this article হুমায়ুন আজাদের অগ্রন্থিত কবিতা ও গদ্য – দৈনিক সাতক্ষীরা.
    I was actually excited enough to post a comment
    😛 I do hasve some questions for you if you tend not to mind.
    Could itt be somply mme or does it look ass if like some of these rearks look
    as if they are writen by brain dead people?

    😛 And, if you are writing at other sites, I’d like
    to keep up with everything new yoou have to post. Could you list all of your community pages like your Facebook page, twitter feed, oor
    linkedin profile?

  10. Greetings I am so thrilled I found your blog page, I really
    found you by error, while I was researching on Yahoo
    for something else, Anyhow I am here now and would just like
    to say many thanks for a incredible post and a all round entertaining blog (I
    also love the theme/design), I don’t have time to read
    it all at the minute but I have saved it and also included your RSS feeds, so when I have time I will be back
    to read a lot more, Please do keep up the excellent job.

  11. Unquestionably believe that which you stated.
    Your favorite reason seemed to be on the web the easiest thing
    to be aware of. I say to you, I certainly
    get irked while people consider worries that they plainly do not know about.
    You managed to hit the nail upon the top and defined out the whole thing without
    having side effect , people can take a signal. Will probably be
    back to get more. Thanks

  12. What i do not understood is in fact how you are no longer really much more well-liked than you might be
    right now. You’re so intelligent. You already know therefore considerably in terms of this matter, made me in my opinion consider it from a
    lot of numerous angles. Its like women and men aren’t interested except it is something to accomplish with Woman gaga!
    Your own stuffs nice. At all times take care of it up!

  13. What you wrote made a great deal of sense. But, think about this, what if
    you added a little information? I am not saying your information is not
    solid., but what if you added something that makes people want more?
    I mean হুমায়ুন আজাদের অগ্রন্থিত কবিতা ও গদ্য – দৈনিক সাতক্ষীরা is a little boring.
    You could peek at Yahoo’s front page and watch how they write article titles to grab viewers
    to open the links. You might add a related video or a related pic or two to grab people interested about what you’ve
    got to say. Just my opinion, it would bring your blog
    a little livelier.

  14. Before the development of an application programming interface.
    An  (API) is a set of routines, protocols, and tools for building software applications.

    An API expresses a software component in terms of its operations, inputs,
    outputs, and underlying types. An API defines functionalities that are independent of their respective implementations, which allows definitions and
    implementations to vary without compromising each other. Easily
    replaced this entire human activity.

  15. Equipment for instance explosion proof enclosures have lowered made it possible
    to get a safer working environment in virtually all circumstances.
    Though preheating is priority method, yet it can be done also in cooling.
    Various critical situations may arise later on but that needs to be handled with right diligence
    and sense.

  16. Buy furnished and semi-furnished properties, as per your requirements.
    As the research indicates, the typical size of the flats was centred around 1600 sq ft in 2008,
    these days, the sizes from the newly constructed Mumbai flats have reduced by about 15%.

    Moreover, anyone who has their very own homes here also are in to the act of renting their properties given it is often a good choice for
    earning cash particularly in a really town like Kolkata.

  17. Excellent website you have here but I was wondering if you knew of any
    message boards that cover the same topics discussed in this article?
    I’d really like to be a part of community where I can get feedback from other experienced individuals that share the same interest.
    If you have any suggestions, please let me know.
    Many thanks!

  18. With havin so much written content do you ever run into any
    issues of plagorism or copyright violation? My blog has a
    lot of completely unique content I’ve either written myself or outsourced but
    it seems a lot of it is popping it up all over the web without my authorization. Do
    you know any methods to help protect against content from being
    stolen? I’d truly appreciate it.