সাব্বির রহমানের বিরুদ্ধে দর্শক পিটানোর অভিযোগ

0
46

বাংলাদেশ জাতীয় দল ও রাজশাহী বিভাগের হার্ডহিটার ব্যাটসম্যান সাব্বির রহমান রুমান আবারও শাস্তির মুখে পড়তে পারেন। তার বিরুদ্ধে দর্শক পেটানো ও ম্যাচ রেফারিকে হুমকি দেয়ার অভিযোগ উঠেছে।

জাতীয় ক্রিকেট লিগের (এনসিএল) ষষ্ঠ ও শেষ রাউন্ডে এমন ঘটনা ঘটেছে বলে জানা গেছে।

সদ্য সমাপ্ত বাংলাদেশ প্রিমিযার লিগে (বিপিএল) আম্পায়ারকে গালি দিয়ে গুণেছেন দেড় লাখ টাকা জরিমানা। তবে তার আগের বিপিএলে নারী কেলেঙ্কারিতে ১৩ লাখ টাকা জরিমানাও করা হয়েছিল তাকে। এবার যা করেছেন তা আগের সব রেকর্ডকে অতিক্রম করেছে।

সম্প্রতি শেষ হওয়া জাতীয় ক্রিকেট লিগে (এনসিএল) এক কিশোর দর্শককে তিনি লাঞ্ছিত করেছেন। এখানেই থামেননি এই টাইগার ‘ব্যাডবয়’। তিনি এই অন্যায় কেন করেছেন? ম্যাচ রেফারি শওকাতুর রহমান চিনু তা জানতে চাইলে তিনি তাকে হুমকি -ধামকি দিতেও পিছপা হননি।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) শৃঙ্খলা কমিটির একটি সূত্র জানিয়েছে, রাজশাহীতে জাতীয় ক্রিকেট লিগের (এনসিএল) ষষ্ঠ ও শেষ রাউন্ডে ঢাকা মেট্রোর বিপক্ষে ম্যাচের সময় এমন কাণ্ড ঘটিয়েছেন রাজশাহী বিভাগের হয়ে খেলা এই হার্ডহিটার ব্যাটসম্যান। এরই মধ্যে ম্যাচ রেফারি শওকাতুর রহমান চিনু সাব্বিরের বিরুদ্ধে বিসবির কাছে রিপোর্টও জমা দিয়েছেন।

ঘটনাটি ঘটিয়ে বিসিবি’র আচরণবিধির লেভেল-৪ লঙ্ঘন করেছেন ২৬ বছর বয়সী সাব্বির। এমন অপরাধে শাস্তিটা নূন্যতম ৫ লাখ টাকা জরিমানা এবং তিন থেকে ছয় মাস ঘরোয়া ক্রিকেট থেকে বহিষ্কারাদেশ পেতে পারেন।

একইদিন তিনি ম্যাচ চলাকালীন ড্রেসিংরুমের সামনে দাঁড়িয়ে মোবাইল ফোনে কথা বলছিলেন যা সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। সেই ছবি বিসিবির দুর্নীতি দমন কমিশনের এক প্রতিনিধি মোবাইল ধারণ করেন। সেই ফুটেজ কেড়ে নিতে ধস্তাধস্তি করেছেন সাব্বির। এক পর্যায়ে তাকে শারিরীকভাবে লাঞ্ছিত করেছেন সাব্বির।

এসব অভিযোগ সত্য প্রমাণিত হলে কঠিন শাস্তি হতে পারে সাব্বিরের। এ বিষয়ে বিসিবির অপারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান আকরাম খান বলেন, আমরা বিষয়টি ম্যাচ রেফারির রিপোর্ট থেকে জেনেছি। এ ধরনের আচরণ জাতীয় দলের কোনো ক্রিকেটারের কাছ থেকে কাম্য নয়। এমন ঘটনা বিসিবিকে বিব্রত করে।

বড় ধরনের অপরাধ করে কেউই পার পাননি। এ বিষয়ে তিনি আরো বলেন, এখন পর্যন্ত কোনও ক্রিকেটারকেই ছাড় দেয়া হয়নি। কি ধরনের শাস্তি হবে সেটা শৃঙ্খলা কমিটিই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিবে। ক্রিকেটের সুনাম নষ্ট হলে আমরা কাউকেই ছাড় দেব না। তবে যারা জাতীয় দল প্রতিনিধিত্ব করে তাদেরতো বুঝতে হবে। ক্রিকেটারের কি করতে হবে আর কি করলে খারাপ হবে।