সাতক্ষীরায় শিক্ষার্থীদের জুতা দিয়ে পিটানো প্রধান শিক্ষক আব্দুল মান্নান ৩ঘন্টা অবরুদ্ধ

33
1855
বিশেষ প্রতিনিধি:
দৈনিক সাতক্ষীরা অনলাইন পোর্টালে “সাতক্ষীরায় ৩য় শ্রেণির শিক্ষার্থীদের জুতা দিয়ে পিটালেন প্রধান শিক্ষক” শিরোনামে সংবাদ প্রকাশের পর বৃহস্পতিবার সকালে সাতানী ভাদড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষককে ৩ ঘন্টা ধরে অবরুদ্ধ করে রাখেন বিক্ষুব্ধ অভিভাবকেরা। পরে কুশখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম শ্যামল ও সদর উপজেলা সহকারী প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা নাজমুল হাসান বিদ্যালয়ে যেয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। এ সময় অভিভাবকেরা প্রধান শিক্ষক আব্দুল মান্নানকে বদলি করতে হবে এইমর্মে অভিযোগ আনেন। এ সময় প্রধান শিক্ষককে বদলি করা হবে এমন আশ্বাস দিয়ে চেয়ারম্যান ও শিক্ষা কর্মকর্তা অভিভাবকদের শান্ত করেন।
এ সময় একাধিক অভিভাবক বলেন, ‘প্রধান শিক্ষক আব্দুল মান্নান আগে যে বিদ্যালয়ে ছিলেন সেখানেও এমন ঘটনা ঘটিয়েছিলেন। তার আচার আচরণ মোটেও ভালো না। তিনি এখানে আসার আগে এই বিদ্যালয়ের অনেক সুনাম ছিল কিন্তু আসার পর থেকে বাচ্চাদের লেখাপড়ায়  চরম অবণতি হয়েছে। আমরা প্রধান শিক্ষকের বদলিসহ শাস্তি দাবি করছি।
কুশখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম শ্যামল বলেন, ‘অভিভাবকেরা আমাকে ফোন দিলে আজ আমি, উপসহকারী শিক্ষাকর্মকর্তাসহ গণ্যমাণ্য ব্যক্তিবর্গ বিদ্যালয়ে গিয়েছিলাম। সেখানে প্রধান শিক্ষকের কাছে বিষয়টি জানতে চাইলে তিনি তার অপরাধের কথা স্বীকার করেন এবং সকলের কাছে ক্ষমা চান। বিষয়টি নিয়ে ৫ সদস্য বিশিষ্ঠ একটি তদন্ত কমিটি গঠণ করা করা হয়েছে। রোববার ওই কমিটি তাদের সিদ্ধান্ত প্রদাণ করবেন।’
জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা অহিদুল আলম বলেন,  বিষয়টি আমাকে কেউ জানায়নি।তবে এমন ঘটনা কোন শিক্ষক ঘটালে তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
উল্লেখ্যে, মঙ্গলবার টিফিনের পরে সাতক্ষীরা সদরের সাতানী ভাদড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছেলে-মেয়েরা হইচই করছিল। এসময় প্রধান শিক্ষক আব্দুল মান্নান অফিস থেকে এসে ৩য় শ্রেণির ৩ শিক্ষার্থীকে জুতা দিয়ে পিটান। এটি নিয়ে অভিভাবকদের মধ্যে চরম ক্ষোভ বিরাজ করছিল।
দৈনিক সাতক্ষীরা/জেড এইচ

40582499_303

33 COMMENTS