সাতক্ষীরায় দাবিকৃত চাঁদার টাকা না দেয়ায় ইউপি সদস্যকে পিটিয়েছে সন্ত্রাসীরা

0
146

প্রেস বিজ্ঞপ্তি:
সাতক্ষীরায় চাঁদার টাকা না দেয়ায় চেয়ারম্যানের সন্ত্রাসী বানিহী কর্তৃক ইউপি সদস্য রফিকুল ইসলাম বুলিকে মারপিট করে আহত করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। শনিবার সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এই অভিযোগ করেন আহত ইউপি সদস্য বুলির ভাই আশাশুনি উপজেলার কুড়িকাউনিয়া গ্রামের মৃত আব্দুল খালেক মোড়লের ছেলে মোঃ শহীদু্ল্লাহ। লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, আমার ভাই রফিকুল ইসলাম বুলি প্রতাপনগর ইউনিয়ন পরিষদের ৩নং ওয়ার্ডের সদস্য। সুনামে সাথে দায়িত্ব পালন করারর পাশাপাশি দীর্ঘদিন ধরে ২৭ একর জমিতে একটি ঘের করে আসছেন তিনি। কিন্তু ইউপি চেয়ারম্যান শেখ জাকির হোসেনের লোক শেখ জাহাঙ্গীর বাহিনীর নজর পড়ায় তারা বিভিন্ন ভাবে ওই ঘের দখলের পায়তারা চালাতে থাকে। এক পর্যায় তারা বুলির কাছে মোটা অংকের চাঁদা দাবি করে। চাহিদা অনুযায়ী চাঁদা দেয়ার পরও আরো চাঁদা দাবি করে এবং না দিলে জোরপূর্বক ওই ঘের দখলের হুমকি দেয় তারা। এঘটনায় বুলি বাদী হয়ে আব্দুল খালেক, ইয়াছিন নুরী, আব্দুল মালেক, আবুল কালাম ঢালী, আবুল কালাম, নুরুজ্জামান, আবুল হাসান ঢালী, জাহাঙ্গীর মোড়ল, আলমগীর হোসেন, রাশেদ গাজী ও মহাসিনের নামে সাতক্ষীরার আদালতে একটি চাঁদাবাজি মামলা দায়ের করে। এতে চেয়ারম্যান জাকির ও তার বাহিনীর সদস্যরা বুলির উপর ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে। তিনি বলেন, গত ১৬ ফেব্র“য়ারি আমার ভাই বুলি সাতক্ষীরা থেকে মটর সাইকেলে বাড়ি ফেরার পথে লস্কারী খাজরা প্রাইমারী স্কুলের সামনে পৌছালে নাকনা গ্রামের শেখ জাহাঙ্গীর তার গতি রোধ করে। পরে পিছন দিক থেকে প্রাইভেট কার দিয়ে চেয়ারম্যান শেখ জাকির তাকে আটকে ফেলে। এসময় শেখ জাহাঙ্গীর, শ্রীপুর গ্রামের আব্দুল খালেক, ইয়াছিন নুরী, আব্দুল মালেক, আবুল কালাম ঢালী, কুড়িকাহনিয়া গ্রামের আবুল কালাম, শ্যামনগর উপজেলার গড়কুমারপুর গ্রামের নুরুজ্জামান, আবুল হাসান ঢালী, জাহাঙ্গীর মোড়ল, শুভদ্রাকাটি গ্রামের আলমগীর হোসেন, রাশেদ গাজী, আবুল হোসেন, মহাসিন তার উপর অতর্কিত হামলা চালায়। তারা চায়নিজ কুড়াল দিয়ে আমার ভাইয়ের মাথায়, দুই পা ও হাতে কুপিয়ে ও রড় দিয়ে বিভিন্ন স্থানে আঘাত করে মৃত ভেবে ফেলে রেখে চলে যায়। বুলিকে অজ্ঞান অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে আশাশুনি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাই। কিন্তু তার অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় তাকে খুলনা ২৫০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে তার অবস্থা সংকটাপূর্ণ। তিনি অভিযোগ করে বলেন, প্রতাপনগর ইউপি চেয়ারম্যান শেখ জাকিরের সহযোগিতায় জাহাঙ্গীর বাহিনী এলাকার ঘের ব্যবসায়ীদের জিম্মি করে মোটা অংকের চাঁদা আদায় করে আসছে। তাদের ভয়ে কেউ মুখ খুলতে সাহস পায় না। এছাড়া তাদের বিরুদ্ধে সাতক্ষীরা সদর থানায় ও আশাশুনি থানায় একাধিক মামলা রয়েছে। তিনি তার ভাইয়ের উপর হামলার ঘটনায় ইউপি চেয়ারম্যান শেখ জাকির, শেখ জাহাঙ্গীর ও তার বাহিনীর সদস্যদের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবিতে সাতক্ষীরা পুলিশ সুপারের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেন। এবিষয়ে জানতে চাইলে প্রতাপনগর ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ জাকির হোসেন বলেন, স্থানীয় শ্রীপুর চিংড়ি ঘেরে ১৪ জন ভূমিহীনের ইজারা নেয়া জমি রফিকুল ইসলাম বুলি মেম্বর গায়ের জোরে দীর্ঘদিন ধরে দখল করে রেখেছেন। এঘটনায় ক্ষুব্ধ ভূমিহীনরা বুলির উপর হামলা চালিয়েছে বলে তিনি শুনেছেন। ঘটনার সময় ইউনিয়ন পরিষদের কাজে তিনি আশাশুনি উপজেলা সদরে ছিলেন। স্থানীয় বিরোধের কারনে তার সুনাম ক্ষুন্ন করতে বুলি মেম্বরসহ একটি মহল তার বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাচ্ছে বলে তিনি জানান।