সহায়ক সরকার ঠেকানোর ক্ষমতা কারো নেই: দুদু

0
55

অনলাইন ডেস্ক:

আগামী নির্বাচন সহায়ক সরকারের অধীনেই হবে জানিয়ে বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু বলেছেন, কারও ক্ষমতা নেই সেই সহায়ক সরকার ঠেকানো। তিনি বলেন, ২০১৯ সালে দেশে নির্বাচন হবে, সেই নির্বাচনে জয়লাভ করে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া আবার প্রধানমন্ত্রী হবেন। তারেক রহমান দেশে ফিরে আসবে। সরকারকে বাধ্য করা হবে সহায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে। কারও ক্ষমতা নেই সেই সহায়ক সরকার ঠেকানো।

শনিবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির স্বাধীনতা হলে জাতীয়তাবাদী দেশ বাঁচাও, মানুষ বাঁচাও আন্দোলন আয়োজিত বর্তমান রাজনীতি ভবিষ্যৎ বাংলাদেশ শীর্ষক এক আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। শামসুজ্জামান দুদু বলেন, সহায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচনে যদি আওয়ামী লীগ ৩০ সিটের বেশি পায়, তাহলে বিএনপির অফিসে তালা লাগিয়ে দিবো রাজনীতি করবো না।

তিনি আরও বলেন, আগামী দিনে দেশে সুষ্ঠু নির্বাচন করতে হলে, আগে নির্বাচনী পরিবেশ সৃষ্টি করতে হবে এবং সেই সঙ্গে প্রশাসনে পরিবর্তন আনতে হবে। দেশে কোন রাজনীতি নেই উল্লেখ করে বিএনপির এই নেতা বলেন, পার্বত্য অঞ্চলে এতগুলো মানুষ নিহত হওয়ার পরেও প্রধানমন্ত্রী বিদেশ সফরে গেলেন! তিনি যেতেই পারেন রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ কাজে কিন্তু এতগুলো মানুষ নিহত হওয়ার বিদেশ যাওয়া কোনভাবেই কাম্য নয়। দেশে রাজনীতি না থাকার কারণেই এটি সম্ভব হয়েছে।

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি কে এম রকিবুল ইসলাম রিপনের সভাপতিত্বে এবং সহ-সভাপতি নাজমুল হোসেন রনির সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা হাবিবুর রহমান হাবিব, প্রশিক্ষণ বিষয়ক সম্পাদক এবি এম মোশাররফ হোসেন, কৃষকদলের কেন্দ্রীয় নেতা মাইনুল ইসলাম, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সহ-সভাপতি ফরিদ উদ্দীন আহমেদ, জিনাফের সভাপতি মিয়া মোহাম্মাদ আনোয়ার, সংগঠনের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক এস এম শওকত হোসেন, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক শরিফুল ইসলাম প্রমুখ।

এস এম পলাশ

LEAVE A REPLY