শ্যামনগর কাশিমাড়ীতে বেড়িবাঁধ ভাঙ্গন এলাকা পরিদর্শন করলেন এম পি জগলুল

0
195

 

শ্যামনগর প্রতিনিধি:
শ্যামনগর কাশিমাড়ীতে খোলপেটুয়া নদীর বেড়িবাঁধ ভয়াবহ ফাটল ধরেছে, যে কোন সময়  এ এলাকা ভেঙ্গে যেতে পারে। শনিবার সকাল থেকে কর্মসৃজন কর্মসৃচীর শ্রমিকদের পাশাপাশি গ্রামবাসীরা স্থানীয় চেয়ারম্যান এস এম আব্দুর রউফ এর নেতৃত্বে  স্বেচ্ছা শ্রমের মাধ্যমে বেড়িবাঁধ সংস্কার করতে থাকে। হঠাৎ সাতক্ষীরা -৪ আসনের এম পি এস এম জগলুল হায়দার উপস্থিত হয়ে শ্রমিকদের উৎসাহ দিতে এ সময় তিনি শ্রমিকদের সাথে কিছুক্ষন কাজ করেন।এদিকে  উপজেলার কাশিমাড়ীর ঝাপালী, ঘোলা সহ আরো কয়েকটি স্থানে পাউবোর বেড়িবাঁধ ভয়াবহ ফাটল দেখা দিয়েছে। যে কোন সময় বেড়িবাঁধ ভেঙ্গে শ্যামনগর উপজেলা কাশিমাড়ী, আটুলিয়া সহ কালিগন্জের কয়েকটি এলাকা এক নিমিশে প্লাবিত হতে পারে।উপজেলার ২নং কাশিমাড়ী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এস এম আব্দুর রউফ বলেন, বেড়িবাঁধ ভয়াবহ ফাটল দেখা দিয়েছে।বর্তমানে নদীতে প্রচন্ড স্রোত আর প্রবল ঢেউ। যার কারণে কাল বৈশাখীর ঝড়ো হাওয়ায় ঢেউয়ের তীব্রতায় পাউবোর বাঁধের ভাঙ্গন দিন দিন বেড়েই চলেছে। জোয়ারের তোড়ে নতুন নতুন এলাকায় ও বেড়িবাঁধ ভাঙ্গন ধরেছে। ইতিমধ্যে চেয়ারম্যানেরর নেতৃত্বে কিছু কিছু জায়গায় বাঁধের ভাঙ্গন মেরামত করা হলে ও রাত পোহালেই নতুন নতুন ভাঙ্গনের সৃষ্টি হচ্ছে।চেয়ারম্যান এস এম আব্দুর রউফ বলেন,বেড়িবাঁধ যদি স্থায়ী ভাবে মেরামত না করা যায়, তাহলে যে কোন সময় বেড়িবাঁধ ভেঙ্গে এলাকা তলিয়ে যাবে।তিনি আর  বলেন, বিষয়টি নিয়ে উপজেলা মাসিক সভায় অভিযোগ করেছি।এ ছাড়া পাউবোর উর্দ্ধতন কর্তৃৃপক্ষের বার বার হস্তক্ষেপ কামনা করেছি।তবে এখন ও পর্যন্ত কর্তৃপক্ষ কোন পদক্ষেপ গ্রহণ না করায় আমার কাশিমাড়ী ইউনিয়ন বাসী খুবই উদ্বিগ্ন। তিনি  আবার সংশ্লিষ্ট কর্তৃৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
এস কে সিরাজ