শ্যামনগর কাশিমাড়ীতে দুটি দোকান আগুনে পুড়ে বশিভূত

0
198

 শ্যামনগর  প্রতিনিধি: উপজেলার কাশিমাড়ী বাজারে দুটি দোকান আগুনে পুড়ে বশিভূত হয়েগেছে। জানাগেছে, কাশিমাড়ী বাজারে দুটি দোকান আগুন লেগে পুড়ে বশিভূত। অবশিষ্ট নেই কোন মালামালসহ দোকান ঘর। ঘটনাটি ঘটে সোমবার আনুমানিক ভোর ৫টার দিকে। এব্যাপারে ময়রা হাফিজুর রহমান জানান, আমি দোকান ভাড়া নিয়ে ব্যাবসাকরি। আজ সোমবার জয়নগর মাদরাসায় মাহফিল সে কারণে
মাহফিলে মিস্টি বিক্রি কারার জন্য আমরা গতকাল থেকে মিস্টি তৈরি করছিলাম। সোমবার রাত ১টা বা দেড়টার পর্যন্ত রাত জেগে মিস্টি তৈরি এবং তার পর আমরা দোকানে মিস্টি তৈরি করে রেখে বাড়ি যায়। আমাদের দোকানে তৈরিকরা চমচম, রশোগোল্লা, কালোজাম, খেজুর, দানাদারসহ প্রায় ৩০ হাজার টাকার মতো মিস্টি তৈরি করা ছিল। এবং মিস্টিসহ আনুমানিক ক্ষতির পরিমান ২ লক্ষ টাকারও বেশি।
তার পাশের দোকানদার সুনীল কর্মকার বলেন, আগুনে আমার দোকানও পুড়ে ছায় হয়েগেছে। আমার দোকানের প্রায় ৩০ হাজার টাকার মালামাল নষ্ট হয়েগেছে। এব্যাপারে প্রতক্ষদশিরা জানান, সোমবার ভোর আনুমানিক ৫টার দিকে দোকানে আগুন জলতে দেখে কাশিমাড়ী বাজার মসজিদের ইমাম শাইখুল ইসলাম মাইকে প্রচার করা মাত্র স্থানীয় জনতা ঘটনা স্থলে এসে কয়েক ঘন্টা চেস্টার পরে আগুন নেভাতে সক্ষম হয়। কিন্তু কয়েক ঘন্টা চেস্টার পর আগুন নেভাতে সক্ষম হলেও দোকানের কোন মালামাল অবশিস্ট ছিল না। সব মাল সহ দোকান ঘরের সব কিছু পুড়ে বশিভূত হয়েগেছ। এব্যাপারে কাশিমাড়ী বাজার কমিটির সভাপতি আব্দুল অহিদ সরদার জনান, দোকান ঘরটি কাঠের বেড়াদিয়ে তৈরি এবং গোল পাতার ছাউনি দেওয়া এই দোকানে আগুন লাগার কারণ সম্পর্কে তাৎক্ষনিক ভাবে আমরা কিছু বলতে পারছিনা কিন্তু ধারনা করা হচ্ছে বিদ্যুৎ এর সট সার্কিট এর কারণে আগুন লাগতে পারে বলে ধারনা করা হচ্ছে। এঘটনার পর সোমবার সকাল ৮টার দিকে কাশিমাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান এস এম আব্দুর রউফ ঘটনা স্থল পরিদর্শন করেন। আগুন লাগার পিছনে অন্যকোন কারণ আছে কিনা সেটা উৎঘাটন করতে দোকান মালিক ইকবল হোসেন শ্যামনগর থানায় যেয়ে তাৎক্ষিক একটি সাধারণ ডায়েরী করে এবং সেই অভিযোগের ভিত্তিতে সোমবার দুপুর ২টার দিকে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন শ্যামনগর থানার এস আই আরিফ। আগুন লাগার ঘটনার সত্যতা সিকার করে তিনি বলেন, আগুন লাগার সুনিদিষ্ট কোন কারণ এখনো জানা জায়নি। তবে সট সার্কিটের কারনেও আগুন লাগতে পারে আবার কেউ শত্রুতা মূলকও আগুন লাগাতে পারে। তবে আগুন লাগার সঠিক কারন এখনো জানা জায়নি।

গাজী অাল ইমরান

LEAVE A REPLY