শ্যামনগরে উৎসব মুখর পরিবেশে তিনদিন ব্যাপী উন্নয়ন মেলার সমাপ্তি

0
40
জি,এম শাহাদাতঃ
বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে আনন্দঘন উৎসব মুখর পরিবেশে সাতক্ষীরার শ্যামনগরে উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে ৩ দিন ব্যাপী উন্নয়ন মেলা-২০১৮’র আনুষ্ঠানিক সমাপনী অনুষ্ঠিত হয়েছে। বর্তমানসরকারের সময় নেওয়া বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজের সঙ্গে দেশের প্রান্তিক জনগণসহ আপামর জনগোষ্ঠীকে সম্পৃক্ত করার লক্ষ্যে এ উন্নয়ন মেলা। এ মেলায় উপজেলার সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন দপ্তর, ব্যাংক, বীমা, আর্থিক প্রতিষ্ঠানসহ সরকার নিয়ন্ত্রণাধীন প্রতিষ্ঠান অংশগ্রহণ করে। এসব সরকারি, আধা-সরকারি ও বেসরকারি সংস্থার পক্ষ থেকে মেলায় আগত লোকদের সামনে তাদের নিজ নিজ সংস্থার উন্নয়ন কার্যক্রম তুলে ধরেছে । তিন দিনব্যাপী মেলায় ছিল আলোচনা সভা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মাধ্যমেও দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের নানা দিক তুলে ধরা হয়েছে। ৩৬ টি স্টল শোভা পেয়েছে মেলাতে। মেলাকে কেন্দ্র করে শ্যামনগর উপজেলা চত্ত¡র সাজানো ছিলো বর্ণিলভাবে। অনুষ্ঠিত মেলার প্রতিটি দিনে প্রদর্শিত ৩৫ টি স্টলে উপজেলা শহর ও গ্রামাঞ্চল থেকে বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ,স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থী, শিশু-কিশোর সহ ব্যাপক নারী দর্শনার্থীদের উপচে পড়া ভিড় লক্ষ্য করা গেছে। উপজেলায় বিগত সময়ের বিভিন্ন মেলা অপেক্ষা চলতি বছরে শুরুতে আয়োজিত উন্নয়ন মেলা-২০১৮’র ব্যতিক্রমধর্মী আয়োজন। উপজেলার প্রত্যেকটি দপ্তর সরকারের উন্নয়ন লক্ষ মাত্রা অর্জনে তাদের নিজস্ব দপ্তরের কার্যক্রম প্রদর্শনীতে ব্যস্ত থাকতে দেখা যায়। উপজেলা প্রকৌশলীর স্টল ঘুরে দেখা যায় এক ব্যতিক্রম ধর্মী কাজ উপজেলা প্রকৌশলী চৌধুরী আসিফ রেজা তিনি নিজে বসেই করছেন, তিনি তার দপ্তরের বিভিন্ন অর্জন, সেবা সম্পর্কে তাৎক্ষনিক কম্পিউটারাইজড প্রিন্ট বের করে মানুষের কাছে দিতে এবং তিনি সাধারণ মানুষকে  বুঝিয়ে বলতে দেখা যায়। উপজেলার বিভিন্ন রাস্তা, কালভার্ট, মেইনটেন্স সহ সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন সম্পর্কে মানুষকে অবহিত করেন। এছাড়া উপজেলার কৃষি ,মৎস্য, শ্যামনগর থানা ,প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার কার্যালয়, মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর ,শিক্ষা অফিস, সমাজসেবা, সহ বিভিন্ন সরকারি অফিস ব্যাংক, বীমা সহ বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা কর্মচারিগন ছুটির দিন গুলোতে ছুটি না কাটিয়ে স্বতস্ফর্তভাবে মেলায় অংশগ্রহণ করে তাদের কার্যক্রম প্রদর্শন লক্ষ করা যায়। অনুষ্ঠানে সমাপ্তি পর্বে স্টল প্রদর্শনীতে ১ম হিসাবে উপজেলা কৃষি দপ্তর, ২য় উপজেলার চারটি ইউপি চেয়ারম্যান, তৃতীয় উপজেলা প্রকৌশলীর কার্যালয়কে ঘোষণা করেন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ কামরুজ্জামানকে দেখা যায় সাধারণ মানুষের সাথে একেবারেই মিশে গিয়ে বিভিন্ন স্টল সহ বিভিন্ন স্থানে দাড়িয়ে অতি আনন্দের সাধারণ মানুষের সাথে ছবি তুলতে এবং বিভিন্ন স্টল ঘুরে দেখতে। তাকে একেবারই সাধারণ মানুষ হিসাবে মানুষের সাথে তিনদিন মিশে থাকতে দেখা গেছে। সবাই যেন তার পরিবারের মানুষ এমনই মনে হয়েছে অনেকের কাছে। ফুটপথে দাড়িয়ে সাধারণ মানুষ ও উপজেলায় কর্মরত কর্মকর্তা কর্মচারীদের নিয়ে নাড়ু–ভাজা খেতে দেখা যায়। উপজেলা সহকারি কমিশনার ভূমি মেলা উপলক্ষে ১ম দিনে সকাল ৭ঃ৩০ মিনিটে মেলা চত্বরে তার উপস্থিতি লক্ষ করা যায়। তিনিও একজন অতি সাধারণ মানুষ হিসাবে সকলের কাছে সজ্জন ব্যাক্তি হিসাবে মেলা প্রাঙ্গণ থেকে পরিচিতি লাভ করেছে। মেলাকে প্রাণবন্ত করে তুলতে উপজেলার সকল কর্মকর্তা কর্মচারী বৃন্দ সবার কাধে কাধ মিলিয়ে কাজ করতে দেখা যায়। এবারের আনন্দ মেলায় উপজেলার এনজিও-দের মধ্যে এক আত্তীকরণ ঘটতে দেখা যায়, তিনটি স্টলকে এক করে একটি স্টল তৈরির মাধ্যমে ছোট বড় মিলিয়ে এক সাথে তাদের কার্যক্রম প্রদর্শন করছেন বলে জানা যায়।এর মাধ্যমেও সকলের সাথে সকলের এক আত্মীয়তার বন্ধন তৈরি হয়েছে বলে জানান বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের এক কর্মকর্তা। মেলায় প্রদর্শিত স্টল, দর্শনার্থীদের লক্ষণীয় আগমন, সরকারি বেসরকারি কর্মকর্তা কর্মচারীদের সকাল থেকে রাত পর্যন্ত প্রদর্শনী  আনন্দমুখর পরিবেশ সৃষ্টিসহ এবারের মেলা শ্যামনগর বাসিকে নতুনত্বের ছোয়ায় স্পর্শ করতে সক্ষম হয়েছে। বছরের শুরুতে আয়োজিত উন্নয়ন মেলা নতুন বছরের সাথে এক নতুন আনন্দ যোগ করেছে। মেলায় আগত শিক্ষার্থী নিশাত তাসনিম বলেন , অন্যান্য বারের চেয়ে এবারের মেলায় বেশী আনন্দ পেয়েছি এবারের সাজসজ্জা মেলায় নতুন আনন্দের মাত্রা যোগ করেছে। মেলাটি উপলক্ষে সরকারি- বেসরকারি কর্মকর্তা কর্মচারী ও সাধারণ মানষের সাথে এক নতুন আত্তীকরণ উপলব্ধি করা গেছে। উন্নয়ন মেলায় ঐতিহ্য, উন্নয়ন, সাহিত্য, সংস্কৃতি, কৃষ্টি, তথা দেশের সার্বিক উন্নয়ন বিষয়ক চিত্রাঙ্কন, বিতর্ক, কুইজ প্রতিযোগিতা ও রচনা প্রতিযোগিতার পাশাপাশি শ্যামনগর উপজেলা প্রশাসনের সার্বিক তত্বাবধানে পরিচালিত ১ম দিনে সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন বিষয়ে পটগান, ২য় দিনে নাট্য কলা শিল্পীগোষ্ঠী, এবং সমাপনি দিনে উপজেলা শিল্পকলার সদস্য প্রকৌশলী শেখ আফজালুর রহমানের পরিচালনায় এক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে তিন দিনের মেলার সমাপ্তি অনুষ্ঠানে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ কামরুজ্জামানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন,১০৮ সাতক্ষীরা-৪ আসনের সংসদ সদস্য এস এম জগলুল হায়দার। তিনি তার বক্তব্যে বর্তমান সরকার উন্নয়ের সেরা সরকার , বর্তমান সরকার ডিজিটাল দেশ বিনির্মাণের সরকার , বর্তমান সরকার জনগণের সরকার বলে উল্লেখ করেন।  এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা সহকারি কমিশনার ভূমি সুজন সরকার, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সহ উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা কর্মচারী, বিভিন্ন বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা সুশীল সমাজের মানুষ।