শ্যামনগরের ক্ষুদে ক্রিকেটার সাংবাদিকের ছেলে ইয়াছিন বিকেএসপিতে

0
213
রবিউল ইসলাম, কাশিমাড়ী :
শ্যামনগরের মুন্সিগঞ্জ কলেজের প্রভাষক সাংবাদিক সামিউল মনিরের ছেলে ৫ম শ্রেণির পড়ুয়া মেধাবী ছাত্র ইয়াছিন আকরাম ক্ষুদে ক্রিকেটার বি কে এস পি তে ট্যালেন্ট হান্ট ২০১৮ তে সাতক্ষীরা জেলায় অলরাউন্ডার হিসেবে অন্যতম প্রতিভার স্বাক্ষর রেখে নির্বাচিত হয়েছে। মাত্র ৩ বছর বয়সেই ক্রিকেটের হাতে খড়ি বাবা কলেজ শিক্ষক সামিউল মনিরের কাছে। পিতা সামিউল মনির উপজেলায় একমাত্র ক্রিকেটার গড়ার কারিগর। সে একজন উচ্চমানের ক্রীড়া সংগঠকও। সময় ও সুযোগের অভাবে দেশের ক্রিকেট জগতে নিজেকে মেলে ধরতে পারেনি। তাই তার স্বপ্ন একমাত্র চেলে সন্তান ইয়াছিন আকরামকে একজন দেশ সেরা ক্রিকেটার তৈরি করার। সেই থেকে হাটি হাটি পা পা করে অনুশীলনের মধ্যে ইয়াছিনকে গড়ে তোলা হচ্ছে। আজ সে ৫ম শ্রেণীর ছাত্র। লেখাপড়ার পাশাপাশি বাবার হাত ধরে এবং মা কলেজ শিক্ষিকা শিরিনা বানুর অনুপ্রেরণায় ইয়াছিনের যত স্বপ্ন, যত ভাবনা, যত কল্পনা সবই যেন ক্রিকেটকে ঘিরে। ইয়াছিনকে উপজেলা শুধু নয় জেলার একজন কৃতি ক্ষুদে ক্রিকেটার হিসেবে এ জগতের সবাই তাকে চেনে। ক্রিকেট ব্যাট ও বলই তার একমাত্র খেলার সাথী। বাবা সামিউল মনির তাকে তৈরি করছে নিজেকে সম্পূর্ণ নিকড়ে দিয়ে। এত কম বয়সে ক্রিকেটের হাতে খড়ি সাতক্ষীরা জেলায় ইয়াছিন আকরামই প্রথম। ক্ষুদেদের সাথে শুধু নয় বাবার হাত ধরে বয়োজ্যেষ্ঠদের সাথে প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে ক্রিকেটে একজন ক্ষুদে অলরাউন্ডার হিসেবে ইয়াছিন সকলের নজর কেড়েছে। বি কে এস পি ট্যালেন্ট হান্ট ২০১৮ তে জেলায় একমাত্র অলরাউন্ডার হিসেবে ইয়াছিন নির্বাচিত হয়েছে। যার সুবাদে ইয়াছিন ১৫এপ্রিল বরিশাল বি কে এস পি তে প্রশিক্ষণের জন্য রওনা হয়েছে। শ্যামনগরবাসী এ ক্ষুদে ক্রিকেটার ইয়াছিন আকরামের মধ্যে আর একজন বিশ্ব কাঁপানো দেখতে চায়। ইয়াছিনের জন্য  দোয়া করেছেন তার পরিবার।