ফেসবুকে নতুন আপডেট, বিপাকে ব্যবসায়ীরা

0
39
ওয়েব ডেস্কঃ
বর্তমান সময়ে ফেইসবুক পেজ ব্যবসার অন্যতম এক মাধ্যম হয়ে দাঁড়িয়েছে। তাই এই ব্যবসার সম্প্রসারণ আরও সুন্দর করে এগিয়ে নিতে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ কিছু আপডেট নিয়ে আসছেন। গ্রাহকদের সাথে সংযুক্ত করতে ফেসবুক পোস্ট বুস্টের অপশন রেখেছে প্রথম থেকেই। তবে এবার সেই নিয়মে আসছে কিছু পরিবর্তন।
প্রায়ই ফেসবুকে ভুয়া সংবাদ দেখা যায়, আবার চমক লাগানো কিছু খবর দেখা যায় দ্রুততার সাথে ছড়িয়ে পড়ে। কিন্তু এবার ভুয়া সব খবর রুখে দিতে ফেসবুক নিউজ ফিডে আসছে নতুন সংস্করণ। প্রায় ৬টি দেশে এই নিয়ম-কানুন শুরু হয়ে গেছে। সেই ৬টি ছোট দেশ- স্লোভাকিয়া, শ্রীলঙ্কা, সার্বিয়া, বলিভিয়া, গুয়াতেমালা ও কম্বোডিয়ায় এক মাসের জন্য পরীক্ষামূলকভাবে এই নিউজফিড চালানো হচ্ছে। বলা বাহুল্য যে খুব শীঘ্রই বিশ্বব্যাপী সেই একই সুবিধা প্রদান করা হবে।
ফেসবুকের বিজ্ঞাপন মূলত লাইক বাড়ানোর জন্য নয়। এই এড দিয়ে আপনি আপনার ব্যাবসার প্রচার চালাবেন। তো ব্যাবসা কিভাবে বাড়বে? আপনার পেজ এ লাইক বাড়লে নাকি আপনার পণ্যের প্রচার বাড়লে? অবশ্যই পণ্যের প্রচার বাড়লে। তো ফেসবুকের এড এর চেষ্ঠা তাকে যাতে সর্বোচ্চ সংখ্যক ইউজারে কাছে আপনার এড পৌছানো যায়। একই সাথে আপনার টার্গেট কাষ্টমার খুজে বের করাও এর কাজ। আপনি চাইলে একটি নির্দিষ্ট দেশে এই এড চালাতে পারেন। আবার নির্দিষ্ট বয়সের লোকের কাছেও পৌছাতে পারেন। একে বলা হয় কাষ্টমাইজড এড। ফেসবুক বিজ্ঞাপনে নির্দিষ্টভাবে বলা থাকেনা আপনি কতগুলো likes পাবেন। কারন সে এড পৌছে দেয়, তাই টোটাল রিচ বলা থাকে অর্থাৎ কত জনের কাছে এড টা পৌছাবে। এটা নির্ভর করে আপনি বিভিন্ন প্যারামিটার কিভাবে সেট করছেন তার উপর। এই কাজটুকুই ট্রিকি পার্ট। এবার ফেসবুক কর্তৃপক্ষের ইচ্ছা সকল বিজ্ঞাপনের পোস্ট এর জন্য কিছু টাকা জমা নিবে ফেসবুক। অর্থাৎ বুস্ট করা ছাড়া কোন বিজ্ঞাপন কাঙ্ক্ষিত মানুষের কাছে পৌঁছাবে না।
ফেসবুক কর্তৃপক্ষ নিউজফিডকে দুই ভাগে বিভক্ত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। একটি ভাগে আছে বন্ধু-বান্ধব ও পরিবারের সদস্যদের ব্যক্তিগত ছবি, স্ট্যাটাস ও শেয়ার করা কনটেন্ট। অন্য ভাগে থাকবে বাণিজ্যিক উদ্দেশ্যে শেয়ার করা পোস্ট।
পেজ মালিকদের বিজ্ঞাপন ব্যবহারকারীর ব্যক্তিগত ফিডে দেখানোর জন্য আলাদা অর্থ দিতে হতে পারে। ইতোমধ্যেই ছোট-খাট মিডিয়া সাইটগুলোতে এর প্রভাব পরিলক্ষিত হওয়ার তথ্য পাওয়া গেছে। স্লোভাকিয়ার একজন সাংবাদিক ফিলিপ স্টুহারিক একটি পোস্টে লিখেছেন, যদি আপনার ফেসবুক পেজের পোস্ট আগের নিউজ ফিডে দেখাতে চান, তবে আপনাকে অর্থ দিতে হবে।
তবে এখনই বিশ্বের দুশো কোটি ব্যবহারকারীর ফিড বিভক্ত করার কোনো পরিকল্পনা নেই প্রতিষ্ঠানটির। ব্যবহারকারীদের প্রতিক্রিয়া দীর্ঘদিন বিশ্লেষণের পর নিউজ ফিড বিভক্ত সংক্রান্ত চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে ফেসবুক।
এতকিছুর পেছনের কারণ হল, আমরা অনেক সময় দেখে থাকি অনেক ফেসবুক পেজে কোটি কোটি লাইক। এগুলোর সবগুলো কি আসল ফেসবুক ইউজার লাইক দিচ্ছে ? জানা নেই। কারন কিছু অসাধু ব্যবসায়ী অল্প টাকার বিনিময়ে ফেইক ফেসবুক ইউজার দ্বারা এইসব বিজ্ঞাপন দিয়ে থাকে। এর মাধ্যমে লাভবান হছে এইসব অসাধু ব্যবসায়ী, কারন আপনি কিন্তু আপনার টার্গেট লাইক পাচ্ছেন না। যার ফলে আপনার পেজে লাখ লাখ লাইক থাকার কারনেও তাদের থেকে তেমন সারা পাচ্ছেন না। শেষ পর্যন্ত আপনি হতাশ হচ্ছেন এবং ভাবছেন ফেসবুকে বিজ্ঞাপন দেওয়ার পরও মানুষ কেন আপনার ব্যবসা সম্পর্কে জানছে না। এর একটাই কারন ফেইক ফেসবুক ইউজার দ্বারা আপনার পেইজের এর লাইক বাড়ানো হচ্ছে যা অনলাইনে কিনতে পাওয়া যায়। তাই এসকল সমস্যার সমাধান করতে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ এগিয়ে আসছে।