‘শিক্ষকদের চাকরি জাতীয়করণ না হলে কঠোর কর্মসূচি’

0
193
আগামী ২০ ডিসেম্বরের মধ্যে বেসরকারি শিক্ষকদের চাকরি জাতীয়করণের ঘোষণা না দিলে জানুয়ারিতে লাগাতার ধর্মঘটের হুশিয়ারি দিয়েছেন শিক্ষক কর্মচারী ঐক্য জোটের চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ মো.; সেলিম ভূইয়া।
শনিবার বগুড়া উত্তরন হাই স্কুল মাঠে শিক্ষক কর্মচারী ঐক্যজোটের রাজশাহী বিভাগীয় প্রতিনিধি সম্মেলনে তিনি এ হুশিয়ারি উচ্চারণ করেন।
শিক্ষা ব্যবস্থা ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে উল্লেখ করে অধ্যক্ষ সেলিম ভূইয়া বলেন, অধিদফতর, পরিদফতর, বোর্ড, আঞ্চলিক অফিস সমূহে দুর্নীতির মহোৎসব চলছে। প্রশিক্ষণের নামে শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের শত শত কোটি টাকার লুটপাট চলছে। অফিসগুলোতে ঘুরে ঘুরে একই ব্যক্তিরা দুর্নীতি করে বেড়াচ্ছে। তারা বলে বেড়ান তারা নাকি এক সময় ছাত্রগীল করতো তাই তাদের বিরুদ্ধে কথা বলে কোনো লাভ হবেনা।
সরকারি দলের লোকদের দৌরাত্বে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষকরা কাজ করতে পারছেনা মন্তব্য করে এ শিক্ষক নেতা বলেন, সরকারি দলের স্থানীয় নেতারা নিয়ন্ত্রণ করছে অধ্যক্ষ ও প্রধান শিক্ষকদের দায়িত্ব। পাবলিক পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র ফাঁসের সঙ্গেও তারা জড়িত। পরীক্ষায় নকলের মহোৎসব চলছে। এই অবস্থা চলতে থাকলে দেশ এক সময় মেধাশুন্য হয়ে যাবে।
বর্তমানে শিক্ষকদের কোনো সামাজিক মর্যাদা নেই দাবি করে অধ্যক্ষ সেলিম ভুইয়া বলেন, আজ শিক্ষকদের চাকরির নিরাপত্তা নেই। তাই বেসরকারি শিক্ষকদের চাকরি জাতীয়করণ সময়ের দাবি।
সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্থানীয় সংসদ সদস্য মো. নুরুল ইসলাম ওমর বলেন, শিক্ষকদের অভুক্ত রেখে শিক্ষার মান বৃদ্ধি করা যাবে না। শিক্ষকরা জাতি গড়ার কারিগর। তাদেরকে যথাযত মর্যাদা দিতে হবে। এ সময় তিনি শিক্ষকদের দাবি পূরণের জন্য সরকারের প্রতি জোড় আহ্বান জানান।
আয়োজক সংগঠনের বগুড়া জেলা শাখার সভাপতি অধ্যক্ষ মো. মোহাম্মদ আলীর সভাপতিত্বে এ সময় আরো বক্তব্য রাখেন, আয়োজক সংগঠনের কেন্দ্রীয় কমিটির মহাসচিব মো. জাকির হোসেন, শিক্ষক নেতা অধ্যক্ষ আব্দুর রহমান, দেলোয়ার হোসেন, অধ্যক্ষ সেলিম মিয়া, শামসুল হক, মুঞ্জুরুল ইসলাম, অধ্যাপক হামিদ তালুকদার, আ. করিম, হাফিজুল ইসলাম, দেশ বাঁচাও মানুষ বাঁচাও আন্দোলনের সভাপতি কে এম রকিবুল ইসলাম রিপন প্রমুখ।