রাস্তায় কাতরাচ্ছে রক্তাক্ত যুবক, ছবি তুলতেই ব্যস্ত মানুষ!

0
195

অনলাইন ডেস্কঃ

গাড়ির ধাক্কায় দীর্ঘক্ষণ রক্তাক্ত অবস্থায় রাস্তায় পড়ে রইলেন ২৫ বছর বয়সী এক তথ্যপ্রযুক্তিকর্মী। যদি তাঁকে সময়মতো হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হতো, হয়তো তিনি বেঁচে যেতেন। কিন্তু পথচারীরা সাহায্যের বদলে ব্যস্ত রইলেন রক্তাক্ত ওই সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারের ছবি তুলতে বা ভিডিও করতে। অবশেষে বিনা চিকিৎসায় প্রাণ হারালেন ইঞ্জিনিয়ার সতীশ প্রভাকর মেটে। এ ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের পুনেতে।  নিহত সতীশ ঔরঙ্গাবাদের বাসিন্দা, থাকতেন মোশিতে। কাজ করতেন ভোসারিতে। সতীশকে ওভাবে পড়ে থাকতে দেখে এগিয়ে আসেন কার্তিকরাজ কেটে নামের এক ব্যক্তি, যিনি পেশায় দন্ত চিকিৎসক। তিনিই রক্তাক্ত ইঞ্জিনিয়ারকে পিম্পিরিতে যশবন্তরাও চহ্বন মেমোরিয়াল হাসপাতালে নিয়ে যান। ওই দন্ত চিকিৎসক জানিয়েছেন, তিনি বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা নাগাদ ইনদ্রায়ানিনগরে বিশাল ভিড় লক্ষ করেন। ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখেন, সেখানে গুরুতর আহত অবস্থায় এক ব্যক্তি রাস্তায় পড়ে রয়েছেন। রক্ত ভেসে যাচ্ছিল, কিন্তু জ্ঞান ছিল তার। তরুণের মুখটি অর্ধেক কাপড়ে ঢাকা ছিল। সেখানে দাঁড়িয়ে থাকা প্রত্যক্ষদর্শীরা ঘটনার ছবি বা ভিডিও তুলতেই ব্যস্ত ছিলেন। কারও আহত ব্যক্তিকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার কথা মনে হয়নি। তারপর আহত যুবককে একটি অটোয় তুলে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। তার মাথায় চোট ছিল, সঙ্গে নাক-মুখ দিয়ে মারাত্মক রক্ত বেরোচ্ছিল। পেটে গাড়ির চাকা চলে যাওয়ার দাগও ছিল। অটোতে তাকে বাঁচানোর চেষ্টা করেছিলেন, কিন্তু দেরি হয়ে যাওয়ায় আর যুবককে বাঁচানো সম্ভব হয়নি, আক্ষেপ এই দন্ত চিকিৎসকের।