রাষ্ট্রপতি উদ্যোগ নিলেও আ.লীগকে নিয়ে সংশয়ে ফখরুল

0
64

অনলাইন ডেস্ক:

নির্বাচন কমিশন (ইসি) গঠন নিয়ে রাষ্ট্রপতি আলোচনার উদ্যোগ নিলেও আওয়ামী লীগের প্রেসক্রিপশন নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেছেন, গতবারও রাষ্ট্রপতি আলোচনা করেছিলেন কিন্তু তারপর আওয়ামী লীগের প্রেসক্রিপশন অনুযায়ী সার্চ কমিটি গঠন করে নির্বাচন কমিশন গঠন করা হয়েছিল।

মঙ্গলবার বিকেলে রাজধানীরর সেগুনবাগিচায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) সাগর-রুনি মিলনায়তনে গণতন্ত্র দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

রাষ্ট্রপতিকে ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি বলেন,  (মঙ্গলবার) দুপুরে রাষ্ট্রপতির প্রেস সেক্রেটারি বলেছেন, মহামান্য রাষ্ট্রপতি দেশে ফিরে এসে ইসি গঠন নিয়ে সকল দলগুলোর সঙ্গে আলোচনা শুরু করবেন। জনগণের দাবিকে তিনি সম্মান জানিয়েছেন। আমরা খুশি হয়েছি। আশা করি সব রাজনৈতিক দলের সঙ্গে আলােচনা করে গ্রহণযোগ্য নির্বাচন কমিশন গঠন করবেন রাষ্ট্রপতি।

ফখরুল বলেন, জোর করে অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে জনগণের আশা আকাঙ্খাকে দমন করা যায়নি। সরকার প্রধানের কাছে আহ্বান জানাই, গণতন্ত্রকে ধ্বংস করবেন না। সেই খাতায় নাম লেখাবেন না, যে খাতায় ধিকৃত ব্যক্তিদের নাম লেখা আছে। এটা আমরা চাই না। আমরা চাই রাজনৈতিক ব্যক্তিদের নাম স্বর্ণাক্ষরে উজ্জ্বল হয়ে থাক। আমরা চাই দেশের মানুষ গণতান্ত্রিক পরিবেশে বাস করুক।

তিনি আরও বলেন, এ কথা আজকে প্রমাণিত হয়ে গেছে এই সরকার গণতান্ত্রিক মুল্যবোধে তো বিশ্বাস নাই, গণতন্ত্রককে ধ্বংস করতে চায়। অতীতেও করেছে, এখনো করতে চাচ্ছে। এই দলটি গণতন্ত্র বিরোধী দল। মুখে বলবে গণতন্ত্রর কথা কিন্তু তারা কোনো দিনই গনতন্ত্রে বিশ্বাস করবে না।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের সত্য ও সুন্দরের পথে চলতে হবে এমন বক্তব্যের সমালোচনা করে তিনি বলেন, সত্য সুন্দরের ডেফিনেশন কি মানুষ হত্যা, গুম, থানায় নিয়ে প্রকাশ্য গুলি করে পঙ্গু করা?

ডাকসুর সাবেক ভিপি ও বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমানের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় সাবেক ছাত্রনেতা খায়রুল কবির খোকন, হাবিবুর রহমান হাবিব, নাজিম উদ্দিন আলম, মোস্তাফিজুর রহমান বাবুল, খন্দকার লুৎফর রহমান, সাইফুদ্দিন আহমেদ মনি প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

এস এম পলাশ

LEAVE A REPLY