যেসব অভিনেত্রীদের রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে!

0
50
অনলাইন ডেস্ক:
সৃষ্টির সেরা জীব মানুষ। আর পৃথিবীর চিরাচরিত নিয়ম হচ্ছে জন্ম নিলেই, মৃত্যু বরণ করতে হবে। সে হোক সাধারণ মানুষ কিংবা তারকা।
এক্ষেত্রে সকলেরই স্বাভাবিক মৃত্যুটাই কাম্য। অনেক সময় এর ব্যতয় ঘটতে দেখা যায়। আর তখনই ওই মৃত্যুর ঘটনাকে কেন্দ্র করে দানা বাঁধে রহস্য। এমনি করেই বেশ কয়েকজন বলিউড নায়িকার রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। তারা হলো-
মধুবালা:
বলিউডের বিখ্যাত অভিনেত্রী মধুবালার ১৯৬৯ সালে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়। ৩৬ বছর বয়সেই তাকে পৃথিবী থেকে চলে যেতে হয়। জীবনের শেষের কয়টা দিন তিনি একেবারে একা হয়ে পড়েছিলেন। দিলীপ কুমারের সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক পরিণতি পায়নি। এমনকি মধুবালার মৃত্যুর পরে যে কবরে তিনি শায়িত ছিলেন সেখান থেকেও তাঁকে সরিয়ে দেওয়া হয়।
মীনা কুমারী:
মীনা কুমারীর জীবনের সেরা ছবি পাকিজা মুক্তির তিন সপ্তাহ পরে মৃত্যু হয় তার। তিনি ৩৯ বছর বয়সে সিরোসিস অব লিভারে‌ আক্রান্ত হয়ে মারা যান। শোনা যায় এই অভিনেত্রী প্রচুর পরিমাণ মদ পান করতেন। সে কারণেই লিভারে প্রভাব পড়ে।
দিব্যা ভারতী:
দিব্যা ভারতী ১৯৯৩ সালে মুম্বাইয়ের নিজ ফ্ল্যাট থেকে নিচে পড়ে যান। ফলে বলিউডের এই উঠতি তারকার মাত্র ১৯ বছর বয়সেই মৃত্যু হয়। তবে সংবাদমাধ্যমে এই অভিনেত্রীর মৃত্যু নিয়ে দ্বিমত রয়েছে। দিব্যা ভারতীর মৃত্যু দুর্ঘটনা, না পরিকিল্পিত ভাবে খুন করা হয়েছে, তা আজ পর্যন্ত জানা যায়নি।
জিয়া খান:
২০১৩ সালে মৃত্যু হয় জিয়ার। যদিও জিয়ার মায়ের অভিযোগ, তার কন্যাকে খুন করা হয়েছে। মৃত্যুর সময় রেখে যান একটি সুইসাইড নোট। যার ওপর ভিত্তি করে পুলিশ আদিত্য পাঞ্চোলির ছেলে সুরজ পাঞ্চোলিকে গ্রেপ্তার করে। পরে অবশ্য তাকে ছেড়ে দেয় পুলিশ।
পারভিন ববি:
২০০৫ সালে পারভিন ববির মৃত দেহ তার ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার করে পুলিশ। ঠিক কী কারণে তার মৃত্যু হয়েছিল তা আজো অজানাই রয়ে গেছে। আত্মহত্যা করেছিলেন নাকি স্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছিল তা নিয়ে সন্দেহ ছিল।