যুক্তরাজ্যকে আরও বেশি বিনিয়োগের আহ্বান জানান

0
94

অনলাইন ডেস্ক :

জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ, মহান মুক্তিযুদ্ধের পরবর্তী সময় বাংলাদেশকে স্বীকৃতিদানকারী প্রথমসারির দেশ হিসেবে যুক্তরাজ্যের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন। বাংলাদেশে ব্রিটিশ বিনিয়োগ প্রত্যাশা করে তিনি বলেন, অতীতের যেকোনো সময়ের চেয়ে বাংলাদেশে বিনিয়োগের এখন সবচেয়ে উপযুক্ত সময় বিরাজ করছে। শনিবার বিকেলে জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ নিজ বাসভবনে বাংলাদেশে সফররত যুক্তরাজ্যের পররাষ্ট্র ও কমনওয়েলথ দফতরের এশিয়া ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী অলক শর্মাকে স্বাগত জানিয়ে একথা বলেন।

বিরোধীদলীয় নেতা বাংলাদেশ ও যুক্তরাজ্যের মধ্যে পারস্পারিক সৌহার্দপূর্ণ সম্পর্কের কথা উল্লেখ করে বলেন, যুক্তরাজ্য বাংলাদেশের পরিক্ষিত বন্ধু ও উন্নয়নের অংশীদার। বাংলাদেশে স্বাস্থ্য, শিক্ষা, অবকাঠামো উন্নয়ন এবং বাংলাদেশে সবচেয়ে সম্ভাবনার ক্ষেত্র তৈরি পোশাকশিল্প এবং এ শিল্পের সংঙ্গে সংযুক্ত তৈরি পোশাকশিল্প কর্মীদের জীবনমান উন্নয়নে ভূমিকা রাখার জন্য যুক্তরাজ্য সরকারের প্রতি তিনি আহ্বান জানান। উত্তরে যুক্তরাজ্যের প্রতিমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ আমাদের গুরুত্বপূর্ণ দেশ। আর এ দেশে আমাদের উন্নয়ন সমর্থন অতীতের মতো অব্যাহত থাকবে।

বিরোধীদলীয় নেতা বাংলাদেশ থেকে যুক্তরাজ্য গমনে ভিসাসংক্রান্ত সমস্যাটি প্রতিমন্ত্রীর নজরে আনেন এবং ঢাকা থেকে যুক্তরাজ্যের গমনের ভিসা প্রক্রিয়া সহজীকরণের জন্য অনুরোধ করলে প্রতিমন্ত্রী উত্তরে বলেন, এ বিষয়ে যথাযথ ও দ্রুত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য যুক্তরাজ্য সরকারকে অবগত করা হবে। রওশন এরশাদ আরও বলেন, যুক্তরাজ্যে পাঁচ লক্ষাধিক বাংলাদেশি বসবাস করছে এবং যুক্তরাজ্যের অর্থনৈতিক উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখে চলছে।

অপর এক প্রশ্নের উত্তরে বিরোধীদলীয় নেতা বলেন, বাংলাদেশ সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড সমর্থন করে না। এ ব্যাপারে বাংলাদেশ সরকার, বিরোধীদল ও বাংলাদেশের জনগণ “জিরো টলারেন্স” নীতিতে বিশ্বাসী এবং দেশের জনগণ সর্বদাই উদার, সহনশীল, অতিথিপরায়ণ।

সাক্ষাৎকালে আরও উপস্থিত ছিলেন- ফখরুল ইমাম এমপি, বিরোধীদলীয় হুইপ সেলিম উদ্দিন এমপি, নূর-ই-হাসনা লিলি চৌধুরী এমপি, রওশন আরা মান্নান এমপি, বাংলাদেশে নিযুক্ত যুক্তরাজ্যের হাইকমিশনার এলিসন ব্ল্যাক প্রমুখ।

এস এম পলাশ