মিরাজের ঘূর্ণিতে কাবু কার্টরাইট

0
35

অনলাইন ডেস্ক:

বৃষ্টির কারণে তৃতীয় দিনের পুরো একটা সেশন নষ্ট হয়েছে। এতে অবশ্য অস্ট্রেলিয়ার চেয়ে বাংলাদেশের লাভটাই বেশি হয়েছে। বৃষ্টি শেষে অবশ্য খেলা আবার শুরু হয়েছে। গতকালের ২ উইকেটে ২২৫ রান নিয়ে আবার মাঠে নেমেছে অস্ট্রেলিয়া।এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়ার স্কোর ৩২১/৫। গ্লেন ম্যাক্সওয়েল ২৫ রানে অপরাজিত রয়েছেন।আজ দিনের প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হন পিটার হ্যান্ডসসম্ব। দলীয় ২৫০ রানে সাকিব আল হাসানের এক দারুণ থ্রোয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন তিনি। আউট হওয়ার আগে ৮২ রান করেন হ্যান্ডসকম্ব। ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান ফেরার পর সেঞ্চুরি করেন ডেভিড ওয়ার্নার। এশিয়ার মাঠে ওয়ার্নারের এটি চতুর্থ সেঞ্চুরি। এবারের বাংলাদেশ সফরে এটি তাঁর দ্বিতীয় শতক।শতকের পর অবশ্য বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান।  ব্যক্তিগত ১২৩ রানে মুস্তাফিজের বলে ইমরুলের তালুবন্দি হন তিনি। প্রথম দুটি প্রচেষ্টায় বলটি ধরতে পারেননি ইমরুল। তৃতীয় দফায় অবশ্য আর ভুল করেননি তিনি।  ২৩৪ বল মোকাবিলা করে সাতটি চারে ১২৩ রান করেন ওয়ার্নার।ওয়ার্নার ফেরার পর দ্রুত রান তোলার চেষ্টা করছিলেন হিলটন কার্টরাইট। তবে তাকে বেশিক্ষণ টিকতে দেননি মেহেদী হাসান মিরাজ। ২৮ বলে দুটি চার ও এক ছয়ে ১৮ রান করেন এই অসি অলরাউন্ডার।প্রথম টেস্টে হারের পর দ্বিতীয় টেস্টে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়িয়েছে অস্ট্রেলিয়া। গতকাল অসি ইনিংসে প্রথম আঘাত হানেন টাইগার পেসার মুস্তাফিজুর রহমান। দ্বিতীয় ওভারে ওপেনার ম্যাট রেনশকে সাজঘরে ফেরান তিনি। এরপর অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ ও সহ-অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নারের ব্যাটে ইনিংস গড়ার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছিল অস্ট্রেলিয়া। দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে ৯৩ রান যোগ করেন তাঁরা।  জুটিটা ভাঙেন তাইজুল। নিজের প্রথম বলেই স্মিথকে বোল্ড করেন বাঁহাতি এই স্পিনার। ৯৪ বলে ৫৮ রান করেন অসি অধিনায়ক।এরপর ১০০ রানের জুটি বেঁধে বাংলাদেশের কাজটা আরো কঠিন করে তোলে ওয়ার্নার-হ্যান্ডসকম্ব জুটি। ওয়ার্নারকে ফেরানোর বেশ কয়েকটি সুযোগ পেলেও সেগুলো কাজে লাগাতে পারেনি বাংলাদেশ। শর্ট লেগে মুমিনুল ওয়ার্নারের ক্যাচ ছাড়েন। এরপর ব্যক্তিগত ৭৩ রানে আরেকটি সুযোগ পান মুশফিক। মিরাজের বলে এগিয়ে এসে মারতে গিয়েছিলেন ওয়ার্নার। সহজ স্টাম্পিংয়ের সুযোগ মিস করেন অধিনায়ক মুশি।এর আগে মুশফিকের ৬৮, সাব্বির রহমানের ৬৬ ও নাসির হোসেনের ৪৫ রানে ভর করে প্রথম ইনিংসে ৩০৫ রান করেছে বাংলাদেশ। অসি বোলারদের মধ্যে নাথান লায়ন একাই নিয়েছেন ৭ উইকেট।

LEAVE A REPLY