মহাকাব্য রচনা করে মাইকেল মধুসূদন দত্ত বাংলা সাহিত্যকে মর্যাদাবান করেছেন

0
67

কেশবপুর অফিস:
কেশবপুরের সাগরদাঁড়িতে সপ্তাহ ব্যাপী মধুমেলার ৫ম দিন বুধবার সন্ধ্যায় মধুমঞ্চে আলোচনা সভায় বক্তরা বলেন, মহাকবি মাইকেল মধুসূদন দত্ত মহাকাব্য রচনা করে বাংলা সাহিত্যকে মর্যাদাবান করেছেন। ক্ষণজন্মা পুরুষ হিসেবে তাঁর আর্বিভাব ছিলো বাংলা সাহিত্যে উষর অঙ্গনে দেবদূতের মত। তাঁর মেধা ও মননশীল সৃষ্টি চেতনায় সমৃদ্ধ হয়েছে বাংলা ভাষা ও সাহিত্য। যশোরে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট কে.এম. মামুন উজ্জামানের সভাপতিত্বে “মধুসূদনের জীবন ও সাহিত্য” বিষয়ের উপর আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে রাখেন যশোরে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান প্রফেসর আমিরুল আলম খান। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন খুলনা বিএল কলেজের প্রাক্তন অধ্যাপক প্রফেসর আব্দুল মান্নান ও ঢাকা নজরুল ইন্সিটিটিউটের উপ-পরিচালক কবি রেজাউদ্দীন স্টালিন। আলেঅচনায় অংশ নেন তীর্যক যশোরের সাধারণ সম্পাদক দীপংকর দাস রতন, সুবর্ণ রিলিক সম্পাদক কবি সাশেমুজ্জামান সেলিম, খুলানা বিএল কলেজের সাধারণ সম্পাদক ড. সবুজ শামীম আহসান, কবি ও সাংবাদিক সুহৃত সরকার, যশোরে কবি ও গবেষক সহকারী অধ্যাপক কাজী শওকত শাহি, কেশবপুর কালেজের সাবেক সহকারী অধ্যাপক রেবা ভৌমিক, সাগরদাঁড়ি আবু শারাফ সাদেক কারিগরি কলেজের প্রভাষক কানাইলাল ভট্টাচার্য প্রমুখ। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন বিদ্রোহী সাহিত্য পরিষদের সভাপতি সহকারী অধ্যাপক শামসুজ্জামান। উপস্থাপনা করেন পাঁজিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক উজ্জ্বল ব্যানার্জী ও কেশবপুর জাতীয় রবীন্দ্র সংগীত সম্মিলন পরিষদের সভাপতি মাসুদুর রহমান। অনুষ্ঠানে কেশবপুর ও যশোরের বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠনের পরিবেশনায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়।

এস আর সাঈদ

LEAVE A REPLY