মঙ্গলের টিকিট কিনেছেন ২৪ লক্ষ মানুষ!

0
68
কল্পবিজ্ঞানের গল্প মনে হলেও বাস্তবেই প্রায় ২৪ লক্ষ মানুষ ইতোমধ্যে ‘মঙ্গল গ্রহে’ যাওয়ার টিকিট কেটে ফেলেছেন। আর এই টিকিট বিলি করছে মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ‘নাসা’।
নাসা জানিয়েছে, যারা টিকিট কেটেছেন তাদের ‘ইনসাইট’ অভিযানে মঙ্গলে নিয়ে যাওয়া হবে। হয়ত ভাবছেন এতটা এগিয়ে গিয়েছে প্রযুক্তি! তবে এখানে একটু টুইস্ট রয়েছে। এখনই সশরীরে যাত্রীদের মঙ্গলে পাঠাচ্ছে না নাসা। পরিবর্তে ওই গ্রহে পৌঁছে যাবে তাদের নাম। যে সমস্ত যাত্রীরা টিকিট কেটেছেন, তাদের নাম লিখে দেওয়া হবে ‘ইনসাইট’ মার্স ল্যান্ডারের গায়ে।
সব থেকে বেশি টিকিট কিনেছেন মার্কিন নাগরিকরা। নাসা গত বুধবার জানিয়েছে, মঙ্গল অভিযানে যেতে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মানুষের কাছ থেকে যত নাম এসেছে, এ তালিকায় ভারত তৃতীয়। তালিকায় প্রথমে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটির ছয় লাখ ৭৬ হাজার ৭৭৩ জন মঙ্গলে যেতে চায়। দ্বিতীয় অবস্থানে চীন। দেশটির দুই লাখ ৬২ হাজার ৭৫২ জন মঙ্গল গ্রহে যেতে চায়। মহাকাশ বিশেষজ্ঞরা বলছে, নাসার অভিযানে মঙ্গল গ্রহে যেতে ইচ্ছুক মানুষের তালিকার প্রথমে যুক্তরাষ্ট্রের নাম থাকাটা বিস্ময়ের নয়। তবে তালিকায় চীনের পরই ভারতের নাম থাকাটা তাৎপর্যপূর্ণ। ইতোমধ্যে প্রায় ১ লক্ষ ৩৮ হাজার ভারতীয় ওই টিকিট কিনেছেন। সব মিলিয়ে প্রায় ২৪ লক্ষ নাম জমা পড়েছে নাসার কাছে। এখন টিকিট বিলি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। যাত্রীদের অনলাইন ‘বোর্ডিং পাস’ দেওয়া হবে।
বিবৃতিতে নাসা বলেছে, ইনসাইটটি কেবল মঙ্গলগ্রহ পর্যবেক্ষণ করবে না। একই সঙ্গে এই গ্রহের গঠন এবং সৌর ব্যবস্থা পর্যবেক্ষণ করবে।২০১৮ সালের ৫ মে মঙ্গল গ্রহের উদ্দেশ্যে পাড়ি দিতে চলেছে নাসার ‘ইনসাইট’ নামের ‘মার্স ল্যান্ডার’। ওই বছরই ২৬ নভেম্বর মঙ্গল অবতরণ করবে ওই যান। প্রায় ৭২০ দিনের অভিযানে মঙ্গলের ভূপৃষ্ঠে নানা বৈজ্ঞানিক পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালাবে ‘ইনসাইট’। বিশেষ করে ওই গ্রহে হওয়া ভূমিকম্পের তথ্য সংগ্রহ করে পৃথিবীতে পাঠাবে মার্স ল্যান্ডার। ইতিমধ্যে নাসার এই অভিযান সাড়া ফেলে দিয়েছে।