ভ্রমণ কর ব্যাংকে জমা না দেওয়ায় এক পাসপোর্ট যাত্রীকে পিটিয়ে জখম

0
2360

মনিরুল ইসলাম মনি:

ভ্রমণ কর ব্যাংকে জমা না দিতে পেরে তা শুল্ক অফিসে নিতে বলায় এক পাসপোর্ট যাত্রীকে পিটিয়ে জখম করা হয়েছে। শনিবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে সাতক্ষীরার ভোমরা শুল্ক অফিসে এ ঘটনা ঘটে। সাতক্ষীরার দেবহাটা উপজেলার সখীপুর গ্রামের আব্দুল জলিলের ছেলে শফিকুল ইসলাম (৩৩) জানান, ডাক্তার দেখাতে পাসপোর্টে (বিএম ০৪৪০৮২৪) ভারতে যাওয়ার জন্য ১০৬ ডিগ্রী তাপমাত্রা নিয়ে (টাইফয়েড জ্বর) তিনি শনিবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে ভোমরা শুল্ক অফিসে আসেন। ছুটি থাকার কারণে সোনালী ব্যাংকে ভ্রমণ কর জমা দিতে না পারার বিষয়টি বলে অফিসে জমা দেওয়ার জন্য ফর্ম চাইলে তাকে একটি চেয়ারে বসতে বলা হয়। এরপর তাকে পুলিশে দেওয়ার হুমকি দেওয়া হয়। একপর্যায়ে তিনি অফিস থেকে বের হয়ে শুল্ক অফিসের প্রধান ফটকের বাইরে চলে এলে ওই অফিসের কর্মী উজ্জ্বল, সেতু ও পরিচ্ছন্ন কর্মী সিরাজুল তাকে গেটের বাইরে ফেলে মারপিট করতে করতে ভিতরে নিয়ে আসেন। সেখানে তাকে বেধড়ক পিটিয়ে জখম করা হয়। উর্দ্বতন কর্মকর্তারা ছুটে এসে তাকে উদ্ধার করেন। বিষয়টি কোন সাংবাদিক বা অন্যত্র না বলার জন্য তাকে বারবার অনুরোধ করা হয়। তাদের অফিস থেকে বেরিয়ে আসার জন্য তিনি উর্দ্ধতন শুল্ক কর্মকর্তা রিপন কুমার রায় এর কথামত কোন অভিযোগ নেই বলে চলে আসেন। বিষয়টি ওই কর্মকর্তা মোবাইলে রেকর্ডিং করে নেন। এরপর তিনি বাড়ি চলে যান। রোববার সকাল ১১টার দিকে ভোমরা শুল্ক অফিসের পাশে তিন রাস্তার মোড়ে দাঁড়িয়ে সাংবাদিকদের কাছে শনিবার তার উপর শুল্ক কর্মীদের হামলার আঘাত ও ছেঁড়া নীল রঙের গেঞ্জি দেখিয়ে শফিকুল বলেন, এমনিভাবে তাকে মার খেতে হবে তা কোনদিনও ভাবতে পারেনি। জানতে চাইলে ভোমরা শুল্ক স্টেশন এর সহকারি রাজস্ব কর্মকর্তা রিপন কুমার রায় জানান, শফিকুল ইসলাম তার কাছে শনিবার এ ধরণের কোন অভিযাগ করেননি। বরং কোন সমস্যা হয়নি বলে তিনি যে জবানবন্দি দিয়েছেন তা রেকর্ডিং করা আছে।