ভালুকার সেই বাড়িটি ছিল বোমা তৈরির কারখানা!

    0
    104

    অনলাইন ডেস্কঃ

    ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলায় নিহত আলম প্রামাণিক ছিলেন বোমা তৈরির বিশেষজ্ঞ এবং বাড়িটি ছিল বোমা তৈরির কারখানা। পুলিশের কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিট (সিটিটিসি) বাড়িটিতে অভিযান চালিয়ে একটি গ্রেনেড, একটি মাইন ও দুটি প্রেসার কুকার দিয়ে তৈরি শক্তিশালী বোমা উদ্ধার করে নিষ্ক্রিয় করেছে। ময়মনসিংহের পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলাম আজ সোমবার দুপুরে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান। গতকাল রোববার বিকেল ৬টার দিকে ভালুকা উপজেলার কাশর গ্রামের একটি বাড়িতে বোমা বিস্ফোরণে আলম প্রামাণিক ওরফে আবদুল্লাহ ড্রাইভার ওরফে আরিফ (৪০) নামের এক ব্যক্তি নিহত হন। এরপর পুলিশসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা বাড়িটির চারপাশ ঘিরে রাখেন। আজ দুপুরে পুলিশের বোমা নিষ্ক্রিয়কারী দলের প্রধান মো. রহমত উল্লাহ চৌধুরীর নেতৃত্বে অভিযান শুরু করে সিটিটিসির বোমা নিষ্ক্রিয়কারী দল ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। ময়মনসিংহের পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলাম প্রেস ব্রিফিংয়ে জানান, নিহত জঙ্গি আলম প্রামাণিক ছিলেন বোমা তৈরির বিশেষজ্ঞ। কিছুদিন আগে তাঁকে ধরতে কুষ্টিয়ায় অভিযান চালায় কাউন্টার টেররিজম ইউনিট। টের পেয়ে তিনি পালিয়ে ভালুকা উপজেলার অজ্ঞাত স্থানে এক মাস আত্মগোপনে ছিলেন। ২২ আগস্ট তিনি কাশর গ্রামের ওই ঘর ভাড়া নিয়ে বোমা তৈরি শুরু করেন। দেশের বিভিন্ন জায়গায় বোমা বিস্ফোরণ ঘটিয়ে মানুষ হত্যার পরিকল্পনা করছিলেন তিনি। পুলিশ সুপার আরও জানান, গতকাল বিকেল থেকে ২২ ঘণ্টার উদ্ধার অভিযানে ঘটনাস্থল থেকে ছয়টি বোমা, আট কেজি টিএপি পাউডার, আত্মঘাতী আক্রমণের পোশাক, কয়েক হাজার ফিল্টার, পেট্রল, লোহার টুকরা ও বিপুল পরিমাণ তার উদ্ধার করা হয়েছে। পরে গ্রেনেড ও একটি বোমা ঘরের ভেতর বিস্ফোরণ ঘটানো হলে ঘরের চাল ও দেয়াল ভেঙে যায়। আর দুটি বোমা মাঠে বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছে। অভিযান সমাপ্ত ঘোষণা করা হয়েছে।

    1503931130-bhaluka-boma-3 copy

    আলম প্রামাণিকের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ মর্গে পাঠানো হয়েছে। ভালুকা থানার পুলিশ জানায়, ভালুকার হবিরবাড়ি ইউনিয়নের কাশর গ্রামে গফরগাঁও উপজেলার বিরই গ্রামের মো. আজিম উদ্দিনের (৬০) বাড়ি। ওই বাড়ির বিভিন্ন ঘরে ১০ থেকে ১২টি পরিবারকে ভাড়া দিয়েছেন তিনি। গত ২২ আগস্ট নাটোর সদর উপজেলার আমহাতি উত্তরপাড়া গ্রামের আলম প্রামাণিককে দুটি ঘর ভাড়া দেন। আলম স্ত্রী পারভীন (৩০), দুই ছেলে ইব্রাহীম (৭) ও ইসরাইলকে (৩) নিয়ে ওই বাসায় ওঠেন। গতকাল বোমা বিস্ফোরণে আলম প্রামাণিকের মৃত্যুর পর রাতের মধ্যে পুলিশ তাঁর স্ত্রী ও দুই শিশুসন্তান, বাড়ির মালিক আজিম উদ্দিন, তাঁর স্ত্রী ফাতেমা (৫৫), দুই ছেলে হাসান (২০) ও আশিককে (১৬) আটক করেছে।