ভারতের কাস্টম ও সিন্ডএফ এ্যাসোসিয়েশনের অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্বের ভোমরাস্থল বন্দরে আমদানি রপ্তানি অনিষ্টকালের জন্য বন্ধ

0
280
শহর প্রতিনিধি:
সাতক্ষীরা ভোমরাস্থল বন্দর অনিষ্টকালের জন্য আমদানি রপ্তানি বন্ধ হয়ে গেছে। ঘোজাডাঙ্গা ল্যান্ড কাস্টমস ষ্টেশনের আধিকারিদের অশোভনীয় ও অন্যায় দাবীর  প্রতিবাদে ঘোজাডাঙ্গা সিন্ডএফ কর্মচারী ওয়েলফেয়ার এ্যাসোসিয়েশন এ ধর্মঘাটের ডাক দেয়। এর ফলে সোমবার সকাল থেকে সাতক্ষীরা ভোমরাস্থল বন্দরে আমদানি রপ্তানি বন্ধ হয়ে যায়।2018-02-05_124917

ভারতের ঘোজাডাঙ্গা সিএন্ডএফ এ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মিহির কান্তি ঘোষ জানান, ভারতের সিএন্ডএফ ব্যবসায়ীরা জি-কার্ড ধারি। ব্যবসায়ীরা সবসময় বন্দরে আসতে না পারায় সেখানে এইচ-কার্ড ধারিদের অনুমতিপত্র দিয়ে ব্যবসা পরিচালনা করে আসছেন। কিন্তু হঠাৎ করে ঘোজাডাঙ্গা কাস্টমের সহকারী কমিশনার প্রদীপ কুমার ঘোষ এইচ কার্ডধারিদের (অনুমতিপত্র) মানতে নারাজ। কিন্তু হঠাৎ করে ঘোজাডাঙ্গা কাস্টমের সহকারী কমিশনারে অন্যায় দাবীর প্রেক্ষিতে ঘোজাডাঙ্গা সিন্ডএফ কর্মচারী ওয়েলফেয়ার এ্যাসোসিয়েশন এ ধর্মঘটের ডাক দেয়। ব্যবসায়ীদের দাবী না মানা পর্যন্ত এ ধর্মঘট চলতে থাকবে বলবে বলে তিনি জানান।

সাতক্ষীরা ভোমরা সিএন্ডএফের সভাপতি কাজী নওশাদ দেলোয়ার রাজু জানান, ঘোজাডাঙ্গা সিন্ডএফের সাথে সেদেশের কাস্টমসের অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্বের কারণে দুই দেশের আমদানি রপ্তানি বন্ধ রয়েছে। ভারতের সিএন্ডএফের একটি চিঠি আমরা হাতে পেয়েছে। ভারতে ঘোজাডাঙ্গায় এক থেকে দেড় হাজার পন্যবাহি  ট্রাক আটকা পড়ে আছে। বন্ধের কারণে বাংলাদেশের রাজস্ব ঘাটতি হবে প্রায় ৫-৬ কোটি টাকা।

ভোমরা কাস্টমের সহকারী কমিশনার রেজাউল হক বলেন, ভারতের ব্যবসায়ীদের সাথে সেদেশের কাস্টমের অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্বের কারণে দুই দেশের আমদানি রপ্তানি বন্ধ রয়েছে।