বীর মুক্তিযোদ্ধা মোড়ল আব্দুস সালামের ৬ষ্ঠ মৃত্যু বার্ষিকী ও স্মরণ সভা

0
137
শেখ ইমরান হোসেন ঃ
‘যাদের জন্য ঘর ছেড়েছি, যাদের জন্য পথে নেমেছি, সেই পথের মানুষের ঘরের ঠিকানা না দিয়ে ঐ ঘরে আর আমি ফিরে যাবনা” এই স্লোগাকে সামনে রেখে একটি অসাম্প্রদায়িক রাষ্ট্র কায়েম এবং সমাজতান্ত্রিক স্বাধীন বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্ন নিয়ে আজীবন রাজপথে ছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সালাম মোড়ল। তার এই মৃত্যুহীণ শ্লোগান এখনো বিপ্লবীদের অনুপ্রেরণা যোগায়।
শনিবার  সন্ধায় বীর মুক্তিযোদ্ধা মোড়ল আব্দুস সালামের ৬ষ্ঠ মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে শোক ও শপথের ষষ্ঠ মৃত্যু বার্ষিকী-১৭ শীর্ষক’ এক স্মরণ সভায় কপিলমুনি সহচরী ময়দানে(বালুর মাঠ) অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত স্মরণ সভায়  বিপ্লবী সালাম স্মৃতি পরিষদের আয়োজনে এ্যাডঃ বিপ্লব কান্তি মন্ডলের সভাপতিত্বে ও দিলীপ সরকারের সঞ্চালনায়
সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাসদের কেন্দ্রীয় নেতা ও সাতক্ষীরা থেকে প্রকাশিত দৈনিক দক্ষিণের মশাল পত্রিকার সম্পাদক অধ্যক্ষ আশেক-ই এলাহী। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন খুলনা জেলা জাসদের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক রেজাউল করিম, বীর মুক্তিযোদ্ধা ও তালা জেএসডির সভাপতি ও অধ্যাপক মোড়ল আবু বক্কর সিদ্দীকি, জেএসডি’র কেন্দ্রীয় নেতা মীর জিল্লুর রহমান, তালা উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ডেপুটি কমান্ডার আলউদ্দীন জোয়াদ্দার। বক্তব্য রাখেন, খুলনা জেলা ওয়ার্কাস পার্টির সদস্য সরদার জিল্লুর রহমান, তালা মহিলা ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুর রহমান,কপিলমুনি মেহেরুন্নেসা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রহিমা আক্তার শম্পা, মাসুমা বেগম, সাংবাদিক জগদ্বীশ দে, জেএসডি’র তালা উপজেলা সহ-সভাপতি আনন্দ অধিকারী।
সভায় বক্তারা বলেন,বাংলাদেশ গড়ার প্রথম তহবিল গঠনের লক্ষ্যে সাতক্ষীরা কো-অপারেটিভ ব্যাংক থেকে অর্থ সংগ্রহ করে তিনি সরকারকে দিয়েছিলেন। সাতক্ষীরায় স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম পতাকা উত্তোলন করেন মোড়ল আব্দুস সালাম। তিনি ছিলেন,শ্রমজীবি,কর্মজীবি,পেশাজীবি,নির্যাতিত-নিপীড়িত মানুষের প্রতিনিধি। একজন নির্লোভী মানুষ হিসেবে মোড়ল আব্দুস সালামের স্বপ্ন ছিল ভিসামুক্ত পৃথিবী গড়ার।