বিশ্বে নিরাপত্তা সুরক্ষায় প্রথম দিল্লি বিমানবন্দর

1
72

অনলাইন ডেস্ক :

বিশ্বে নিরাপত্তা সুরক্ষায় প্রথম অবস্থানে রয়েছে দিল্লির ইন্দিরা গান্ধী বিমানবন্দর। এই বিমানবন্দরের সুরক্ষা ব্যবস্থার মান অনেক উন্নত বলে মনে করে ওয়াল্ড ইকুয়ালিটি কংগ্রেস (ডব্লিউইসি)। ডব্লিউইসির তরফ থেকে সেরা সুরক্ষা ব্যবস্থার মর্যাদা পেয়েছে এই বিমানবন্দর।

প্রতি বছর প্রায় সাড়ে পাঁচ কোটি মানুষ এই বিমানবন্দর ব্যবহার করে। এই বিমানবন্দরের সুরক্ষার দায়িত্বে রয়েছে সিআইএসএফ। এই প্রথমবার কোনও বেসরকারি সংস্থা সিআইএসএফকে দিল্লি বিমানবন্দরের সুরক্ষা ব্যবস্থার জন্য পুরস্কৃত করল।

৬ জুলাই মুম্বাইতে ওয়াল্ড ইকুয়ালিটি কংগ্রেস এই পুরস্কার সিআইএসএফের হাতে তুলে দেবেন। তিনমাস আগে আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর পরিষদের মান নির্নায়ক সংস্থা বিমানবন্দর পরিষেবা সংগঠনের এক সমীক্ষা জানিয়েছে দুবাই, প্যারিস, লস অ্যাঞ্জেলস, ডালাস এবং হিথরো বিমানবন্দরের থেকে দিল্লি বিমানবন্দরের সুরক্ষা ব্যবস্থা অনেক উচ্চমানের।

বিমানবন্দর পরিষেবা সংগঠনের সমীক্ষার ভিত্তিতেই দিল্লি বিমানবন্দরকে সেরা হিসেবে শিরোপা দেওয়া হয়। সিআইএসএফের তরফ থেকে বলা হয়েছে, সিআইএসএফ ক্রমাগত দিল্লি বিমানবন্দরে যাত্রীদের সুরক্ষা দিয়ে চলেছে। সুরক্ষা ব্যবস্থাকে আরও কীভাবে উন্নত করা যায় সেদিকে সর্বদা নজর দেয় সিআইএসএফ। প্রতিদিন প্রায় হাজারেরও বেশি যাত্রীকে নিয়ে বিভিন্ন প্রতিকূলতার মধ্যেও সিআইএসএফকে কাজ করতে হয়।

সিআইএসএফের ডিজি জানান, যাত্রীদের ব্যাগ তল্লাশির ক্ষেত্রে অন্য বিমানবন্দরের চেয়ে দিল্লি বিমানবন্দরে আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়। অন্য বিমানবন্দরের তুলনায় দিল্লি বিমানবন্দর যাত্রীদের জন্য অনেক বেশি নিরাপদ। তিনি বলেন, ‘আমাদের কাছে এটা সত্যিই খুবই গর্বের ব্যাপার। এতে আমাদের কাজ করার উৎসাহ আরও বাড়বে। প্রায় ৪ হাজার প্রশিক্ষিত সিআইএসএফ নিরাপত্তারক্ষী দিল্লি বিমানবন্দরে ঘন্টার পর ঘন্টা কাজ করে যাচ্ছে। এমনকী তারা খাওয়ারও সময় পান না। কারণ তারা দিল্লি বিমানবন্দরের যাত্রীদের সুরক্ষা দিয়ে চলেছেন ক্রমাগত এবং কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা যেন না ঘটে সে দিকেও নজরদারি করছেন তারা।’

দিল্লি, কলকাতা, চেন্নাই, মুম্বাই বিমানবন্দরকে এমনিতেই স্পর্শকাতর বিমানবন্দরের তালিকায় রাখা হয়েছে। প্রতিনিয়ত ইসলামিক জঙ্গি গোষ্ঠী আল-কায়দা, আইএস, লস্কর-ই-তৈবার হামলার লক্ষ্যে পরিণত হয়েছে তারা। তাই এই চারটে বিমানবন্দরের নিরাপত্তা অন্য বিমানবন্দরগুলির তুলনায় অনেকটাই কড়া। এছাড়াও মাদকসহ অন্য নিষিদ্ধ দ্রব্য পাচারের ক্ষেত্রেও দিল্লি বিমানবন্দরের নিরাপত্তা ব্যবস্থাকে অনেকটাই জোরদার করা হয়েছে। ভারতের ৫৯টি বিমানবন্দরের নিরাপত্তার দায়িত্বে রয়েছে কেন্দ্রীয় বাহিনী সিআইএসএফ।

এস এম পলাশ

1 COMMENT