বিদেশী বন্ধুঃআমাদের সারথি

0
53
বিপুল কান্তি চৌধুরীঃ

আমাদের স্বাধীনতা অর্জনে ভূমিকা রাখেন দেশ বিদেশের অসংখ্য মানুষ। পৃথিবীর শেষ প্রান্তে থেকেও সমর্থন দিয়েছেন আমাদের মুক্তিযুদ্ধকে।সেইসব ভিনদেশী মানুষের কাছে আমরা চিরকৃতজ্ঞ। তেমন কিছু মানুষের সাথে আজ আপনাদের পরিচয় করিয়ে দেব।

আঁদ্রে মালরোঃ
ফরাসি দার্শনিক বুদ্ধিজীবী।তিনি বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে সরাসরি অংশ নিতে চাইলে পশ্চিমা বিশ্বে ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি হয়।দেশ স্বাধীন হওয়ার পর বঙ্গবন্ধুর আমন্ত্রণে তিনি বাংলাদেশ সফর করেন।

অ্যালেন গিনসবার্গঃ
আমেরিকান ‘বিট’ জেনারেশনের  সবচেয়ে জনপ্রিয় কবি।মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন তিনি ভারত সফরে আসেন।এদেশের মানুষের দুর্দশা দেখার জন্য তিনি কবি সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়কে সাথে করে কলকাতা থেকে যশোর রোডে এসেছিলেন। September on the Jessore Road কবিতায় শরণার্থীদের দুর্দশার চমৎকার বর্ণনার পাশাপাশি মার্কিন নেতাদের বিরুদ্ধে তীব্র ক্ষোভও প্রকাশিত হয়েছে।

ইন্দিরা গান্ধি ঃ
ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী।দুই বৃহৎ শক্তি যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের বিরোধিতা সত্ত্বেও তিনি বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে জোরালো সমর্থন জানান।১৯৮১ সালে শিখ দেহরক্ষীর হাতে নিহত হন।

জর্জ হ্যারিসনঃ
আমেরিকার বিটলস সংগীত দলের অন্যতম গায়ক। প্রাচ্য দেশীয় সংগীতে তালিম নেন পন্ডিত রবিশঙ্করের কাছে।মুক্তিযুদ্ধের সময়ে নিউইয়র্ক এর ম্যাসিডন স্কোয়ারে বাংলাদেশের শরণার্থীদের সাহায্যকল্পে বাংলাদেশ কনসার্টের আয়োজন করেন।

ডব্লিউ এ এস ওডারল্যান্ডঃ
অস্ট্রেলীয় নাগরিক।দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে মিত্রবাহিনীর পক্ষে লড়াই করেছেন।একাত্তর সালে টঙ্গীতে ছিলেন বাটা কোম্পানির কর্মকর্তা হিসাবে।এদেশের মুক্তিযুদ্ধে তিনি সম্মুখ সমরে লড়াই করেন।মুক্তিযুদ্ধে অবদানের জন্য তিনি বীরপ্রতীক উপাধি পান।

মার্ক টালিঃ
ব্রিটিশ সাংবাদিক।১৯৭১ সালে ছিলেন বিবিসির দক্ষিণ এশিয়ার প্রতিনিধি। অবরুদ্ধ বাংলাদেশে যে কয়জন সাংবাদিক প্রবেশের সু্যোগ তিনি তাদের একজন। তার সরেজমিন রিপোর্ট মুক্তিযোদ্ধাদের অনুপ্রাণিত করে।

সিডনি শ্যানবার্গঃ
আমেরিকান সাংবাদিক। ৭১ এ নিউইয়র্ক টাইমের দিল্লী প্রতিনিধি ছিলেন। পাকিস্তানি শাসকদের বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশের জন্য তাকে পূর্ব পাকিস্তান থেকে বহিষ্কার করা হয়।

এডওয়ার্ড এফ কেনেডিঃ
মার্কিন সিনেটে ডেমোক্র‍্যাট দলীয় সদস্য। ৭১ ও নিক্সন-কিসিঞ্জার প্রশাসনের পাকিস্তান ঘেঁষা নীতির কঠোর সমালোচক ছিলেন তিনি।স্বাধীনতার অব্যবহিত পরে ১৯৭২ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে বাংলাদেশে সফর করেন।