বাণিজ্য মেলায় প্যাভিলিয়নের সৌন্দর্যে মুগ্ধ হবেন দর্শনার্থীরা

0
64

অনলাইন ডেস্ক :

ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার পর্দা উঠতে বাকি মাত্র ৬ দিন। মেলায় অংশ নিচ্ছে দেশি-বিদেশি অনেক নামী-দামি প্রতিষ্ঠান। এর মধ্যে বেশকিছু প্রতিষ্ঠান নিজেদের প্যাভেলিয়ন ও স্টল সাজাতে ব্যাপক বিনিয়োগ করছে। প্যাভেলিয়নগুলো এমনভাবে তৈরি হচ্ছে যা দর্শনার্থীদের দেখেই ভালো লাগবে। একইসঙ্গে সূর্যাস্তের পরই ছড়াবে আলাদা দ্যূতি। যা বাণিজ্য মেলার আলাদা আকর্ষণ হবে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

রাজধানীর শেরে বাংলানগরের বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রের পাশে বাণিজ্য মেলা প্রাঙ্গণে প্রস্তুতি প্রায় শেষ পর্যায়ে রয়েছে। প্রতিবছরের ন্যায় এবারের ২২তম আয়োজনের প্রস্তুতি নিচ্ছে রফতানি উন্নয়ন ব্যুরো (ইপিবি)। বিভিন্ন স্টল মালিকদের সঙ্গে কথা বলে প্যাভিলিয়ন সম্পর্কে এসব তথ্য উঠে এসেছে।

ওয়ালটন : দেশের ইলেকট্রনিক্স জায়ান্ট ওয়ালটন গ্রুপ বাণিজ্য মেলা ১৫ হাজার বর্গফুটের তিনতলা বিশিষ্ট মেগা প্রিমিয়ার প্যাভিলিয়ন নির্মাণ করছে। ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার ২২ বছরের ইতিহাসে ওয়ালটনই প্রথমবারের মতো এবারের মেলায় অপূর্ব স্থাপত্যশৈলীর দৃষ্টিনন্দন তিনতলা বিশিষ্ট এতো বড় প্রিমিয়ার প্যাভিলিয়ন নির্মাণ করছে।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, পাঁচ হাজার বর্গফুট পরিমাণ জায়গা নিয়ে নির্মাণ করা হচ্ছে প্যাভিলিয়নের প্রতিটি ফ্লোর। যার চারপাশে থাকবে সবুজের সমারোহ। মেলায় আগত সেলফিপ্রেমী দর্শনার্থীদের জন্য থাকবে আকর্ষণীয় সেলফি কর্নার। ক্রেতা-দর্শনার্থীদের সুবিধার্থে থাকছে অত্যাধুনিক সুপরিসর লিফট। প্রযুক্তিপণ্য উৎপাদনে ওয়ালটনের আকাশ-ছোঁয়ার আকাঙ্ক্ষার সঙ্গে মিল রেখেই তৈরি করা হচ্ছে প্যাভিলিয়নটি।

এ প্রসঙ্গে ওয়ালটনের অপারেটিভ ডিরেক্টর উদয় হাকিম বলেন, দেশের সর্ববৃহৎ বাণিজ্য মেলায় নতুন নতুন পণ্যসামগ্রী উপস্থাপন এবং দৃষ্টিনন্দন প্যাভিলিয়ন স্থাপনের মাধ্যমে ওয়ালটন বরাবরই দর্শনার্থীদের চমক দিয়ে থাকে। এরই ধারাবাহিকতায় দর্শনার্থীদের জন্য বাণিজ্য মেলার ইতিহাসে সর্ববৃহৎ প্যাভিলিয়ন স্থাপন করছে ওয়ালটন। নতুন বছরের শুরুতে মেলায় আগত ক্রেতা-দর্শনার্থীদের নতুন কিছু উপহার দিতেই ওয়ালটনের এই বিশেষ উদ্যোগ নিয়েছে।
যমুনা ইলেকট্রনিকস : বাণিজ্য মেলায় যমুনা গ্রপের অঙ্গপ্রতিষ্ঠান যমুনা ইলেকট্রনিক্স প্যাভিলিয়ন হবে আলাদা বৈশিষ্টমণ্ডিত। মেলায় এবারের যমুনা ইলেকট্রনিক্সের প্যাভিলিয়ন হবে দু’তলা বিশিষ্ট। প্যাভিলিয়ন নং ২২।

এ প্রসঙ্গে প্রতিষ্ঠানটির ব্রান্ড ম্যানেজার সুমন বলেন, মেলায় আমাদের প্যাভিলিয়নটি হবে অত্যন্ত আকর্ষণীয়। এর আগেও মেলায় আমরা অংশ নিয়েছি। কিন্তু এবার আনা হয়েছে আলাদা বৈচিত্র্য সম্প্পন্ন। যা দেখেই দর্শনার্থীরা মুগ্ধ হবেন।
মাইওয়ান : দেশের অন্যতম খ্যাতনামা ইলেকট্রনিক্স প্রতিষ্ঠান মাইওয়ান এবার মেলায় একেবারেই আলাদা বৈশিষ্ট সম্পন্ন প্যাভিলিয়ন নিয়ে আসছে। দেশীয় এই প্রতিষ্ঠানটি হবে সম্পূর্ণ পরিবেশবান্ধব। অনেকটা হেরিটেজ টাইপের।

এ প্রসঙ্গে মাইওয়ান ইলেকট্রনিক্স ও মিনিস্টার হাইটেক পার্কের ব্রান্ড ম্যানেজার কেএমজি কিবরিয়া বলেন, এবারের বাণিজ্য মেলায় আমাদের প্যালিয়ন হবে সম্পূর্ণ ইকো ফ্রেন্ডলি। আমরা দেশীয় ইলেকট্রনিক্স প্রতিষ্ঠান হিসেবে বাংলাদেশ নিয়ে গর্ব করি। মেলায় লাল-সবুজের আদলে এই প্যাভিলিয়ন হবে একেবারেই ব্যতিক্রম। যা দেখে মুগ্ধ হবেন যেকোনো দর্শনার্থী।

এছাড়া আকতার ফার্নিচার, ফিউচার গ্রুপ, ইগলু আইসক্রিম, ব্র্যাক ও নাবিস্কো বিস্কুটের প্যাভিলিয়ন অত্যন্ত আকর্ষণীয় হবে বলে জানা গেছে।

এস এম পলাশ

LEAVE A REPLY