বসার ঘর সাজাতে সোফা

0
226

অনদলাইন ডেস্ক :

মনের মতো করে নিজের ঘরটি সাজাতে কে না চায়। নতুন কোনো অতিথি এলে সবার আগে তাকে যেখানে স্বাগত জানানো হয়, সেটি বসার ঘর। আর বসার ঘরের সবচেয়ে দরকারি আসবাবটি হচ্ছে সোফা। সোফাই আপনার রুচিবোধ তুলে ধরবে অন্যদের সামনে। এক সেট মানানসই সোফা বদলে দিতে পারে আপনার পুরো বসার ঘরের সাজ।

নিজের থাকার স্থানের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে সোফা কেনাটাই ভালো। সোফা যে শুধুই বসার ঘরের জন্য তা নয়, বেডরুমেও চাইলে ছোট সোফা রাখা যায়। তবে ছোট রুমে ঢাউস আকৃতির সোফা না রাখাটাই ভালো। সব মিলিয়ে সোফা নির্বাচনের সময় রুমের দেয়ালের রঙ, রুমের আকৃতি ও রুমের অন্যান্য ফার্নিচারের রঙ খেয়াল রাখতে হবে। এই তিনটি বিষয়ের সমন্বয় আপনাকে মানানসই সোফা পেতে সাহায্য করবে। এক্ষেত্রে আপনি কোনো ইন্টেরিয়র ডেকোরেটরের সঙ্গেও পরামর্শ করে সিদ্ধান্ত নিতে পারেন।

কাঠের সোফার আবেদন আগের মতোই রয়েছে। তবে এখন কাঠের পাশাপাশি রট আয়রনের সোফাও অনেক জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। তবে কাঠের সোফায় বেশ ভালোই কাজ করা হচ্ছে। রঙ, নকশা, আকৃতি সবকিছুতেই বেশ পরিবর্তন এসেছে। ন্যাচারাল লিকার, ডার্ক লিকার ও অ্যান্টিক লিকার এই তিন রঙের কাঠের সোফার চাহিদাই তুলনামূলক বেশি।

রড আয়রনের সোফাও বেশ জনপ্রিয়। বেতের সোফার রয়েছে ভিন্নধর্মী ঘরোয়া আবেদন। কাঠ, রট আয়রন, গদি সোফা অথবা বেত যাই হোক না কেন আপনারই বেছে নিতে হবে আপনার বাড়ির জন্য মানানসই সোফাটি।

ঘর ছোট হলে হালকা ডিজাইনের কাঠ, বেত, বাঁশ বা রট আয়রনের সোফা রাখুন। মডার্ন সাজ চাইলে কাঠ বা রট আয়রনের সোফা আর ট্র্যাডিশনাল সাজে বেত বা বাঁশের সোফা ভালো মানায়। বসার ঘরটি বড় হলে একপাশে ডিভান রাখুন। ডিভান ও সোফার উচ্চতার হবে সমান। সোফার সঙ্গে মিলিয়ে ডিভান নিন।

সোফা কাঠের হলে কাঠের ডিভান, বেতের সোফার সঙ্গে বেতের এবং রট আয়রনের সঙ্গে রট আয়রন। শোবার ঘরে খাটের এক পাশে দুটি লো-হাইট সোফা রাখুন। শিশুর ঘরে ছোট আকৃতির দু-একটি সোফা রাখতে পারেন। আর শিশুর পড়ার ঘরে ছোট লো-হাইট ডিভান রাখুন।

এস এম পলাশ