ফেভারিট হিসেবেই চ্যাম্পিয়ন্স লীগে মিশন শুরু করতে যাচ্ছে রিয়াল মাদ্রিদ

1
41

অনলাইন রিপোর্টঃ

চ্যাম্পিয়ন্স লীগের ইতিহাসে রিয়াল মাদ্রিদ নিজেদের যে আসনে নিয়ে গেছে অন্যরা সেখানে আদৌ পৌঁছাতে পারবে কি-না তা নিয়ে যথেষ্ট সন্দেহ রয়েছে। ইউরো ফুটবলের এই শীর্ষ টুর্নামেন্টে এবারও পরিপূর্ণ আত্মবিশ্বাস নিয়ে মাঠে নামতে যাচ্ছে জিনেদিন জিদানের শিষ্যরা। ধারাবাহিক শিরোপা জয়ের লক্ষ্য নিয়েই বুধবার সান্তিয়াগো বার্নব্যুতে সাইপ্রাসের দল এ্যাপোয়েল নিকোশিয়াকে আথিথেয়তা দানের মাধ্যমে নতুন ইউরো মিশন শুরু করবে ফেভারিট রিয়াল মাদ্রিদ। সর্বশেষ দল বদলের সময় যেখানে বড় দলগুলো কাড়ি কাড়ি অর্থ ব্যয় করেছে সেখানে বিপরীত চিত্র ছিলো রিয়াল মাদ্রিদের। খরচ তো দূরের কথা অ্যালভারো মোরাতা, হামেস রদ্রিগেজ ও ড্যানিলোকে বিক্রি করে দিয়ে তারা আয় করেছে ৭৫ মিলিয়ন ইউরো। তারপরও অটুট রয়েছে রিয়ালের শক্তি। এমন অবস্থায়ও বেশ সতর্ক স্প্যানিশ জায়ান্টরা। ক্লাবের সাবেক স্ট্রাইকার ও বর্তমান পরিচালক এমিলিও বুট্রাগুয়েনো সতর্ক করে দিয়ে বলেন, ‘আমরা বর্তমান চ্যাম্পিয়ন। তাই সবাই অতিরিক্ত মনোযোগ দিয়ে আমাদের মোকাবেলা করবে।’ গত মৌসুমে বায়ার্ন মিউনিখ, অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ এবং সবশেষে জুভেন্টাসকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন শিরোপা জয় করেছিল রিয়াল মাদ্রিদ। এবার সূচনা ম্যাচের প্রতিপক্ষ তেমন একটা শক্তিশালী না হলেও এইচ গ্রুপে তারা প্রতিপক্ষ হিসেবে পেয়েছে বরুশিয়া ডর্টমুন্ড ও টোটেনহ্যাম হটস্পারের মত শক্তিশালী ক্লাবকে। আগের মৌসুমের গ্রুপ পর্বে রিয়াল জার্মান প্রতিপক্ষ বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের কাছে পরাজিত হলেও নকআউট পর্বে গিয়ে সেরা নৈপুন্য প্রদর্শন করে। বুট্রাগুয়েনো বলেন, ‘আমাদের রয়েছে অসাধারণ একটি স্কোয়াড। তবে এটি একটি প্রতিযোগিতা। তাই প্রতিটি মুহূর্তে সবদিক থেকে সতর্ক থাকতে হবে। আপনার সমৃদ্ধ একটি স্কোয়াড থাকলেও নির্ধারিত লক্ষ্য অর্জন করতে হলে ইনজুরি থেকে মুক্ত থাকতে হবে। অসাধারণ ফর্ম থাকার পরও ভাগ্য সহায় থাকতে হবে। এখানে অনেকগুল অনুষঙ্গ জড়িত।’

1 COMMENT