পুষ্টিহীনতার কারণেও হতে পারে ডিপ্রেশন

1828
39297

অনলাইন ডেস্ক :

পুষ্টির ঘাটতির কারণে শারীরিক অসুস্থতার সৃষ্টি হয় এটা প্রায় সবাই জানেন। কিন্তু খুব কম মানুষই জানেন না যে পুষ্টির সাথে ডিপ্রেশনের সম্পর্ক বিদ্যমান। আমরা সবাই যে ভুলটা করি তা হচ্ছে – ডিপ্রেশন শুধু আবেগ সংক্রান্ত কারণেই হয় বলে মনে করি। বিভিন্ন গবেষণায় এটাই প্রমাণিত হয়েছে যে, অপর্যাপ্ত পুষ্টি ডিপ্রেশন সৃষ্টির প্রধান কারণগুলোর একটি। যে পুষ্টি উপাদানের ঘাটতির কারণে ডিপ্রেশন হতে পারে সেগুলোর বিষয়েই জেনে নিব এই ফিচারে।

১। আয়রনের ঘাটতি

পুরুষের তুলনায় নারীরাই ডিপ্রেশন ভোগেন বেশি। ইন্ডিয়ান জার্নাল অফ সাইকিয়াট্রি তে ২০০৮ সালে প্রকাশিত এক গবেষণা প্রতিবেদনে জানা যায় যে, ২৫-৪৫ বছর বয়সের নারীরা অ্যানেমিয়ায় ভোগেন বলে তাদের মধ্যে ডিপ্রেশনে ভোগার সম্ভাবনা বেশি। আয়রনের ঘাটতিই বিষণ্ণতা ও ক্লান্তির কারণ।

২। জিংক

গত কয়েক দশকের অন্তত ৫ টি গবেষণার সারমর্ম হিসেবে জানা যায় যে, ক্লিনিক্যাল ডিপ্রেশনের রোগীদের মধ্যে জিংক এর মাত্রা কম থাকে। এটাও দেখা যায় যে, জিংক সাপ্লিমেন্ট সেবনের ফলে অ্যান্টিডিপ্রেসেন্ট থেরাপি অনেক কার্যকর হয়। এর আরো একটি সুবিধা হচ্ছে জিংক মস্তিষ্কের কোষকে ফ্রি র‍্যাডিকেলের ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা করে।

৩। ফলিক এসিড

চিকিৎসকেরা লক্ষ করেছেন যে, বিষণ্ণতাগ্রস্থ মানুষের ফোলেট বা ফলিক এসিড সুস্থ মানুষের তুলনায় ২৫% কম থাকে। যদি আপনি অ্যান্টিডিপ্রেসেন্ট অবস্থায় থাকেন এবং আপনার ফলিক এসিডের ঘাটতি থাকে তাহলে আপনার চিকিৎসার ফলাফল ভালো আসবেনা বলে গবেষণায় জানানো হয়েছে। গবেষকেরা বলেন যে, অ্যান্টিডিপ্রেসেন্ট ঔষধের সাথে ৫০০ মাইক্রোগ্রাম ফলিক এসিড গ্রহণ করলে ঔষধের কার্যকারিতা বৃদ্ধি পায়।

৪। কারবোহাইড্রেট

ওজন কমানোর জন্য যদি আপনি দীর্ঘদিন যাবত কম শর্করা সমৃদ্ধ খাবার গ্রহণ করে থাকেন তাহলে আপনার ডিপ্রেশনে ভোগার সম্ভাবনা বৃদ্ধি পায়। এর কারণ হচ্ছে মস্তিষ্কের রাসায়নিক সেরোটোনিন এবং ট্রিপ্টোফেন ভালো থাকার অনুভূতি দেয়, যা শর্করা সমৃদ্ধ খাবার খাওয়ার ফলে উদ্দীপ্ত হয়।

৫। প্রোটিন

আমিষ জাতীয় খাবার গ্রহণ শুধুমাত্র স্বাস্থ্যকে ফিট রাখার জন্যই গুরুত্বপূর্ণ নয় মস্তিষ্কের কাজ সঠিক ভাবে সম্পন্ন করার জন্য এবং মানসিক স্বাস্থ্য ভালো রাখতেও সাহায্য করে। এর কারণ হচ্ছে মস্তিষ্কের নিউরোট্রান্সমিটারগুলো অ্যামাইনো এসিডে তৈরি যা থাকে প্রোটিনে।

আরো যে পুষ্টি উপাদানের ঘাটতি হলে ডিপ্রেশন হতে পারে সেগুলো হচ্ছে – ওমেগা ৩ ফ্যাটি এসিড,ভিটামিন বি কমপ্লেক্স, ম্যাগনেসিয়াম ও ভিটামিন ডি ইত্যাদি।

1828 COMMENTS