পানি বাড়ছে পদ্মায়, ঢাকাসহ মধ্যাঞ্চলে বন্যার শঙ্কা

0
138

অনলাইন ডেস্কঃ

হু হু করে বাড়ছে পদ্মা নদীর পানি। গত ২৪ ঘণ্টায় এ নদীর পানি রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ পয়েন্টে ২১ সেন্টিমিটার বেড়ে বিপদসীমার ৭৭ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। অন্যদিকে, ভাগ্যকূল পয়েন্টে ১৭ সেন্টিমিটার বেড়ে বিপদসীমার ১৫ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে বইছে দেশের অন্যতম প্রধান এ নদীর পানি।

পদ্মায় পানি বৃদ্ধির ধারা আরও তিনদিন অব্যাহত থাকতে পারে। এর ফলে রাজধানী ঢাকাসহ মধ্যাঞ্চলে বন্যা দেখা দিতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। বুধবার (১৬ আগস্ট) পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্র থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।  এদিকে, কুড়িগ্রামসহ উত্তরাঞ্চলের বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হচ্ছে এবং এটা অব্যাহত থাকবে। সিরাজগঞ্জের বন্যা পরিস্থিতিও আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে উন্নতির দিকে যেতে শুরু করবে বলে জানিয়েছেন পাউবোর প্রকৌশলীরা। গত কয়েকদিনের মতো বুধবাররও সকাল থেকেই রাজধানী ঢাকায় বৃষ্টিপাত হচ্ছে। বেলা সাড়ে ১১টা থেকে ১২টার দিকে বিকট শব্দে মুহুর্মুহু বজ্রপাতের ঘটনা ঘটেছে। আবহাওয়া অধিদফতরের তথ্য অনুযায়ী, সকাল ৬টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত ঢাকায় ১৬ দশমিক ৪ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে। আবহাওয়াবিদরা জানিয়েছেন, আগামী দুইদিন পর বৃষ্টির এই প্রবণতা কমতে পারে। তবে আগামী ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রাম ও বরিশালে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর। বুধবার দুপুরে বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. সাজ্জাদ হোসেন বলেন, ‘প্রধান প্রধান ২০টি নদীর পানি ২৯টি পয়েন্টে বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। ব্রহ্মপুত্র-যমুনা এবং গঙ্গা-পদ্মা নদীর পানি বৃদ্ধি পাচ্ছে। অপরদিকে সুরমা-কুশিয়ারা নদীর পানি কমছে। আগামী ৪৮ ঘণ্টায় যমুনা নদীর পানি বৃদ্ধি স্থিতিশীল হয়ে কমতে থাকবে।’ তিনি বলেন, ‘পদ্মা নদীর পানি বৃদ্ধি আগামী তিনদিন অব্যাহত থাকতে পারে। ঢাকার আশেপাশের নদীগুলোর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে।’

বরিশাল ও চট্টগ্রামে অতি ভারী বৃষ্টি
বুধবার দুপুরে অতি ভারী বৃষ্টির সতর্কবাণীতে আবহাওয়া অধিদফতর জানিয়েছে, সক্রিয় মৌসুমী বায়ুর (বর্ষা) প্রভাবে বুধবার দুপুর ১২টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগের কোথাও কোথাও ভারী (৪৪ থেকে ৮৮ মিলিমিটার) থেকে অতি ভারী (৮৯ মিলিমিটার বা এর বেশি) বৃষ্টি হতে পারে। ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির কারণে চট্টগ্রাম বিভাগের পাহাড়ি এলাকার কোথাও কোথাও ভূমিধসের আশঙ্কার কথাও সতর্কবাণীতে বলা হয়েছে।

অভ্যন্তরীণ নদীবন্দরে ১ নম্বর সতর্ক সংকেত
বুধবার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত দেশের অভ্যন্তরীণ নদীবন্দরগুলোর জন্য আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে- রংপুর, রাজশাহী, পাবনা, বগুড়া, টাঙ্গাইল, ময়মনসিংহ, ঢাকা, ফরিদপুর, মাদারীপুর, কুষ্টিয়া, যশোর, খুলনা, বরিশাল, পটুয়াখালী, নোয়াখালী, কুমিল্লা, চট্টগ্রাম, কক্সবাজার এবং সিলেট অঞ্চলের উপর দিয়ে দক্ষিণ বা দক্ষিণ-পুর্ব দিক থেকে ঘণ্টায় ৪৫-৬০ কিলোমিটার বেগে বৃষ্টি বা বজ্রবৃষ্টিসহ অস্থায়ীভাবে দমকা বা ঝোড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। এসব এলাকার নদীবন্দরগুলোকে ১ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। বুধবার সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে আরও বলা হয়েছে, মৌসুমী বায়ুর বর্ধিতাংশের অক্ষ পাঞ্জাব, হরিয়ানা, উত্তর প্রদেশ, বিহার, হিমালয়ের পাদদেশীয়, পশ্চিমবঙ্গ এবং বাংলাদেশের উত্তরাঞ্চল হয়ে উত্তর-পূর্ব দিকে আাসাম পর্যন্ত বিস্তৃত। এর একটির বর্ধিতাংশ উত্তর বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। মৌসুমী বায়ু বাংলাদেশের উপর সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরে মাঝারি অবস্থায় বিরাজ করছে। আগামী তিনদিনে বৃষ্টিপাতের প্রবণতা কমতে পারে বলেও পূর্বাভাসে বলা হয়।

বিশ্বজিৎ দাশ