নিরাপত্তা পরিষদের ১২ দেশের সঙ্গে সম্পর্ক স্থগিত করছে ইসরায়েল

0
70

অনলাইন ডেস্ক :

অধিৃকত ফিলিস্তিনি ভূখণ্ডে ইসরায়েলি বসতি স্থাপন বন্ধের পক্ষে ভোট দেয়ার পর জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের সদস্য ১২ রাষ্ট্রের সঙ্গে সব ধরনের কাজের সম্পর্ক স্থগিতের ঘোষণা দিয়েছেন বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু।

মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন এক প্রতিবেদনে বলছে, নিরাপত্তা পরিষদে শুক্রবারের প্রস্তাবনায় ভোটদানকারী দেশগুলোর সঙ্গে সম্পর্ক সাময়িকভাবে সীমিত করতে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে নির্দেশ দিয়েছেন ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু।

নিরাপত্তা পরিষদে পাস হওয়া প্রস্তাবনায় বলা হয়েছে, পশ্চিম তীর ও পূর্ব জেরুজালেমে ইসরাইয়েলি বসতি স্থাপনে আইনী বৈধতা নেই; এবং এর মাধ্যমে আন্তর্জাতিক আইনের কঠোর লঙ্ঘন করছে ইসরায়েল। এ দুই এলাকায় ৬ লাখ ইসরায়েলি বসবাস করে আসছে।

প্রস্তাবনা পাসে সহায়তাকারী নিরাপত্তা পরিষদের ১৪ দেশের মধ্যে ১২টির সঙ্গে বাণিজ্যিক কার্যক্রম স্থগিত করছে বলে ইসরায়েলের ঊর্ধ্বতন দুই কর্মকর্তা দাবি করেছেন। সিএনএন বলছে, দেশগুলো হলো; ব্রিটেন, ফ্রান্স, রাশিয়া, জাপান, অ্যাঙ্গোলা, উরুগুয়ে, সেনেগাল, চীন, ইউক্রেন, মিসর, স্পেন ও নিউ জিল্যান্ড।

দেশটির কর্মকর্তারা বলছেন, এসব দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও রাষ্ট্রদূতরা নেতানিয়াহুর সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে পারবেন না। এ ছাড়া ইসরায়েলের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় তাদেরকে গ্রহণ করবে না। এদিকে, ইসরায়েলের পররাষ্ট্র বিষয়ক মন্ত্রণালয় এ তথ্য অস্বীকার করেছে। মন্ত্রণালয়ের এক মুখপাত্র বিবৃতিতে বলেন, এসব দাবি কেবলই মিথ্যা এবং আমরা এসব দূতাবাসের সঙ্গে কার্যকলাপ সীমিত করার বিষয়ে আলোচনা করছি।

এর আগে রোববার ব্রিটেন, ফ্রান্স ও রাশিয়াসহ নিরাপত্তা পরিষদের ১২ দেশের রাষ্ট্রদূতকে তলব করে তিরস্কার জানায় ইসরায়েলের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

এস এম পলাশ