নতুন বছরের ধামাকা নাটক “পিনোকিওর মাফলার”

0
78
ইমতিয়াজ মাহমুদ :
(১)
পিনোকিও সেদিন থরথর করে কাঁপছিল। জিজ্ঞাসা করলাম, “কিরে পিনা, কি হয়েছে?”
– আর বলিস না দোস্ত, আমার উপর হামলা হয়েছে
– তোর উপর? হামলা?
– না, ঠিক হামলা না, হামলার চেষ্টা
– কীভাবে? কবে?
– ঐ যে গতকাল রাতে উত্তরা থেকে ফিরছিলাম
– ও! কোথায় হামলা হলো?
– ঐ যে আর্মি স্টেডিয়ামের ওখানে
– কারা হামলা করেছে?
– চিনতে পারিনাই। ট্র্যাক স্যুট পরা একদল গাঁট্টা গোট্টা লোক
– তোকে মেরেছে?
– না
– তোকে ধমক দিয়েছে?
– না
– তাইলে কী করে বুঝলি?
– আরে আমাকে মারতে না চাইলে এতোগুলি লোক একসাথে কী করছিল?
– ও, আচ্ছা।
দুশ্চিন্তায় আমার ফিক ফিকে হাসি বেরিয়ে আসে আর পিনোকিওর নাক এক ইঞ্চি বেড়ে যায়।
(২)
কয়দিন পরের ঘটনা। আবার পিনোকিওর উপর হামলা
– কোথায় ঘটলো?
– প্রগতি সরণীর ওখানে
– কারা? কে ওরা?
– একদল শক্ত সমর্থ লোক, কাঁধে মুখে গামছা প্যাঁচানো
– কোথায়?
– প্রগতি সরণীর ওখানে, কোদাল খন্তা হাতুড়ি আরও কি কি সব নিয়ে বসে ছিল
– ও। তোকে মেরেছে?
– না
– তোকে বকেছে?
– না
– তোকে ধমক দিয়েছে?
– আরে না
– তাইলে?
– আমাকে মারতেই এসেছিল, আমি পালিয়ে বেঁচেছি।
পিনোকিওর জন্যে আমার দুশ্চিন্তা বেড়ে যায়। আর পিনোকিওর নির্লজ্জ কাঠের নাক বেড়ে যায় আরও এক ইঞ্চি।
(৩)
দৌড়ে দৌড়ে আমার অফিসে ঢুকে পড়েছে পিনোকিও।
– কিরে পিনা, আবার কী হয়েছে?
– আমাকে একদল মাদ্রাসার ছেলে আক্রমণ করেছে
– কোথায় কোথায়? কী বলিস? ভয়ংকর কথা
– ঐ যে আম্বরশাহ মসজিদের পাশে
– মসজিদের পাশে?
– হ্যাঁ, মাদ্রাসার হোস্টেলটার পাশে
– তোকে গালি দিয়েছে?
– না
– তোকে ধমক দিয়েছে?
– না
– তোকে মেরেছে?
– আরে না, আমি তো ওদের দেখেই পালিয়েছি
– তাইলে কী করে বুঝলি?
– আরে আমি লেখালেখি করি, মিথ্যা কথা বলি, আমাকে…
না। পিনোকিওকে নিয়ে আমার উদ্বেগ আর গেলো না। এদিকে ওর ময়লা মাখানো নোংরা নাকের দৈর্ঘ্য বেড়েই যাচ্ছে।