দেড় কোটি বাংলাদেশি ঘর-বাড়ি ছাড়া হবেন: ঢাকা থেকে ফিরে কেরি

46
318

অনলাইন ডেস্ক :

জলবায়ু পরিবর্তনজনিত কারণে ২০৫০ সালের মধ্যে দেড় কোটি মানুষ বাস্তুচ্যুত হতে পারেন বলে জানিয়েছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি। সোমবার বাংলাদেশ সফর শেষে রাত ১০টা ৫৫ মিনিটে এক টুইটে কেরি এ কথা বলেন। সোমবার বিকেল সাড়ে পাঁচটায় তিনি বাংলাদেশ ছেড়ে রাত নয়টার দিকে দিল্লিতে নামেন।
টুইটে কেরি উল্লেখ করেন, এ সমস্যা মোকাবেলায় বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্র যৌথভাবে স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরিয়ে আনতে ও ক্লিন এনার্জি নিয়ে ভবিষ্যতে কাজ করতে প্রতিশ্র“তিবদ্ধ।
এর আগে ঢাকা সফরে থাকার সময়ে বাংলাদেশের উন্নয়নের উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করে দুটি টুইট করেন কেরি। একটি টুইটে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাতের ছবিও পোস্ট করেছেন তিনি।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাতের ছবি পোস্ট করে জন কেরি লিখেছেন, ‘বাংলাদেশের অসাধারণ অগ্রগতির ইতিহাস রয়েছে। আজ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সঙ্গে সাক্ষাৎ করে আনন্দিত।’
এ টুইটের পরই কেরি আরেকটি টুইট করেন। এ টুইটে তিনি সফরে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনার কথা তুলে ধরেন। তিনি লিখেছেন, ‘নিরাপত্তা ইস্যু ও চরমপন্থী সহিংসতার বিরুদ্ধে আমাদের দৃঢ় সহযোগিতা নিয়ে আজ গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা হয়েছে।’
সোমবার সকাল ১০টা ১৫ মিনিটে একটি বিশেষ বিমানে ঢাকার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করেন জন কেরি। পররাষ্ট্রমন্ত্রী এএইচ মাহমুদ আলী তাকে বিমানবন্দরে অভ্যর্থনা জানান। সেখান থেকে র‌্যাডিসন হোটেলে গিয়ে তিনি কিছুক্ষণ বিশ্রাম নেন। হোটেল থেকে বের হয়ে ধানমণ্ডি ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করতে আসেন কেরি। সেখানে তিনি বঙ্গবন্ধু জাদুঘর পরিদর্শন করেন। পরিদর্শন বইতে তিনি বাংলাদেশ ও বঙ্গবন্ধু নিয়ে তার অনুভূতির কথা লিখেন।
বেলা পৌনে ১২টার দিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কার্যালয়ে পৌঁছান কেরি। সেখানে বৈঠকে বসেন দুই নেতা। বৈঠকে দুই দেশের স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়। এসময় জঙ্গি ও সন্ত্রাসবাদ দমনে দুই দেশকে এক সঙ্গে লড়াই করার আহ্বান জানান মার্কিন এই পররাষ্ট্রমন্ত্রী।
প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতের পরে দুই পররাষ্ট্রমন্ত্রীর মধ্যে আনুষ্ঠানিক আলোচনা হয় রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায়। আনুষ্ঠানিক বৈঠকের পরে পদ্মাতেই ওয়ার্কিং লাঞ্চে অংশ নেন তিনি।
পরে বিকালে এডওয়ার্ড এম কেনেডি সেন্টার ফর পাবলিক সার্ভিস অ্যান্ড আর্টস (ইএমকে সেন্টার) জন কেরি একটি অনুষ্ঠানে যোগ দেন। ইএমকে সেন্টারেই বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন তিনি। বিকাল সোয়া ৪টার দিকে কেরি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সঙ্গে গুলশানের যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাসে বৈঠক করেন।
সোমবার বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে সফরসঙ্গীসহ বিশেষ বিমানে চড়ে ঢাকা থেকে দিল্লির পথে রওনা হন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি। নিউজওয়ার্ল্ড

46 COMMENTS

  1. Hi there! I know this is kinda off topic but I’d figured I’d ask. Would you be interested in trading links or maybe guest authoring a blog article or vice-versa? My website goes over a lot of the same subjects as yours and I believe we could greatly benefit from each other. If you are interested feel free to shoot me an e-mail. I look forward to hearing from you! Great blog by the way!

  2. I have to voice my admiration for your kindness for people that need help with in this topic. Your special dedication to passing the solution throughout appeared to be exceedingly interesting and has consistently empowered people much like me to achieve their goals. Your own invaluable tips and hints entails this much to me and somewhat more to my office colleagues. With thanks; from everyone of us.

  3. My wife and i got absolutely peaceful that Louis could conclude his investigation through your precious recommendations he grabbed out of the site. It is now and again perplexing to simply continually be giving freely tips and tricks which usually the rest could have been making money from. We really take into account we need the blog owner to thank for this. The explanations you’ve made, the easy web site navigation, the relationships you can help to create it’s got most impressive, and it’s really leading our son and us consider that the idea is brilliant, and that is exceedingly important. Many thanks for all!

  4. Thanks a lot for providing individuals with remarkably memorable chance to read from this blog. It really is very excellent plus jam-packed with a lot of fun for me personally and my office colleagues to visit your blog more than three times every week to find out the latest guides you have got. And lastly, I’m just usually satisfied with the staggering thoughts you serve. Certain 3 ideas in this posting are ultimately the most impressive we have ever had.

  5. I must show my admiration for your generosity giving support to women who really need help on this important subject. Your personal commitment to getting the solution up and down turned out to be certainly practical and have consistently encouraged regular people like me to realize their objectives. Your entire insightful help and advice can mean much to me and even more to my office workers. Thanks a lot; from everyone of us.

  6. I have observed that over the course of constructing a relationship with real estate homeowners, you’ll be able to come to understand that, in each and every real estate purchase, a percentage is paid. All things considered, FSBO sellers will not “save” the commission payment. Rather, they try to win the commission by way of doing the agent’s task. In this, they expend their money and also time to conduct, as best they could, the responsibilities of an representative. Those duties include uncovering the home by means of marketing, delivering the home to prospective buyers, developing a sense of buyer emergency in order to induce an offer, scheduling home inspections, controlling qualification check ups with the bank, supervising maintenance tasks, and aiding the closing.

  7. The root of your writing while sounding reasonable initially, did not work very well with me after some time. Somewhere within the paragraphs you actually managed to make me a believer but just for a short while. I nevertheless have got a problem with your jumps in assumptions and you would do well to fill in those gaps. When you can accomplish that, I would surely be impressed.