দেবহাটায় অপহরণের ঘটনায় থানায় অভিযোগ ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদকসহ আটক- ৪

0
94

স্টাফ রিপোর্টার:

দেবহাটায় এক কলেজ ছাত্রীকে অপহরণের ঘটনায় থানায় অভিযোগ। উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সহ ৪ জনকে আটক করেছে দেবহাটা থানা পুলিশ। প্রাপ্ত তথ্য মতে জানা যায়, আশাশুনি উপজেলার শরাফপুর গ্রামের আব্দুস সালামের মেয়ে খানবাহাদুর আহছানউল্লা কলেজের এইচ.এস.সি পড়ুয়া ছাত্রী শাহিদা ফারজানা শাম্মি (১৮) এবং দেবহাটার পারুলিয়া গ্রামের সাফায়েত খানের ছেলে খানবাহাদুর আহছানউল্লা কলেজের অনার্স পড়ুয়া ছাত্র আল-আমিন খান (২২) এর সাথে দীর্ঘ দিনের মন দেওয়া নেওয়া চলে আসছিল সেই সুযোগকে কাজে লাগিলে গত ১২/৭/২০১৭ তারিখে কাউকে না জানিয়ে আল-আমিন ও শাহিদা ফারজানা শাম্মি প্রেমের টানে বাড়ি ছেড়ে অন্যত্র পাড়ি জমায়। এরপর থেকে মেয়ের পরিবারের পক্ষ থেকে অনেক খোঁজা খুজি করার পর না পেয়ে গত ১৫/৭/২০১৭ তারিখে দেবহাটা থানায় একটি অপহরণের অভিযোগ দায়ের করেন মেয়ের মা সাবিনা। তাতে অভিযুক্ত করা হয় আল-আমিন খানকে। এছাড়া অপহরণের সহযোগিতা করায় অভিযোগে দেবহাটা উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক পারুলিয়া গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে ফায়জুল্লাহ ও একই গ্রামের কাঁকড়া ব্যবসায়ী মামনি এন্টার প্রাইজের স্বত্বাধিকারী হোসেন ঢালীর ছেলে সুইটকে। এ ঘটনায় রোববার দেবহাটা থানা পুলিশ ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ফয়জুল্লাহ ও সুইটকে আটক করে। তাদের তথ্য মতে পুলিশ কৌশলে বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে থাকা আল-আমিন ও শাহিদা ফারজানা শাম্মি যুগলকে আটক করে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত উভয় পক্ষের উপস্থিতে বিষয়টি সমাধানের জন্য থানায় আলোচনা চলছিল।

LEAVE A REPLY