থাড ব্যবস্থার আড়ালে চীনে গুপ্তচরবৃত্তি যুক্তরাষ্ট্রের

0
72

অনলাইন ডেস্ক:

দক্ষিণ কোরিয়ায় বিতর্কিত ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ‘থাড’ কাজ শুরু করেছে বলে ওয়াশিংটন জানানোর কয়েক ঘণ্টার মাথায় শিগগিরই তা প্রত্যাহার করতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে চীন। মঙ্গলবার চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের এক মুখপাত্র ওই আহ্বান জানিয়েছেন।

মুখপাত্র গেং শুয়াং নিয়মিত প্রেস ব্রিফিংয়ে বলেছেন, চীনের অবস্থান পরিষ্কার এবং দৃঢ়। আমরা দক্ষিণ কোরিয়ায় থাড মোতায়েনের বিরোধিতা করছি। শিগগিরই তা প্রত্যাহারে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে আহ্বান জানাচ্ছি। আমাদের স্বার্থ রক্ষায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এদিকে উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার জেরে আগামী জুলাই থেকে দক্ষিণ কোরিয়ায় থাড ব্যাটারি মোতায়েনেও সম্মত হয়েছে ওয়াশিংটন ও সিউল। এর আগে সোমবার মার্কিন কর্মকর্তারা সিউলে মোতায়েন করা থাড ব্যবস্থা কাজ করতে শুরু করেছে বলে জানায়।

উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের সঙ্গে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বৈঠকের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ওই মুখপাত্র। সোমবার ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন, সঠিক পরিস্থিতিতে কিমের সঙ্গে বৈঠক করতে পারলে তিনি সম্মানিত বোধ করবেন। তবে এর আগে মার্কিন এই প্রেসিডেন্ট উত্তর কোরিয়ায় সেনা অভিযানের হুমকিও দিয়েছিলেন।

গেং শুয়াং বলেন, চীন সব সময় বিশ্বাস করে যে পারমাণবিক নিরস্ত্রীকরণের ক্ষেত্রে সংলাপ এবং পরামর্শই একমাত্র বাস্তব এবং কার্যকর উপায়। চীনা এই কর্মকর্তা বলেন, অামরা আগেও অনেকবার বলেছি যতদ্রুত সম্ভব যুক্তরাষ্ট্র এবং উত্তর কোরিয়ার রাজনৈতিক সিদ্ধান্ত নেয়া উচিত।

ওয়াশিংটন প্রতিরক্ষামূলক ব্যবস্থা হিসেবে দক্ষিণ কোরিয়ায় থাড মোতায়েন করা হয়েছে বলে বেইজিংকে আশ্বস্ত করলেও বিতর্কিত এই থাড ব্যবস্থার আড়ালে চীনা ভূখণ্ডে গুপ্তচরবৃত্তি করা হতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছে বেইজিং।

১৯৫০-৫৩ সালে দুই কোরিয়ার মধ্যে সংঘাত শেষ হলেও কৌশলগত দিক থেকে এখনো যুদ্ধংদেহী অবস্থানে রয়েছে উত্তর কোরিয়া। এর পর থেকে প্রতিনিয়ত যুক্তরাষ্ট্র, জাপান ও দক্ষিণ কোরিয়াকে ধ্বংস করে দেয়ার হুমকি দিয়ে আসছে।