তুরস্কের সঙ্গে বাণিজ্য বৃদ্ধির জন্য এফটিএ করবে বাংলাদেশ

0
45

অনলাইন ডেস্ক :

বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, তুরস্কের সঙ্গে চলমান বাণিজ্য বৃদ্ধির জন্য এফটিএ করতে আগ্রহী বাংলাদেশ। এ বিষয়ে তুরস্কের সঙ্গে প্রথম পর্যায়ের আলাপ আলোচনা সম্পন্ন হয়েছে। দ্বিতীয় পর্যায়ের আলোচনা কিছুদিনের মধ্যে অনুষ্ঠিত হবে। বাণিজ্যমন্ত্রী বুধবার ঢাকায় হোটেল লি মেরিডিয়ানে তার্কিস এক্সপোর্টার্স অ্যাসেম্বলি (টিআইএম) এবং এফবিসিসিআই আয়োজিত “তার্কি-বাংলাদেশ বিজনেস ফোরাম অ্যান্ড বি-ট-ুবি মিটিং প্রোগ্রাম” এ প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ সব কথা বলেন। তোফায়েল আহমেদ বলেন, তুরস্ক ইউরোপিয়ন ইউনিয়নের সদস্য নয়, সে কারণে সেখানে বাংলাদেশ ডিউটি ও কোটা ফ্রি বাণিজ্য সুবিধা পায় না বাংলাদেশ। গত অর্থবছরে বাংলাদেশ তুরস্কে রফতানি করেছে ৬৩১.৬৩ মিলিয়ন মার্কিন ডলার মূল্যের পণ্য, একই সময়ে আমদানি করেছে ২১২.৩০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার মূল্যের পণ্য। দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য বাংলাদেশের পক্ষে ৪১৯.৩৩ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের তৈরি পোশাক, ওষুধ, হিমায়িত মাছ, শুকনা খাবার, পাট ও পাটজাত পণ্য, চামড়া, প্লাস্টিক পণ্য, সিরামিক পণ্য, তৈরি জাহাজ, হালকা ইঞ্জিনিয়ারিং পণ্যের প্রচুর চাহিদা রয়েছে তুরস্কে। উচ্চ শুল্কহারের কারণে বাংলাদেশ আশানুরূপ পণ্য তুরস্কে রফতানি করতে পারছে না। তুরস্কের সঙ্গে এফটিএ হলে বাংলাদেশ এ বাণিজ্য সুবিধা পাবে। তখন রফতানি অনেক বৃদ্ধি পাবে।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, তুরস্কের সঙ্গে বাংলাদেশের বাণিজ্যিক ও সাংস্কৃতিক সুসম্পর্ক ঐতিহাসিক। সেখানে বাণিজ্য বৃদ্ধির জন্য উভয় দেশের ব্যবসায়ীদের যোগাযোগ বৃদ্ধি করতে হবে। বাংলাদেশে তুরস্ক বিনিয়োগ করতে পারে। বাংলাদেশে বিনিয়োগের সুযোগ-সুবিধা ও সম্ভাবনা তুলে ধরতে হবে। এতে করে তুরস্কের বিনিয়োগকারীরা বাংলাদেশে বিনিয়োগে এগিয়ে আসবে। বাংলাদেশে তুরস্ক ডাইরেক্ট ইনভেস্ট করলে উভয় দেশ লাভবান হবে। এ জন্য এফবিসিসিআইকে উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে।

অনুষ্ঠানে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বৃদ্ধির বিষয়ে তার্কিস এক্সপোর্টার্স অ্যাসেম্বলি (টিআইএম) এবং এফবিসিসিআই-এর মধ্যে একটি এমওইউ স্বাক্ষরিত হয়। বাণিজ্যমন্ত্রীর উপস্থিতিতে বাংলাদেশের পক্ষে এফবিসিসিআই-এর প্রথম ভাইস প্রেসিডেন্ট শেখ ফজলে ফাহিম এবং টিআইএম এর পক্ষে তার্কিস এক্সপোর্টার্স অ্যাসেম্বলির মেম্বার অব সেক্টর কাউন্সিল বাসরা বাইরাক এমওইউতে স্বাক্ষর করেন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তৃতা করেন ঢাকায় নিযুক্ত তুরস্কের রাষ্ট্রদূত ডেভরিম অজতুর্ক। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশে সফররত তার্কিস এক্সপোর্টার্স অ্যাসেম্বলির মেম্বার অব সেক্টর কাউন্সিল বাসরা বাইরাক, এফবিসিসিআই-এর প্রেসিডেন্ট মো. শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন এবং এফবিসিসিআই-এর প্রথম ভাইস প্রেসিডেন্ট শেখ ফজলে ফাহিম।

এস এম পলাশ