তুজলপুর বাজারের একটি বাড়িতে অবৈধ গর্ভপাত ঘটনার আভিযোগ

0
190

নিজস্ব প্রতিনিধি।

সদর উপজেলার তুজলপুর বাজারে একটি বাড়িতে গর্ভপাত ঘটনানো অভিযোগ উঠেছে। ওই বাড়ির মালিক এর স্ত্রী বিদ্যাহীন। অবৈধ বাচ্চাদের মাদের জিম্মি করে আদায় করা হচেছ মোটা টাকা। ওই বাড়ির এক টেপা ছেলের পোশা লোক ও গ্রাম ডাক্তার রয়েছে।
সদর উপজেলার বিহারীনগর গ্রামের ববি, ঝাউডাঙ্গার পুতুল, তুজলপুর গ্রামের কয়েক জন মহিলা জানান, তুজলপুর বাজারের একটি বাড়িতে অবৈধভাবে গর্ভপাত ঘটানো হয়ে থাকে। এলাকার মানুষ জানে ডাক্তার এর স্ত্রী এ কাজ করে থাকে। স্বামী থাকলে এক রেট। স্বামী না থাকলে পোয়া বার। অবৈধভাবে এক মাস বাচ্চাদের পেটে বয়স  হলে ৫  হাজার টাকা। তিন মাস হলে দশ হাজার টাকা। বাচ্চাদের বয়স বেশি হলে টাকা বেশি। কেউ যেন না জানতে পারে এ জন্য ওই মহিলার চাহিদা মত টাকা আদায়ের অভিযোগ। বৈধ বাচ্চাদের বেলায় রেট একটু কম। এক মাস বয়স  হলে দুই হাজার টাকা। এরপর থেকে মাস বাড়ালে রেট বাড়বে মাসে এক হাজার করে। সম্প্রতি ওই বাড়িতে এক স্কুল ছাত্রীকে গর্ভপাত ঘটানো হয়েছে। পোশা দালাল চক্রের সদস্যরা রোগী আনলে তাদেরকে কমিশন দেওয়া হয়। গ্রামবাসী ইতিমধ্যেই অবৈধ গর্ভপাত বন্ধ ও হাতে নাতে ধরার জন্য আপেক্ষায় রয়েছে। এই ধরনের আপরাধ ও  শিশু হত্যার বিচার দাবি করেছে এলাকাবাসী।

LEAVE A REPLY