তালা হাসপাতালের কোয়ার্টার ভাড়ার কোটি টাকা আত্মসাৎ!

0
252
ইয়ারব হোসেন:
তালা হাসপাতালের আবাসিক কোয়ার্টারের ভাড়া জমা পড়ে না সরকারি কোষাগারে। কেউ ১২ বছর, কেউ ৮/১০ বছর থাকছেন কোয়াটার গুলোতে। বিষয়টি সম্প্রতি বিষয়টি স্থানীয় সাংবাদিকদের কাছে ধরা পড়লে চলতি মাসে  কয়েক নার্সের বেতন বিল হতে ১২ হাজার ৫শত টাকা কেটে হয়েছে বলে ভুক্তভোগীরা জানান। তবে ঐ নার্সরা কোয়ার্টারে থাকেন না বলে জানান। বছরের পর বছর ভাড়ার প্রায় কোটি টাকা কোথায় গেছে সে বিষয়ে কিছুই জানেন না সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। এ নিয়ে গোটা এলাকায় আলোচনার ঝড় উঠেছে।
তালা হাসপাতালের সিনিয়র স্টাফ নার্স রিজিয়া সুলতানা, খাদিজা পারভীন, ডালিয়া খাতুনসহ কয়েকজন জানান, তারা সরকারি কোয়ার্টার চেয়ে কখনও আবেদন করেনি নি, তাদের নামে কোন কোয়ার্টারও বরাদ্দ নেই। অথচ তাদের বেতনের টাকা থেকে বাসা ভাড়া কাটা হয়েছে! তারা প্রতিমাসে, ৪/৫ হাজার টাকা হাসপাতালের ক্যাশিয়ার (প্রধান সহকারী) হাফিজের নিকট জমা দিলেও তা সরকারি কোষাগারে জমা হয়নি বলে তারা জানান। ভুক্তভোগি নার্সরা উক্ত টাকা ফেরত চান।
এ ব্যাপারে তালা হাসপাতালের হিসাব রক্ষক সাধনা রানী সিংহ বলেন, “আমি কিছুই জানিনা, প্রধান সহকারী হাফিজ সাহেব সবই জানেন।”
তবে হাসপাতালের প্রধান সহকারী হাফিজুর রহমানের মোবাইল ফোনে বারবার চেষ্টা করেও যোগাযোগ পাওয়া যায়নি।
এ ব্যাপারে তালা হাসপাতালের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ কুতরত-ই খুদা  জানান, হাসপাতালের এ সমস্যা যুগ যুগ ধরে বিরাজমান। আমি আসার অনেক পরে বিষয়টি জেনেছি। এসব ব্যাপারে হাফিজ সাহেব ভালো বলতে পারবেন। তিনি ১৫ দিনের ছুটি নিয়ে ভারতের দার্জিলিং বেড়াতে গেছেন।”